logo
বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১১ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

কয়েক সপ্তাহে পঞ্চমবার

উত্তর কোরিয়া আবারও দুটি ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে

যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার যৌথ সামরিক মহড়ার বিরুদ্ধে শক্তি প্রদর্শন করতেই এই পরীক্ষা

উত্তর কোরিয়া আবারও দুটি ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে
উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং-উন
যাযাদি ডেস্ক

উত্তর কোরিয়া তাদের পূর্বাঞ্চলীয় শহর হ্যামহাং থেকে জাপান সাগরে স্বল্পপালস্নার দুটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে বলে জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী। এ নিয়ে পিয়ংইয়ং কয়েক সপ্তাহের ব্যবধানে পঞ্চম দফা ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাল। যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার যৌথ সামরিক মহড়ার বিরুদ্ধে 'শক্তি প্রদর্শন' করতে তারা এ কাজ করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। সংবাদসূত্র : বিবিসি

দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ (জেসিএস) এক বিবৃতিতে বলেছে, উত্তর কোরিয়ার সামরিক বাহিনী নিজস্ব গ্রীষ্মকালীন মহড়া চালাচ্ছে। ফলে আরও ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের সম্ভাবনা রয়েছে দেশটির। তাদের এ ধারণা সত্যি হলে উত্তরের এ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ১১টি সিদ্ধান্তের লঙ্ঘন হিসেবে বিবেচিত হতে পারে। এবারের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার আগের দিনই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তরের শীর্ষ নেতা কিম জং-উনের কাছ থেকে তিন পৃষ্ঠার একটি 'খুবই চমৎকার চিঠি' পাওয়ার কথা জানিয়েছিলেন। ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার সাম্প্রতিক যৌথ সামরিক মহড়া নিয়ে অসন্তুষ্ট হয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন।

দক্ষিণ কোরিয়া জানায়, শনিবার স্থানীয় সময় ভোর ৫টা ৩৪ এবং ৫টা ৫০ মিনিটে দক্ষিণ হ্যামগিয়ং প্রদেশের হ্যামহাং থেকে কোরীয় উপদ্বীপের পূর্বে জাপান সাগরের দিকে ছোড়া হয়। সর্বোচ্চ ৪৮ কিলোমিটার উচ্চতায় ওঠা স্বল্পপালস্নার এ ক্ষেপণাস্ত্র দুটি প্রায় ৪০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেয় বলেও জানিয়েছে তারা। চলতি বছরের জুনে ট্রাম্প-কিম কোরীয় উপদ্বীপের পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণের আলোচনা আবারও শুরুর ব্যাপারে সম্মত হওয়ার পর থেকেই পিয়ংইয়ং একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ছে।

চলতি সপ্তাহে হতে যাওয়া দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ সামরিক মহড়াকে লক্ষ্য করেই এসব পরীক্ষা হচ্ছে বলে পর্যবেক্ষকদের ধারণা। আজ (রোববার) এই যৌথ মহড়া শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সীমিত পরিসরে ওই মহড়ার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। এবার মহড়া আগেরগুলোর মতো বড় আকারে হচ্ছে না বলে যুক্তরাষ্ট্রের দিক থেকে আশ্বস্ত করা হলেও এ ধরনের যৌথ মহড়াগুলোকে দীর্ঘদিন ধরেই নিজেদের নিরাপত্তার জন্য হুমকি ও উসকানি হিসেবে দেখে আসছে পিয়ংইয়ং।

গত সোমবার থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়া যে যৌথ প্রস্তুতিমূলক সামরিক মহড়া শুরু করেছে। উত্তর কোরিয়া বলছে, এ মহড়ার মাধ্যমে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইনের সঙ্গে যে সমঝোতায় পৌঁছানো গিয়েছিল, তা লঙ্ঘন করা হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক বছরের ব্যবধানে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সঙ্গে তিনবার বৈঠকে বসেন। সর্বশেষ গত ৩০ জুন তাদের বৈঠক হয় দুই কোরিয়ার সীমান্তে পানমুনজমের অসামরিকায়িত অঞ্চলে। পারমাণবিক অস্ত্র কর্মসূচি পরিত্যাগের বিষয়ে স্থগিত আলোচনা পুনরায় শুরু করার সিদ্ধান্ত নেয়ার পর বেশ কয়েক দফায় ক্ষেপণাস্ত্র ও রকেট পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে