logo
বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল, ২০১৯, ১২ বৈশাখ ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০  

বাগান থেকে ৪০০ বছরের পুরনো বনসাই চুরি

বাগান থেকে ৪০০ বছরের পুরনো বনসাই চুরি
শিম্পাকু জুনিপার বনসাই
জাপানের বনসাই অনুরাগী এক দম্পতির বাগান থেকে ৪০০ বছরের পুরনো একটি শিম্পাকু জুনিপারসহ সাতটি বনসাই চুরি হয়ে গেছে। ‘সন্তানসম’ ওই বনসাইগুলোর যতœ নিতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চোরদের প্রতি আবেগঘন অনুরোধও করেছেন সেইজি ইমুরা ও তার স্ত্রী ফুয়ুমি ইমুরা। টোকিওর সাইতামায় এ জাপানি দম্পতির নিজেদের বাগান থেকে দুলর্ভ বনসাইগুলো চুরি যায়। চুরি যাওয়া বনসাইগুলোর বাজারমূল্য এক লাখ ১৮ হাজার মাকির্ন ডলারের বেশি হবে। সংবাদসূত্র : বিবিসি, সিএনএন

পূবর্ এশিয়ার অনেক দেশ, বিশেষ করে জাপানে শিল্পীত উপায়ে বিভিন্ন বৃক্ষ ও উদ্ভিদকে বছরের পর বছর বনসাই বানিয়ে রাখার চল আছে। কেবল বানালেই চলে না, নিধাির্রত বাক্সে এসব বনসাই রেখে বিশেষ যতœ নিতে হয়। বনসাই সংগ্রাহক ও অনুরাগীদের কাছে বহুল আকাক্সিক্ষত শিম্পাকু জুনিপার বনসাইয়ের কোনো কোনোটির দাম ৯১ হাজার ডলারেরও বেশি। এই বনসাইগুলো সাধারণত কয়েকশ’ বছর বেঁচে থাকে।

ফেসবুকে দেয়া পোস্টে ফুয়ুমি লিখেছেন, ‘আমাদের শিম্পাকুটি ৪০০ বছর ধরে বেঁচে আছে, এর যতেœর দরকার হয়। পানি ছাড়া এটি এক সপ্তাহও টিকতে পারবে না। এটি অনেকদিন থাকতে পারবে, এমনকি আমরা চলে যাওয়ার পরও। যারাই এটি নিয়েছেন, আমি চাই তারা যেন এ শিম্পাকুকে ঠিকমতো পানি দেন।’ চুরি যাওয়ার তিন সপ্তাহ পরও বনসাইগুলোর খেঁাজ পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন এ নারী। তিনি বলেন, ‘আমরা দুঃখিত, নিজেদের দুভার্গা মনে হচ্ছে। এরপরও আমরা আমাদের অন্য বনসাইগুলোর সুরক্ষায় ধারাবাহিকভাবে কাজ করে যাব। আকষর্ণীয় গাছের বনসাইকরণও অব্যাহত রাখব।’ আর সেইজি ইমুরা লিখেছেন, ‘কেমন লাগছে তা ভাষায় ব্যক্ত করতে পারব না আমরা। আমাদের অমূল্য ধন ছিল তারা।’

এদিকে, বিভিন্ন বাগান মালিক ও বনসাই সংগ্রাহকরা সেইজি ও ফুয়ুমার পাশে এসে দঁাড়িয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তারা তাদের সহানুভ‚তি দেখাচ্ছেন, জানাচ্ছেন সংহতি। ফেসবুকে এক ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘ক্ষমার অযোগ্য। বনসাই চুরির অথর্ কি হতে পারে, তা ওই চোরেরা জানে না। এ সাতটিকে ছেড়ে দাও। চুরির সঙ্গে সঙ্গে এ বনসাইগুলোতে জড়ানো ভালোবাসাও চলে গেছে।’ আরেকজনের মন্তব্য, ‘বনসাই হচ্ছে সম্মান ও উদযাপনের বিষয়, এটিকে অবশ্যই মানুষের লোভ-লালসা থেকে দূরে রাখা উচিত। খবরটা পড়ে আমার হৃদয় ভেঙে গেছে।’
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে