logo
রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০  

রানির সমমর্যাদা চাওয়ার জের

রাজকীয় সঙ্গীর মর্যাদা কেড়ে নিলেন থাই রাজা

রাজকীয় সঙ্গীর মর্যাদা কেড়ে নিলেন থাই রাজা
সিনিনাত ওংভাজিরাপাকদি
যাযাদি ডেস্ক

রানি সুথিদা ভাজিরালংকর্ণ আয়ুধ্যার সমমর্যাদা দাবি করায় রাজকীয় উপাধি এবং সামরিক পদমর্যাদা পাওয়া সিনিনাত ওংভাজিরাপাকদি নামের এক নারী দেহরক্ষীর সব পদবি কেড়ে নিয়েছেন থাইল্যান্ডের রাজা মহা ভাজিরালংকর্ণ। স্থানীয় সময় সোমবার গভীর রাতে রাজ কর্তৃপক্ষ এ কথার সত্যতা নিশ্চিত করেছে। সংবাদসূত্র : রয়টার্স

এর আগে প্রায় ১০০ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো সিনিনাত ওংভাজিরাপাকদিকে রাজকীয় অভিজাত দেহরক্ষী (রয়্যাল নোবেল কনসর্ট) হিসেবে নিয়োগ দেন থাই রাজা। সেই ঘোষণার কয়েক মাসের মধ্যে রানির সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জেরে সিনিনাতের পদবি কেড়ে নেয়া হলো।

সিনিনাত একজন সামরিক কর্মকর্তা ও পেশাদার পাইলট। তিনি নার্স ও দেহরক্ষীর কাজও করতেন। অন্যদিকে, ৪১ বছর বয়সী রানি সুথিদা রাজার সাবেক ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট এবং তার দেহরক্ষী ইউনিটের প্রধান ছিলেন। রাজা ভাজিরালংকর্ণের দীর্ঘদিনের সহযোগী তিনি এবং বহু বছর ধরে রাজার সঙ্গে জনসম্মুখেও সুথিদাকে দেখা গেছে।

৭০ বছর সিংহাসনে থাকার পর ২০১৬ সালের অক্টোবরে মহা ভাজিরালংকর্ণের বাবা রাজা ভুমিবল অতুল্যতেজ মারা যান। তার মৃতু্যর ৫০ দিন পর নতুন রাজা হিসেবে ওই সময়ের যুবরাজ মহা ভাজিরালংকর্ণের নাম ঘোষণা করা হয়। চলতি বছরের মে মাসে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে সিংহাসনে আরোহণ করেন। চকরি রাজবংশের দশম এই রাজা 'রামা এক্স' নামেও পরিচিত।

রাজদরবার থেকে দুই পৃষ্ঠার বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ৩৪ বছর বয়সী সিনিনাত সভাসদদের জন্য নির্ধারিত আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন। তার বিরুদ্ধে বিশ্বাসঘাতকতার অভিযোগও আনা হয়েছে। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, রাজকীয় অভিজাত দেহরক্ষী সিনিনাত অকৃতজ্ঞ। তাকে দেয়া উপাধির মান তিনি রাখতে পারেননি। শুধু এই পদবিতে সন্তুষ্ট না থেকে রানির সমান মর্যাদা পেতে সব রকম চেষ্টা করেছেন তিনি।

রাজার বর্ষব্যাপী চলমান রাজ্যাভিষেকের অন্যতম অনুষ্ঠান রাজকীয় বজরা শোভাযাত্রায় অংশ নেয়ার কথা ছিল রাজপরিবারের। তবে বৈরী আবহাওয়ার কথা উলেস্নখ করে কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানটি আগামী বছর পর্যন্ত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে