logo
সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

ডেঙ্গুজ্বরে ৪ নারীসহ ৭ জনের মৃতু্য

ডেঙ্গুজ্বরে ৪ নারীসহ ৭ জনের মৃতু্য
চাচার কোলে শিশু খাদিজা
দেশের ছয় জেলায় ডেঙ্গুজ্বরে ৪ নারীসহ ৭ জনের মৃতু্য হয়েছে। যশোর, খুলনা ও কুষ্টিয়ায় ৪ নারীর মৃতু্য হয়। এছাড়া রাজধানীর ঢাকায় এক শিশু, ফরিদপুরে এক ব্যক্তি ও বরিশালে এক স্কুলছাত্র ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মৃতু্যবরণ করেছেন। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ:

ঢাকা: ঢামেক হাসপাতালে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত আড়াই বছরের শিশু খাদিজা মারা গেছে। রাজধানীর মুগদা মেডিক্যাল কলেজ (মুমেক) হাসপাতাল থেকে বুধবার বিকেল পৌনে ৪টার দিকে ঢামেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনার পর সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত খাদিজা পরিবারের সঙ্গে রাজধানীর দনিয়া নাসির উদ্দিন রোড এলাকায় থাকতো। তার বাবার নাম ইসমাইল হোসেন। তিনিও ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মুগদা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

যশোর : যশোরে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত আরও দুই নারীর মৃতু্য হয়েছে। তারা হলেন- মণিরামপুর উপজেলার আব্দুল কাদেরের স্ত্রী জাহিদা বেগম (৩৫) এবং একই উপজেলার মশ্মিমনগর গ্রামের ইনতাজ আলীর স্ত্রী জাহানারা বেগম (৪৫)। জাহিদা বেগম বুধবার সকালে এবং জাহানারা বেগম মঙ্গলবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। যশোরে এ পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত ও অন্য জেলার বাসিন্দা চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৭ জন মারা গেছেন। যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক ডা. আব্দুর রহিম মোড়ল জানান, জাহিদা বেগম সোমবার দুপুরে হাসপাতালে ভর্তি হন। পরীক্ষার পর দেখা যায় তিনি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার সকালে রক্তের পস্নাটিলেট কমে যাওয়ায় তার মৃতু্য হয়েছে।

তিনি আরও জানান, জাহানারা বেগমও সোমবার ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। এ সময় তার ডায়েবেটিস নিয়ন্ত্রণ ছিল না। তারপর রক্তের পস্নাটিলেট কমে গেলে মঙ্গলবার ভোরে মারা যায়।

যশোরের সিভিল সার্জন দিলীপ কুমার রায় জানিয়েছিলেন, গত ৩ সেপ্টেম্বর ডেঙ্গু আক্রান্ত শাহাজাহান আলী বিশ্বাস (৭০) নামে একজনের মৃতু্য হয়। শহরের কুইন্স হসপিটালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃতু্য হয়। তিনি বাঘারপাড়া উপজেলার ভাঙ্গুড়া গ্রামের হাজের আলীর ছেলে। এছাড়া যশোরে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত ও অন্য জেলার বাসিন্দা চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও

\হ৪ জন মারা যান।

খুলনা : খুলনায় ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও এক নারীর মৃতু্য হয়েছে। মৃতের নাম রহিমা বেগম (৫০)। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টায় তিনি মারা যান। এ নিয়ে খুলনায় ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মোট ১১ জনের মৃতু্য হলো। মৃত রহিমা বেগম সাতক্ষীরার তালা উপজেলার আজরাইল গ্রামের রফিকুল ইসলাম মোড়লের স্ত্রী। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক ফিজিসিয়ান (আরপি) ডা. শৈলেন্দ্র নাথ বিশ্বাস বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রহিমা বেগমকে

সোমবার বিকেলে ডেঙ্গু ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে হাসপাতালের আইসিইউতে নেয়া হয়। মঙ্গলবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

ফরিদপুর : ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগে সিদ্দিকুর রহমান (৫৫) নামের এক রোগীর মৃতু্য হয়েছে। তিনি স্থানীয় কবিরাজপুর ইউনিয়নের দফাদারের (গ্রাম পুলিশ) চাকরি করতেন। মঙ্গলবার ভোররাতে তার মৃতু্য হয়। মৃতের বাড়ি মাদারীপুর জেলার রাজৈর এলাকার কবিরাজপুর গ্রামে। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতার সূত্রে জানা যায়, সিদ্দিকুর রহমান ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে রাজৈর স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে থেকে সোমবার দুপুরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। বিকালে সে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হলে ভোর রাতেই সে মারা যায়।

ফরিদপুর সিভিল সার্জন ডা. এনামুল হক জানান, ফরিদপুরে এ পর্যন্ত ২২২৩ জন ডেঙ্গু রোগে চিকিৎসা নিয়েছে। এর মধ্যে এ রোগে ১৬৪২ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। এর মধ্য মারা গেছে ৮ জন।

কুষ্টিয়া : ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মিনা খাতুন (২১) নামের এক গৃহবধুর মৃতু্য হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল সাঁড়ে ৬টায় ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃতু্য হয়। মৃত গৃহবধূ মিনা খাতুন ভেড়ামারা উপজেলার কাজিহাটা গ্রামের আবু রাইহানের স্ত্রী। ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. আসাদুজ্জামান জানান, গত ৮ সেপ্টেম্বর দুপুরে মিনা খাতুন ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় গতকাল সোমবার রাতে তাকে রাজশাহী মেডিকেলে রেফার্ড করা হলেও মিনা খাতুন সেখানে না গেলে বুধবার সকালে তার মৃতৃ্য হয়। উলেস্নখ্য, গত ৭ জুলাই কুষ্টিয়ায় প্রথম একজন রোগীর ডেঙ্গু সনাক্ত হয় এবং আজ মঙ্গলবার সকালে জেলায় এই প্রথম চিকিৎসাধীন অবস্থায় মিনা খাতুন নামের এক গৃহবধূ মারা যায়।

ব?রিশাল: বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত্র হয়ে ফারহাদ হোসেন জিহাদ (১৪) নামে এক যুবকের মৃতু্যর ঘটনা ঘটেছে। মৃত জিহাদ বরিশালের মুলাদী উপজেলার সদর ইউনিয়নের মধ্য চরলক্ষীপুর গ্রামের বাসিন্দা বাবুল আহমেদ হাওলাদারের ছেলে। বুধবার বেলা ১ টা ২০ মিনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃতু্য হয় বলে জানিয়েছেন মেডিসিন ওয়ার্ডের ইউনিট-৪ এর প্রধান ডা. অসীত ভূষণ দাস। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, সে মঙ্গলবার রাত ৯টা ৫০ মিনিটে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়। সে স্থানীয় চরলক্ষীপুর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্র ছিল বলে জানিয়েছেন চাচা নুরুল ইসলাম হাওলাদার। তিনি জানান, বাবুল আহমেদের দুই সন্তান ছিল, যার মধ্যে ছোটে ছেলে এর আগে পানিতে ডুবে মারা যায় এবং আজ বড় ছেলে ডেঙ্গুজ্বরে মৃতু্যবরণ করল।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে