logo
বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১১ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

মিউজিক ভিডিওর ঈদ!

মিউজিক ভিডিওর ঈদ!
মিউজিক ভিডিও 'দেবদাস'র একটি দৃশ্য
বিনোদন রিপোর্ট

আজ বাদে কাল ঈদ। এ উপলক্ষে অসংখ্য নাটক-টেলিফিল্মের পাশাপাশি জমে উঠেছে গানের বাজার। প্রকাশ পাচ্ছে রেকর্ডসংখ্যক কয়েকশ' গান। তবে সংখ্যার বিচারে কয়েকশ' গান থাকলেও এসব গান নিয়ে খুব একটা আগ্রহী নন বলে জানিয়েছেন অনেক গানপ্রেমী দর্শক-শ্রোতা। প্রিয় শিল্পীর উলেস্নখযোগ্য কোনো গান না থাকায় ঈদের গান নিয়ে মাথাব্যথাও নেই বলে জানান তারা। শুধু তাই নয়, অনেক সিনিয়র কণ্ঠশিল্পী ও সংগীত সংশ্লিষ্টের অভিযোগ, সস্তা কথার গান আর মানহীন মিউজিক ভিডিওতে ছেয়ে গেছে ঈদের বাজার। দুয়েকটি ছাড়া মনে দাগ টানার মতো কোনো গান পাওয়া যাবে না এবারের ঈদে। তবে নিজেদের গান নিয়ে বেশ আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন গানের শিল্পী, কলাকুশলী এবং অডিও প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত কয়েক বছরের মতো এ ঈদেও সবচেয়ে বেশি গান প্রকাশ হবে ইউটিউবে। এছাড়া বেশ কয়েকটি ডিজিটাল স্ট্রিমিংমেও নতুন গান প্রকাশ হবে। গানের মিউজিক ভিডিও যেন একমাত্র বাজার হয়ে উঠেছে চলমান সময়ের শিল্পী ও কলাকুশলীদের কাছে। শত শত গানের মাঝে অল্প কিছু গানের মিউজিক ভিডিও মানের হলেও বাকিগুলো মানহীন। মানহীন, কুরুচিপূর্ণ সস্তা কথাকে উপজীব্য করেই তৈরি হয়েছে গান, নির্মিত হয়েছে মিউজিক ভিডিও। শিল্পীর দরদহীন কণ্ঠে মিউজিক ভিডিওর ছড়াছড়ি দেখা যাচ্ছে এবারের ঈদের গানে। মিউজিক ভিডিওতে কিছুটা চমক দেখানোর চেষ্টা করা হলেও গানের কথা ও সুর অতি নিম্নমানের। গানের সঙ্গে দৃশ্যায়নের মিল নেই। গানের গল্প এক, ভিডিওতে দেখানো হয়েছে আরেক। কথার সঙ্গে সুরেরও রয়েছে অমিল। এরকম অসংখ্য অভিযোগ উঠেছে অডিও অঙ্গনে।

অনেক শিল্পীরই নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেল থাকায় অনেকেই ব্যক্তিগত উদ্যোগে নতুন গান প্রকাশ করবেন। নিজের টাকা খরচ করে মিউজিক ভিডিও নির্মাণেও আগ্রহী হয়ে উঠেছেন এসব শিল্পী। তবে গত ঈদের চেয়ে এবার শিল্পীদের ব্যক্তিগত উদ্যোগের ব্যাপ্তিটাও বাড়বে বলে মনে করছেন অডিও বাজার সংশ্লিষ্টরা।

এ বিষয়ে কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, 'গানের বাজারের অস্থিরতা কাটাতে গানের দিকেই মনোযোগ দিতে হবে। এখন সস্তা কথার গান যেমন তৈরি হচ্ছে তেমনই মিউজিক ভিডিও হচ্ছে। গানের চেয়ে মিউজিক ভিডিওকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। এসব আবার ইউটিউবে হিট হচ্ছে এবং তাতে ওই গানের সংশ্লিষ্টরা পরিতৃপ্ত হচ্ছেন।

এ নিয়ে ধ্রম্নব মিউজিক স্টেশনের কর্ণধার ধ্রম্নব গুহ বলেন, 'সস্তা কিছু গানের কারণে ভালো গানগুলো থেকেও মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন শ্রোতারা। সবারই উচিত মান ঠিক রেখে গান প্রচার করা।' এ বিষয়ে বরেণ্য সংগীতশিল্পী সৈয়দ আবদুল হাদী বলেন, 'এখন মন থেকে ভালোবেসে গান করেন ক'জন তা নিয়ে সন্দেহ আছে আমার। সেটার সংখ্যা হবে হাতে গোনা।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে