logo
  • Mon, 16 Jul, 2018

  অনলাইন ডেস্ক    ১২ জুলাই ২০১৮, ০০:০০  

ট্রলার দুঘর্টনায় মৃত্যু

যথাযথ পদক্ষেপ নিন

একের পর এক নৌ-দুঘর্টনা ঘটছেই। স্বাভাবিকভাবেই বিষয়টি উদ্বেগজনক বাস্তবতাকে স্পষ্ট করে। এ ছাড়া লক্ষণীয় যে, নৌ-দুঘর্টনা যেমন থামছে না, তেমনি এর মাধ্যমে ঘটছে প্রাণহানিও। বলার অপেক্ষা রাখে না, এভাবে দুঘর্টনা ঘটতে থাকলে তা নৌপথের সাবির্ক নিরাপত্তাকেই হুমকির মুখে ফেলবে এমন আশঙ্কা থেকেই যায়; যা কোনোভাবেই কাম্য হতে পারে না। মনে রাখা দরকার, বাংলাদেশ নদী-নালার দেশ। নৌপথে যাত্রী এবং পণ্য পরিবহন অপেক্ষাকৃত সাশ্রয়ী ও নিরাপদও। কিন্তু যখন দেশে নৌ-চলাচলের দুঘর্টনায় প্রাণহানির ঘটনাও ঘটছে, তখন এমন পরিস্থিতিতে পরিকল্পিত ও যথাযথ পদক্ষেপ নিশ্চিত করা জরুরি। পাশাপাশি আইন মেনে চলা কিংবা তদারকির যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করারও কোনো বিকল্প নেই বলেই আমরা মনে করি।

সম্প্রতি জানা গেল, নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদে ট্রলারের ছাদ থেকে পড়ে নিখেঁাজ চারজনের লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সাভির্স। নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সাভিের্সর উপ-সহকারী পরিচালক জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সকালে শীতলক্ষ্যা নদের টানবাজার লবণঘাট ও এর আশপাশের এলাকা থেকে লাশগুলো উদ্ধার করা হয়। তথ্যমতে, রোববার রাতে নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদের সেন্ট্রাল খেয়াঘাট এলাকা থেকে একটি ট্রলার ছাদে করে প্রায় ৬০ থেকে ৭০ জন যাত্রী নিয়ে মদনগঞ্জ ঘাটে রওনা দেয়। অতিরিক্ত যাত্রীর চাপে ট্রলারটি ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কাত হয়ে যায়। আর এ সময় ট্রলারের ছাদ ভেঙ্গে কয়েকজন যাত্রী নদীতে পড়ে যায় বলে জানা যায়। নারায়ণগঞ্জ সদর নৌ-থানা পুলিশের ওসি বলেছেন, খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ ও ফায়ার সাভির্সকমীর্রা ঘটনাস্থলে এসে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেন; কিন্তু রাতে কেউ নিখেঁাজ হয়েছে এমন দাবি না করায় উদ্ধার অভিযান স্থগিত করা হয়। এরপর সোমবার সকালে যাত্রী নিখেঁাজ রয়েছে বলে স্বজনরা দাবি করলে পুলিশ ও ফায়ার সাভির্স আবার উদ্ধার অভিযান শুরু করে।

আমরা বলতে চাই, শুধু এই ঘটনাই নয়, এর আগেও অতিরিক্ত যাত্রী বহনের কারণে দুঘর্টনা ঘটেছে। মনে রাখা দরকার, সবার সচেতনতা যেমন দুঘর্টনা রোধে আবশ্যক, তেমনি খাম-খেয়ালিপনা কিংবা আইন না মানা, অতিরিক্ত যাত্রীবহনসহ নানা কারণে দুঘর্টনা ঘটে, ফলে দোষীদের কঠোর শাস্তির আওতায় আনা অপরিহাযর্র্। অতিরিক্ত যাত্রীর কারণে ট্রলার কাত হয়ে যাত্রী নিখেঁাজ হওয়া এবং পরবতীের্ত লাশ উদ্ধারের এই ঘটনাটি যখন ঘটল, তখন এর পরিপ্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্টদের মনে রাখা দরকার, এই বাস্তবতা অত্যন্ত ভয়ানক। কেননা মাত্রাতিরিক্ত যাত্রী বহনের কারণে এমন পরিণতি অত্যন্ত বেদনা ও পরিতাপের। উল্লেখ্য, মাত্রাতিরিক্ত যাত্রী বহন করায় এর আগেও নানারকম দুঘর্টনা ঘটেছে, তারপরও যখন একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হচ্ছে, তখন এর দায় সংশ্লিষ্টরা এড়াতে পারে না। অতিরিক্ত যাত্রী বহন করাসহ যে কোনো ধরনের অনিয়ম রোধ করতে হবে এবং প্রয়োজনে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। তা না হলে ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধ করা কঠিন হয়ে পড়বে, যা প্রত্যাশিত নয়।

সবোর্পরি আমরা বলতে চাই, সারাদেশে নৌ-দুঘর্টনা রোধে যথাযথ পদক্ষেপ নিশ্চিত করুন। এ ছাড়া অতিরিক্ত যাত্রী বহন, আইন না মানাসহ সব রকম অনিয়ম রোধ করা এবং সচেতনতা বৃদ্ধিতেও উদ্যোগ নিন। মনে রাখা দরকার, বিভিন্ন সময়ের দুঘর্টনার পরিপ্রেক্ষিতে চালকদের দক্ষতা যেমন প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে, তেমনি আইন না মানার প্রবণতা, অতিরিক্ত যাত্রী বহনসহ নানা ধরনের অনিয়মের বিষয় আলোচিত হয়েছে। আমরা চাই, দুঘর্টনা এড়াতে যথাযথ সতকর্তামূলক পদক্ষেপ নিশ্চিত করার পাশাপাশি ত্রæটিপূণর্ নৌযান, অদক্ষ চালক, অতিরিক্ত যাত্রী বহনসহ প্রয়োজনীয় বিষয়গুলো আমলে নিয়ে সংশ্লিষ্টরা কাযর্কর উদ্যোগ গ্রহণ ও তার সুষ্ঠু বাস্তবায়নে সবার্ত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

উনিশ বিশ
নন্দিনী

উপরে
Error!: SQLSTATE[42000]: Syntax error or access violation: 1064 You have an error in your SQL syntax; check the manual that corresponds to your MySQL server version for the right syntax to use near 'WHERE news_id=3047' at line 3