logo
বুধবার ১৯ জুন, ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬

  মদন (নেত্রকোনা) সংবাদদাতা   ২৭ মে ২০১৯, ০০:০০  

১২০ বছরেও মিলেনি বয়স্ক ভাতার কার্ড

১২০ বছরেও মিলেনি বয়স্ক ভাতার কার্ড
খুদ বানু
মদন উপজেলার কাইটাইল ইউনিয়নের শিবাশ্রম গ্রামের স্বামী মৃত আবুল হাসেমের স্ত্রী বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী নিঃস্ব খুদ বানু। তার বয়স প্রায় ১২০ বছর। ৫০ বছর আগে স্বামী হারিয়েছেন। তার আপনজন বলতে কেউ নেই। অভাগা বৃদ্ধাকে কেউ দেখার নেই। বয়সের ভারে অনেক আগেই কর্মশক্তি হারালেও পেটের ক্ষুধা মেটাতে মানুষের ঘরে ঘরে হাত পেতে চলতে হয়। রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়লে তার দুর্গতির শেষ নেই। খোলা আকাশের নিচে পড়ে থাকলে এলাকাবাসী তার প্রতি সহানুভূতির হাত বাড়িয়ে মাথা গোঁজার জন্য তাকে একটি ছোট ছাপড়া ঘর তৈরি করে দেয়। সেখানেই তার বসবাস। এ পর্যন্ত তার কপালে বয়স্ক ভাতাসহ সরকারি কোনো সাহায্য জুটেনি। বৃদ্ধ খুদ বানুকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি কিছুই বলতে পারেন না। শুধু মাথা নাড়িয়ে ইশারা ইঙ্গিত করেন। যা কিছুই বোঝা যায়নি। পাশের ঘরের ৭২ বছর বয়সী বৃদ্ধা জমিলা আক্তার জানান, আমার বয়স যখন ৭ বছর তখন আমার মায়ের নিকট শুনেছি তার বয়স ৫৫। তাদের আর্থিক অবস্থা ভালো ছিল। কিন্তু কিছুদিন যেতে না যেতেই সব হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে ভিক্ষা করে জীবনযাপন ও খোলা আকাশের নিচে বসবাস করতে থাকেন। সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান সাফায়েত উলস্নাহ রয়েল বলেন, 'আমি শিবাশ্রম গ্রামের শতাধিক বয়সের নিঃস্ব খুদ বানুকে একটি বয়স্ক ভাতার কার্ড করে দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু প্রতিবেশীরা এই কার্ডের টাকা অন্য লোকজন নিয়ে যাবে বললে আমি তাকে কার্ড দেইনি।

তবে মাঝেমধ্যে তার জন্য আমার পক্ষ থেকে ব্যক্তিগতভাবে সাহায্য করে থাকি।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে