logo
শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  ফয়সাল খান   ০৮ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০  

বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের ফাঁসি দ্রম্নত কার্যকর চায় আ'লীগ

জাতির পিতার জন্মশতবাষির্কীতে তার খুনি ক্যাপ্টেন (অব.) আবদুল মাজেদ গ্রেপ্তার হওয়ায় স্বস্তি প্রকাশ করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতারা। এটিকে মুজিববর্ষের শ্রেষ্ঠ পুরস্কার হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন তারা। একই সঙ্গে মৃতু্যদন্ডপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন (অব.) আবদুল মাজেদের রায় দ্রম্নত সময়ের মধ্যে কার্যকরের দাবিও জানিয়েছেন তারা।

চলতি বছর বাংলাদেশের স্থপতি, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী। সেই হিসাবে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ১৭ মার্চ পর্যন্ত মুজিববর্ষ পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সম্প্রতি বিশ্বজুড়ে মরণঘাতক করোনাভাইরাসের কারণে জনসমাগম এড়িয়ে মুজিববর্ষের কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। এর মধ্যে বঙ্গবন্ধুর খুনি গ্রেপ্তার হওয়ায় ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে স্বস্তি বিরাজ করছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর অন্যতম সদস্য কর্নেল (অব.) ফারুক খান যায়যায়দিনকে বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনি ধরা পড়েছে এটা গোটা জাতির জন্য সুখবর। দ্রম্নত সময়ের মধ্যে জাতির জনকের এই আত্মস্বীকৃত খুনির সাজা কার্যকরের মাধ্যমে দেশে যে আইনের শাসন রয়েছে তা আবারও প্রমাণিত হবে। এই শাস্তি কার্যকরের মধ্য দিয়ে অন্যদেরও কঠোর বার্তা দিতে হবে। যাতে কোনো অপরাধীই এ ধরনের জঘন্য কাজ করার সাহস না পায়।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য আবদুর রহমান বলেন, 'সরকারের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আমি অভিনন্দন জানাই। তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে তার খুনিকে গ্রেপ্তার করেছেন। বঙ্গবন্ধুর এই খুনির যে দন্ডাদেশ আছে তা অতি দ্রম্নত কার্যকর করার জন্য সরকারের কাছে বিশেষ অনুরোধ জানাই। এটাই আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মীর প্রাণের দাবি।'

আওয়ামী লীগের অন্যতম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, 'বঙ্গবন্ধুর খুনিদের শাস্তি কার্যকর আমাদের প্রাণের দাবি। আমরা চাই- বঙ্গবন্ধু আত্মস্বীকৃত খুনিদের শাস্তি অনতিবিলম্বে কার্যকর হোক। এটা শুধু দাবি নয়, আমাদের আকাঙ্ক্ষা ও স্বপ্ন। আইনের শাসন শক্তিশালী করার জন্য শাস্তি কার্যকর করা অপরিহার্য। খুনি মাজেদ গ্রেপ্তারে প্রমাণ হলো- খুনিদের রেহাই নেই, বিশ্বের যে প্রান্তেই থাকুক, তাদের খুঁজে বের করে শাস্তির মুখোমুখি করা হবে।'

এদিকে, বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি ক্যাপ্টেন (অব.) আবদুল মাজেদের শাস্তি কার্যকরের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ। যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, শুধু আওয়ামী পরিবারের নয়, সারাদেশের মানুষ চায় বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সাজা কার্যকর করা হোক। মুজিব শতবর্ষে একজন খুনি গ্রেপ্তার আনন্দের বিষয়, আমরা অতি দ্রম্নত শাস্তি কার্যকরের দাবি জানাই।

আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ বলেন, 'খুনি আবদুল মাজেদ গ্রেপ্তার হওয়ায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ধন্যবাদ জানাই। একই সঙ্গে তার মৃতু্যদন্ডাদেশ দ্রম্নত কার্যকরের দাবি জানাই।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে