logo
সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০, ২৯ আষাঢ় ১৪২৬

  বিনোদন ডেস্ক   ০৫ জুন ২০২০, ০০:০০  

পরিবার নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

পরিবার নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া
বলিউড তারকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়া আপাতত মুম্বাইতে নেই। বর্তমানে স্বামী নিক জোনাসের সঙ্গে আমেরিকার লস অ্যাঞ্জেলেসে রয়েছেন তিনি। কিন্তু সেখানে থাকলেও তার মন পড়ে আছে মুম্বাইয়ে নিজের পরিবারের কাছে। একদিকে করোনার দুশ্চিন্তা, অন্যদিকে চাচাতো বোন অভিনেত্রী মীরা চোপড়াকে নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন এ তারকা। এরই মধ্যে মীরাকে ধর্ষণ ও হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি ক্রমশ জটিল আকার ধারণ করেছে। সব মিলিয়ে পরিবার নিয়ে ভীষণ আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটছে প্রিয়াঙ্কার। ঘন ঘন খবর নিচ্ছেন টিভি ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। বাড়িতেও নিয়মিত যোগাযোগ করছেন তিনি।

জানা গেছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় মীরা চোপড়া একটি পোস্ট দিয়েছেন, সেখানে তিনি লিখেছেন, জুনিয়র এনটিআরের অভিনয় তার ভালো লাগে না। বরং তার চেয়ে মহেশ বাবু অনেক পরিণত অভিনেতা। আর এ কারণেই জুনিয়র এনটিআরের অনুরাগীরা তাকে অশালীন ভাষায় গালাগালি দিয়েছেন বলে অভিযোগ। এমনকি ধর্ষণের হুমকি পেয়েছেন বলেও অভিযোগ করেছেন মীরা। এই নিয়ে তিনি একাধিক পোস্ট করেছেন টুইটারে।

টুইটে মীরা সরাসরি জুনিয়র এনটিআরকে লিখেছেন, 'আমি বলেছিলাম মহেশ বাবুকে আপনার থেকে বেশি ভালো লাগে। তার জন্য আপনার অনুরাগীরা আমাকে অশালীন ভাষায় আক্রমণ করেছে। এই ধরনের ফ্যান ফলোয়িং থাকার পরও আপনার নিজেকে সফল মনে হয়? আশা করি আপনি আমার টুইট এড়িয়ে যাবেন না।' মীরা জানিয়েছেন, কারও অনুরাগী হওয়া অপরাধ নয়। একইভাবে তিনি মহেশ বাবুর অভিনয় বেশি পছন্দ করেন। এর মধ্যে তার মনে হয় না অপরাধের কিছু রয়েছে। কিন্তু জুনিয়র এনটিআরের ফ্যানরা মনে করেন, মীরা অপরাধী। তাই তাকে ধর্ষণের হুমকি দিয়েছেন। যারা জুনিয়র এনটিআরের ভক্ত নন, সেই সব মেয়েদের টুইটের মাধ্যমেই সাবধান করেছেন মীরা। বলেছেন, 'তুমি কিন্তু ধর্ষিতা হতে পার, খুন হতে পার, এমনকি গণধর্ষণের শিকারও হতে পার। তোমাদের বাবা-মায়েরা ওর (জুনিয়র এনটিআর) ফ্যানদের হাতে খুন হয়ে যেতে পারেন। ওরা (ফ্যানেরা) ওদের আদর্শের নাম খারাপ করছে।'

নিজের বক্তব্যের সমর্থনে মীরা পাশে পেয়েছেন গায়িকা চিন্ময়ীকে। মীরার টুইটের উত্তরে চিন্ময়ী লিখেছেন, এই কারণেই তিনি তার কোন ছবি ভালো লাগে, তা বলা থামিয়ে দিয়েছেন। কারণ তার মতে, অনেকেই আছে যারা একে হেনস্তার হাতিয়ার বানিয়ে নেয়। যদি মীরাকে প্রতিনিয়ত এভাবে ধর্ষণের হুমকি পেতে হয়, তাহলে তিনি যেন মহিলা কমিশনে রিপোর্ট করেন, জানিয়েছেন চিন্ময়ী। পাশাপাশি সাইবার ক্রাইমের সরকারি ওয়েবসাইটের লিঙ্কও শেয়ার করেছেন গায়িকা। মীরাও হাত গুটিয়ে বসে থাকেননি। তিনি জাতীয় মহিলা কমিশন ও হায়দরাবাদ পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন। চিন্ময়ী নিজেও হায়দরাবাদ পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগে অভিযোগ দায়ের করেছেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে