logo
রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২২ জুলাই ২০১৯, ০০:০০  

ইতিহাসের পাতা

ক্লারা জেটকিন

ক্লারা জেটকিন
ক্লারা জেটকিন আন্তর্জাতিক নারী দিবসের প্রবক্তা জন্ম: ৫ জুলাই, ১৮৫৭খ্রি: মৃতু্য: ২০ জুন, ১৯৩৩খ্রি:
শিক্ষা জগৎ ডেস্ক য়

ক্লারা জেটকিন 'নারী অধিকার' আন্দোলনের বিশিষ্ট নেত্রী। ১৯১১ সালে তিনি প্রথম আন্তর্জাতিক নারী দিবস সংগঠিত করেন।

ক্লারা জেটকিনের জন্ম ১৮৫৭ সালের ৫ জুলাই জার্মানির স্যাক্সোনি (ঝধীড়হু) প্রদেশের ওয়াইডোরায়ু (ডরবফবৎধঁ) নামক গ্রামে। তার পিতা গটফ্রাইড আইজেনার ছিলেন একজন স্কুল শিক্ষক এবং মা জোসেফিন ভিটালে আইজেনার। সে সময়ে জার্মানিতে মেয়েদের লেখাপড়ার সুযোগ খুব বেশি ছিল না। তারপরেও তিনি লেইপজিগের একটি কলেজে শিক্ষাগ্রহণের সুযোগ পেয়েছিলেন। আর এ বিষয়ে তিনি তার মা থেকে সহায়তা পেয়েছিলেন। এক সাংস্কৃতিক পরিমন্ডলের মধ্যেই ক্লারা জেটকিন বেড়ে ওঠেন। একদিকে পিতার সংগীতচর্চার পাশাপাশি মায়ের পুঁথিচর্চা তার মনোগজতে এক উন্নত ক্ষেত্র তৈরি করে। স্কুল-কলেজের পড়ার ফাঁকে ফাঁকে তিনি পাঠ করেছেন যেসব বই তার মধ্যে রয়েছে- বায়রন, ডিকেন্স, শেক্সপিয়র, শিলার, গ্যাটে, হোমারসহ আরও অনেকে।

তিনি জার্মানিতে সমাজ-গণতান্ত্রিক নারী আন্দোলন বিকশিত করেন। ১৮৯১ সাল থেকে ১৯১৭ সাল পর্যন্ত জার্মানির সমাজ গণতান্ত্রিক দলের পত্রিকা সমতা বা উরব এষবরপযযবরঃ সম্পাদনা করেন। ক্লারার সম্পাদনায় পত্রিকাটি প্যারিসের নারী জাগরণের ক্ষেত্রে অসামান্য অবদান রাখে। ১৯০৭ সালে দলের নারীবিষয়ক বিভাগ 'ডড়সবহ'ং ঙভভরপব' প্রতিষ্ঠিত হলে, তিনি এই বিভাগের নেতৃত্ব গ্রহণ করেন। ১৯১০ সালের আগস্ট মাসে কোপেনহেগেনে কমিউনিস্টদের 'দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক সম্মেলন' অনুষ্ঠিত হয়। এতে ১৭টি দেশের ১০০ জন নারী প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন। এই সম্মেলনে ক্লারা জেটকিন সম্পাদক হিসেবে পুনর্নির্বাচিত হন। এই সম্মেলনে নিউ ইয়র্কের নারীশ্রমিকদের আন্দোলনকে স্বীকৃতি দিয়ে ক্লারা জেটকিন প্রতিবছর 'আন্তর্জাতিক নারী দিবস' পালনের প্রস্তাব উত্থাপন করেন। এ সম্মেলনে স্থির হয় মার্চ মাসের যে কোনো দিন এই দিবসটি পালন করা হবে। পরের বছর অস্ট্রিয়া, ডেনমার্ক, সুইজারল্যান্ড এবং জার্মানিতে প্রথমবারের মতো নারী দিবস পালিত হয়। ১৯১৩ ও ১৯১৪ সালে আন্তর্জাতিক নারী দিবস প্রথম বিশ্বযুদ্ধের প্রতিবাদ হিসেবে পালিত হয়। উলেস্নখ্য, ১৯১০ থেকে ১৯১৩ পর্যন্ত মার্চের যে কোনো দিন বিভিন্ন দেশে নারী দিবস পালন করা হতো। কিন্তু, ১৯১৪ সাল থেকে সুনির্দিষ্টভাবে ৮ মার্চ নারী দিবস পালিত হচ্ছে।

ক্লারা জেটকিন ১৯৩৩ খ্রিস্টাব্দের ২০ জুন ৭৫ বছর বয়সে মস্কোতে মৃতু্যবরণ করেন। মস্কোর ক্রেমলিনে তার মৃতদেহ সমাধিস্থ করা হয়।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে