logo
সোমবার ২২ জুলাই, ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬

  যাযাদি রিপোর্ট   ১৬ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০  

নুসরাতের বাবা-মাকে প্রধানমন্ত্রীর সান্ত্বনা বিচারের আশ্বাস

নুসরাতের বাবা-মাকে প্রধানমন্ত্রীর সান্ত্বনা বিচারের আশ্বাস
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার সকালে তার কার্যালয়ে ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির বাবা, মা ও ভাইদের সান্ত্বনা দেন -ফোকাস বাংলা

যৌন নিপীড়নের প্রতিবাদ করায় আগুনে পুড়িয়ে মারা ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির বাবা, মা ও দুই ভাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেছেন। তাদের সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি এই ঘটনায় জড়িতদের বিচার নিশ্চিতের প্রত্যয় জানিয়েছেন শেখ হাসিনা। নুসরাতের বাবা এ কে এম মুসা, মা শিরীনা আক্তার ও তার দুই ভাই সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। প্রধানমন্ত্রী নুসরাতের পরিবারের প্রতি সান্ত্বনা ও গভীর সমবেদনা জানান। তিনি বলেন, দুষ্কৃতকারীরা কেউই আইনের হাত থেকে কোনোভাবেই রেহাই পাবে না। অন্যায়ের বিরুদ্ধে সাহসিকতার সঙ্গে প্রতিবাদ করে নুসরাত এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। পরে তিনি নুসরাতের বড় ভাই নোমানের হাতে এনবিআর গেস্নাবাল ব্যাংকের নিয়োগপত্র তুলে দেন। এ সময় তিনি পড়াশুনা শেষে নুসরাতের ছোট ভাইকেও চাকরি দেয়ার আশ্বাস দেন। সোনাগাজীর ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এনেছিলেন নুসরাত। গত ২৬ মার্চ নুসরাতের মা শিরীনা আক্তার মামলা করার পরদিন সিরাজকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। ওই মামলা প্রত্যাহার না করায় ৬ এপ্রিল আলিম পরীক্ষার হল থেকে ছাদে ডেকে নিয়ে নুসরাতের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। আগুনে শরীরের ৮৫ শতাংশ পুড়ে যায় তার। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সিঙ্গাপুরে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে তার শারীরিক অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তা সম্ভব হচ্ছিল না। ঢাকা মেডিকেলেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ এপ্রিল রাতে মারা যান নুসরাত। তার মৃতু্যর পর ঘাতকদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে দেশজুড়ে বিক্ষোভ চলছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এই হত্যাকান্ডে জড়িতদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছেন। নুসরাতের পরিবারকে প্রধানমন্ত্রী সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন বলে প্রেস উইং থেকে জানানো হয়েছে। সাক্ষাতের সময় এনআরবি গেস্নাবাল ব্যাংকের চেয়ারম্যান নিজাম চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে: প্রধানমন্ত্রী সবাইকে ১৪২৬ বঙ্গাব্দের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, নতুন বছর বাঙালি জাতির জীবনে বয়ে আনুক নতুন বারতা। রোববার নববর্ষের সকালে গণভবনে আওয়ামী লীগ, সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে এই কামনা করেন দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা। টানা তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করায় দেশের সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, 'আমাদের যে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা শুরু হয়েছে, সেই অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে। বিশ্বদরবারে বাঙালি জাতি সম্মানের সাথে মাথা উঁচু করে চলবে। বিশ্বে বাংলাদেশ উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে উঠবে।' নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষ্যে সকাল ৯টার আগেই আওয়ামী লীগ, এর সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতাকর্মীরা গণভবনে আসতে শুরু করেন। প্রধানমন্ত্রী সকাল সাড়ে দশটায় গণভবনের ব্যাঙ্কোয়েট হলে পৌঁছালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের 'এসো এসো হে বৈশাখ', 'আনন্দলোকে মঙ্গলালোকে', 'আলো আমার আলো'সহ বেশ কয়েকটি গান পরিবেশন করা হয় সমবেত কণ্ঠে। আনন্দলোকে মঙ্গলালোকে গানের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীকেও কণ্ঠ মেলাতে দেখা যায়। এরপর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা দলের সভাপতি শেখ হাসিনাকে ফুল দিয়ে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানান। পরে দলের বিভিন্ন ইউনিট এবং বিভিন্ন সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতারাও প্রধানমন্ত্রীকে ফুলের তোড়া উপহার দেন। সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা বলেন, 'আমরা আমাদের সকল কর্মের মধ্য দিয়ে দেশ ও জাতির কল্যাণ করব। বাংলাদেশ হবে ক্ষুধামুক্ত দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলাদেশ, যে বাংলাদেশের স্বপ্ন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব দেখেছিলেন।' 'আর সেই বাংলাদেশ গড়বার জন্য আমি সমগ্র জাতিকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানাচ্ছি।' প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'জাতির পিতার নেতৃত্বে আমরা মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জন করেছি। আজকে আমাদের লক্ষ্য জাতির পিতার আদর্শ বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে সারা বিশ্বে বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তোলা।' নতুন বছরের প্রথম দিন গণভবনে এই অনুষ্ঠানের অতিথিদের খই, মুড়কি, মিষ্টান্নসহ ঐতিহ্যবাহী বিভিন্ন খাবারে আপ্যায়িত করা হয়। অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকর্তাদের সাক্ষাৎ বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) সভাপতি সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ ও মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এই সাক্ষাৎ হয়। আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণ, বিদেশে দল পাঠানোসহ ক্রীড়াঙ্গনের সার্বিক বিষয় নিয়ে মতবিনিময় হয় সাক্ষাতে। আগামী জাতীয় বাজেটে ক্রীড়াঙ্গনের বিভিন্ন শাখায় যাতে যথেষ্ট বরাদ্দ থাকে সে বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করেন বিওএ নেতারা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে