logo
বৃহস্পতিবার, ০২ জুলাই ২০২০, ১৮ আষাঢ় ১৪২৬

  যাযাদি রিপোর্ট   ০১ জুলাই ২০২০, ০০:০০  

সুস্থ হলে ছাড়পত্র নিতে পরীক্ষা লাগবে না

করোনাভাইরাস সংক্রমিত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার পর ছাড়পত্র নিতে এখন থেকে আর নমুনা পরীক্ষার প্রয়োজন হবে না।

কোভিড-১৯ চিকিৎসা শেষে সংক্রমিতদের হাসপাতাল থেকে ছাড়ার নিয়মে পরিবর্তন এনেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এখন থেকে পরপর তিন দিন উপসর্গবিহীন থাকলে হাসপাতাল থেকে রোগী ছাড়পত্র পাবেন। পরপর ১০ দিন উপসর্গবিহীন থাকলেই তাকে করোনাভাইরাসমুক্ত ধরে নেওয়া হবে।

২৮ জুন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানো চিঠিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এ নির্দেশনা দিয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. সানিয়া তহমিনা স্বাক্ষরিত নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ন্যাশনাল গাইডলাইনস অন ক্লিনিক্যাল ম্যানেজমেন্ট অব করোনাভাইরাস ডিজিজ ২০১৯ (কোভিড-১৯) ভার্সন ৭.০ অনুযায়ী রোগীর কাজে যোগদান বা ডিসচার্জ প্রদানে ফলোআপ টেস্টিংয়ের আর প্রয়োজন নেই।

'এরপরও দেশের

বিভিন্ন কোভিড-১৯ পিসিআর ল্যাবরেটরিতে আসা স্যাম্পল এখনো ফলোআপ রোগী থেকে সংগৃহীত হয় বলে বিভিন্ন মাধ্যমে গোচরীভূত হয়। এ অবস্থায় সার্স কভ-২ নির্ণয়ের পরীক্ষার নমুনা গাইডলাইন অনুযায়ী (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) সংগ্রহ ও টেস্টের জন্য প্রেরণের নির্দেশনা দেওয়া হলো।'

বিভিন্ন স্থানে কিটের অভাবে নমুনা পরীক্ষা কমে যাওয়ার মধ্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এই নির্দেশনা দিল। এর মাধ্যমে তৃণমূল পর্যায়কে বলা হলো, তারা যেন সেরে ওঠা রোগীর নমুনা আর পরীক্ষাগারে না পাঠান।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ারও আগে এ বছরের ২১ জানুয়ারি থেকে সন্দেহজনক কোভিড-১৯ রোগীদের নমুনা পরীক্ষা শুরু করে আইইডিসিআর। শুরুতে একটি গবেষণাগারে নমুনা পরীক্ষা শুরু হলেও রোগের ব্যাপকতা বাড়তে থাকায় গবেষণাগারের সংখ্যাও বাড়তে থাকে। বর্তমানে সরকারি বেসরকারি ৬৮টি গবেষণাগারে নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে।

২৯ জুন পর্যন্ত সারাদেশে মোট ৭ লাখ ৪৮ হাজার ৩৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। দেশে শনাক্ত কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ৪১ হাজার ৮০১ জন। নতুন এ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৭৮৩ জন।

শুরু থেকেই সরকার কোভিড-১৯ নমুনা বিনামূল্যে পরীক্ষা করছিল। ২৯ এপ্রিল প্রথমবারের মতো চারটি বেসরকারি হাসপাতালকে কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষার অনুমতি দেয়। পরে এ সংখ্যা আরও বাড়ে। এসব হাসপাতালের জন্য ৩৫০০ টাকা ফি নির্ধারণ করে দেয় সরকার।

২৯ জুন সরকারি ব্যবস্থায় কোভিড-১৯ এর নমুনা পরীক্ষার জন্য ফি নির্ধারণ করে পরিপত্র জারি করে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ। তাতে বলা হয়েছে, বুথ থেকে নমুনা সংগ্রহ এবং হাসপাতালে ভর্তি রোগীর নমুনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে ২০০ টাকা করে দিতে হবে। আর বাসা থেকে নমুনা সংগ্রহ করলে ফি হবে ৫০০ টাকা।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ বলছে, কোভিড-১৯ শনাক্তে আরটিপিসিআর টেস্ট বর্তমানে বিনামূল্যে করছে সরকার। এ কারণে 'কোনো উপসর্গ ছাড়াই অধিকাংশ মানুষ' এ পরীক্ষা করানোর সুযোগ নিচ্ছে।

'এ অবস্থায় কোভিড-১৯ এর নিয়ন্ত্রণ ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা নিমিত্তে অপ্রয়োজনীয় কোভিড-১৯ টেস্ট পরিহার করার লক্ষ্যে পরীক্ষার জন্য এ ফি নির্ধারণ করা হয়েছে।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে