logo
শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  বিনোদন ডেস্ক   ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

ভয়ংকর অভিজ্ঞতার মুখোমুখি রানী মুখার্জি!

ভয়ংকর অভিজ্ঞতার মুখোমুখি রানী মুখার্জি!
রানী মুখার্জি
চলতি মাসের ১৩ তারিখে মুক্তি পাবে বলিউড অভিনেত্রী রানী মুখার্জির আলোচিত ছবি 'মারদানি টু'। তার আগে এ ছবিটি নিয়ে হামলা-মামলার ঘটনাও ঘটেছে। এর মধ্যেই ভারতীয় একটি টেলিভিশন চ্যানেলে হাজির হয়ে রানী শোনালেন 'মারদানি টু' সিনেমার শুটিং অভিজ্ঞতা। শুরুতেই বলে রাখা ভালো, ভালো করে সাঁতার পারেন না রানী। অথচ এ ছবির জন্য পানির গভীরে নেমেই শুটিং করতে হয়েছে তাকে।

রানি বলেন, 'পরিচালক গোপী পুত্রন যখন আমায় প্রথমবার চিত্রনাট্য পড়ে শোনালেন, তখন আমি বেশ ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। আসলে আমি সাঁতার জানি না। ছোট থেকে বহুবার চেষ্টা করেও শিখতে পারিনি। প্রথমে আমি পরিচালককে জিজ্ঞাসা করেছিলাম, এই দৃশ্যটা বাদ দিয়ে কোনওভাবে শু্যটিং করা সম্ভব কিনা? পরে গোপী জানালেন এই দৃশ্যটা বাদ দিয়ে ছবিটা ঠিক ভালো লাগবে না। তাই এই দৃশ্যটা রাখতে হবে।'

রানী আরও বলেন, 'গত জুন মাসেই ছবির শু্যটিং শেষ হয়ে যায়। আমি পরিচালকের কাছে সাঁতার শেখার জন্য কিছুটা সময় চেয়ে নেই। অবশেষে সেপ্টেম্বর, অক্টোবর মাস আসতেই আমি ভয় পেতে শুরু করি। এবার তো ওই দৃশ্যের শু্যটিং করতেই হবে। শেষপর্যন্ত কোচ আনিস আদেনওয়ালা অনেকটা সাহায্য করেন। উনি আমাকে ভীষণ সুন্দরভাবে প্রশিক্ষণ দিয়েছিলেন। এই ছবিটা আমার জীবনের এই ওয়াটার ফোবিয়ার সঙ্গে লড়াই করতে শিখিয়ে দিয়েছে এবং ৩০ ফুট পানির নিচে শুটিং করেছি।'

যদিও শুটিং মুম্বাইয়ের একটি সুইমিংপুলে ধারণ করা হয়েছে, তবে ছবিতে এ দৃশ্যটা চম্বল নদীতে অভিযান হিসেবে দেখানো হবে। এছাড়াও শুটিং করতে হয়েছিল রাতের আঁধারে। তবে এ যাত্রায় উৎরে গিয়ে রানী বেশ ফুরফুরে। তিনি বলেন, 'এ পুলে সাধারণত সেনারা প্রশিক্ষণ নেন। তবে আর যাই হোক, জীবনের সেরা অভিজ্ঞতাটা অর্জন হয়ে গেল।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে