logo
শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

সিরাজগঞ্জে যমুনায় বিলীন শতাধিক বাড়ি

সিরাজগঞ্জে যমুনায় বিলীন শতাধিক বাড়ি
সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার যমুনা নদীর ভাঙনে বিলীন হয়ে যাওয়া একটি বাড়ি -যাযাদি
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

যমুনা নদীর পানি কমতে থাকায় সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের ঘাটাবাড়ি, বাঐখোলা, পাকুরতলা, আরকান্দি, ব্রাহ্মণগ্রাম, ভেকা ও হাটপাচিল গ্রামে ব্যাপক ভাঙন শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই এসব গ্রামের ২ শতাধিক ঘরবাড়িসহ ফসলি জমি, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও মসজিদ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এতে সর্বস্ব হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন শত শত মানুষ। তারা পরিবার-পরিজন নিয়ে চরম মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।

এদিকে ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের লোকজন ভাঙন রোধে ও তীর সংরক্ষণ বাঁধ নির্মাণের দাবিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে ভাঙন এলাকায় মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে।

এ বিষয়ে ভাঙনকবলিত ঘাটাবাড়ি গ্রামের এরশাদ আলী ও কহিনুর বেগমসহ অনেকেই সাংবাদিকদের জানান, বন্যার পানি কমতে থাকায় যমুনা নদীতে গত কয়েকদিন ধরে তীব্র ভাঙন শুরু হয়েছে। এ ভাঙনের তান্ডবে ৭টি গ্রামের শত শত ঘরবাড়ি, ফসলি জমি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ঘরবাড়ি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে বহু মানুষ। এ ছাড়া এ ভাঙনে বাঐখোলা গ্রামটি সম্পূর্ণ বিলীন হয়ে মানচিত্র থেকে হারিয়ে গেছে। ভাঙনে তারা সব হারিয়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে।

এ বিষয়ে জালালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ বলেন, কয়েকদিনের ভাঙনে মসজিদসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও অনেক বাড়ি-ঘর নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এ ভয়াবহ ভাঙন রোধে দ্রম্নত ব্যবস্থা না নিলে এ ইউনিয়নের ৭টি গ্রাম মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ইতিমধ্যেই জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী এ ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেছেন।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুল হুসেইন খান বলেন, ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করে সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে