logo
মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০  

মৌলভীবাজারে অসময়ে খাসিয়া পানে আগুন!

মো. আবদুল ওয়াদুদ, মৌলভীবাজার

পাহাড়ি এলাকা অধু্যষিত ও পানের ভান্ডারখ্যাত মৌলভীবাজারে খাসিয়া পানের দর আকাশচুম্বী বৃদ্ধি পেয়েছে। এই অসময় দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় সাধারণ ক্রেতারা হতাশ হয়েছেন। ক্রেতারা বলেছেন, পেঁয়াজের দরের মতো পানের বাজারেও সিন্ডিকেট কাজ করছে। পানচাষিরা জানিয়ছেন, প্রতিবছরের মাঘ, ফাল্গুন, চৈত্র ও বৈশাখ মাসে পানের দাম বেড়ে যায়।

শীতকালে বাংলাদেশে বৃষ্টিপাত না হওয়ায় গাছ থেকে পান কুঁড়ি দেয়া বন্ধ করে দেয়। এ কারণে কয়েক মাস খাসিয়া জাতের এসব পান তেমন একটা বাজারে দেখা যায় না। তখন ছুঁই ছুঁই করে দর বাড়ছে। পরবর্তীতে বৈশাখ মাস থেকে বৃষ্টিপাত শুরু হলে পান কুঁড়ি দিয়ে বাড়তে শুরু করে। একটি পান মোটা আকার ধারণ করে পূর্ণরুপ নিতে মাস-দেড়েক সময় লাগে। জ্যৈষ্ঠ মাসে পান তার স্বরূপ ধারণ করে মোটা হলে পানির দামে পাইকারি বাজারে বিক্রি করে খাসিয়ারা। চলতি বাংলা বছরের আশ্বিন-কার্তিক মাসে হঠাৎ করে দর বাড়ায় খাসিয়া সিন্ডিকেট, পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতাদের দায়ী করেছেন সংশ্লিষ্টরা। পানচাষিদের সঙ্গে আলাপকালে তারা জানান, এ বছর পান উৎপাদন কম হওয়ায় দাম বেড়েছে। জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার লাউয়াছড়া পান পুঞ্জিতে গত শনিবার সরেজমিন গিয়ে কথা হয় পানচাষি সোহাগের সঙ্গে। সে জানায়, এবার বৃষ্টিপাত না হওয়াটাই পানের দাম বাড়ার প্রধান কারণ। পান উৎপাদন বৃদ্ধি পেলে প্রতি কুড়ি ৭০০-৮০০ টাকায় বিক্রি হয়। লাউয়াছড়া পান পুঞ্জির মন্ত্রী ফিলা পাট্‌নি যায়যায়দিনকে জানান, জেলাজুড়ে অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর পান উৎপাদন কম হয়েছে।

এ জন্য হয়ত দাম বেড়েছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে