logo
রোববার ২৬ মে, ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০  

ফিলিপাইনে শক্তিশালী ভূমিকম্প, নিহত ১৬

ধ্বংসস্তূপের ভেতরে বহু লোক আটকা

ফিলিপাইনের প্রধান দ্বীপ লুজনে শক্তিশালী এক ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। এতে প্রাথমিকভাবে অন্তত ১৬ জন নিহত হয়েছেন। সোমবার স্থানীয় সময় বিকাল ৫টা ১১ মিনিটে ছয় দশমিক এক মাত্রার ভূমিকম্পটি হয় বলে ফিলিপাইন ইনস্টিটিউট অব ভলকানোলজি অ্যান্ড সিসমোলজির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। ভূমিকম্পে একটি বিমানবন্দর ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পাশাপাশি দুটি ভবন বিধ্বস্ত হয়েছে। রাজধানী ম্যানিলার উত্তর-পশ্চিমে পামপানগা প্রদেশে ধসে পড়া একটি ভবনের ধ্বংসস্তূপের ভেতরে বহু লোক আটকা পড়ে আছেন বলে শঙ্কা কর্তৃপক্ষের। ভূমিকম্পে লুজন প্রদেশটিতেই সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সংবাদসূত্র : বিবিসি, রয়টার্স

রাজধানী ম্যানিলার ১১০ কিলোমিটার উত্তরে পোরাক শহরে সোমবার ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। এতে শহরটিতে ১২ জন নিহত হয়েছেন। সেনাবাহিনী, অগ্নিনির্বাপক বাহিনী ও বেসামরিক উদ্ধারকারী দল বিভিন্ন ভবনের নিচে আটকে পড়াদের উদ্ধারে কাজ করছে। মঙ্গলবার দুজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া একটি সুপার মার্কেটের নিচতলা থেকে সাতজনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। সেখান থেকে রাতে চারজনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

জাতীয় দুর্যোগব্যবস্থাপনা সংস্থা জানিয়েছে, সোমবারের ভূমিকম্পে লুজন দ্বীপে ৮১ জন আহত এবং ২৯টি ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আর এখন পর্যন্ত ১৪ জন নিখোঁজ রয়েছে। আটকেপড়াদের মধ্যে ২০ জনের বেশি আহত জানিয়ে প্রদেশটির গভর্নর লিলিয়া পিনেদা বলেছেন, 'তাদের কান্নার শব্দ শোনা যাচ্ছে। ব্যথায় কাঁদছেন তারা। তাদের বের করে আনা কঠিন হবে।' দেশটির লুবাও শহরে এক নারী ও তার নাতিকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে বলে পিনেদা 'এবিএস-সিবিএন' টেলিভিশনকে জানিয়েছেন। এখন পর্যন্ত ২০ জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

উলেস্নখ্য, ফিলিপাইন দ্বীপপুঞ্জ বিশ্বের অন্যতম সক্রিয় ফল্ট লাইন 'দ্য প্যাসিফিক রিং অব ফায়ার'র (প্রশান্ত মহাসাগরীয় আগ্নেয় মেখলা) অংশ হওয়ায় এখানে প্রায়ই ভূমিকম্প হয়ে থাকে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে