logo
শুক্রবার ২৩ আগস্ট, ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

  নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা   ০৭ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

শতাধিক পরিবারের ঝুঁকিপূর্ণ বসবাস

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার পাহাড়ি অঞ্চল খ্যাত দিনারপুর। যুগ যুগ ধরে এই এলাকায় পাহাড়ের পাদদেশে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করে আসছে কয়েকশ পরিবার। অতীতে পাহাড় ধসে প্রাণহানির ঘটনাও ঘটেছে।

এক পরিসংখ্যানে জানা যায়, বিগত ৭ বছরে দিনারপুর ও পার্শ্ববর্তী মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের পাহাড়ি এলাকায় মাটিচাপা পড়ে দুটি পরিবারের ১২ জনসহ অন্তত ৪০ জনের মৃতু্য হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরেই ওই এলাকায় পাহাড় কাটার মহোৎসব চলছে। প্রশাসন মাঝেমধ্যে অভিযান করলে তা বন্ধ হয়। আবার শুরু হয় পাহাড় কাটা। মুষলধারে বৃষ্টি হলেই পাহাড় ধসের ঘটনা শুরু হয়।

সিলেট বিভাগের মধ্যে নবীগঞ্জ ও শ্রীমঙ্গল উপজেলায় পাহাড় ধ্বসে প্রাণহানির ঘটনা সবচেয়ে বেশি। ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে নবীগঞ্জ উপজেলার দিনারপুরের শংকরসেনা গ্রামে পাহাড় কাটতে গিয়ে মাটিচাপা পড়ে ২ শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃতু্য হয়। তারপরও ছিন্নমূল মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়েই পাহাড়ের পাদদেশে বসবাস করছে। এদের পুনর্বাসনে সরকারি উদ্যোগ গ্রহণ অতীব জরুরি বলে মনে করেন সচেতন মহল।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হাসান বলেন, পাহাড় কাটার খবর পেয়ে একাধিকবার অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। বর্তমানে পাহাড় কাটা বন্ধ আছে, পরবর্তিতে যদি কেউ কাটে তাহলে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে