logo
রোববার ১৮ আগস্ট, ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬

  যাযাদি রিপোটর্   ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০  

দেবী চলচ্চিত্রের প্রদশর্নী বন্ধের দাবি

সরকারি আইন ভঙ্গ করে বাংলা চলচ্চিত্র ‘দেবী’র প্রদশর্নী বন্ধের দাবি জানিয়েছে তামাকবিরোধী সংগঠনগুলো।

রোববার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

এইড ফাউন্ডেশন, ন্যাশনাল হাটর্ ফাউন্ডেশন, এসিডি, নাটাব ও ঢাকা আহসানিয়া মিশনসহ কয়েকটি তামাকবিরোধী সংগঠন এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন ন্যাশনাল হাটর্ ফাউন্ডেশনের ডাক্তার সোহেল রেজা চৌধুরী ও ঢাকা আহসানিয়া মিশনের সহকারী পরিচালক মুখলিসুর রহমান।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, অধিক হারে ধূমপানের দৃশ্য ব্যবহারের কারণে সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত বাংলা চলচ্চিত্র দেবী দেশের তামাকবিরোধী জনস্বাস্থ্য উন্নয়ন কমীের্দর মধ্যে গভীর উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠার জন্ম দিয়েছে। প্রচলিত আইন অনুযায়ী ধূমপানের দৃশ্য প্রদশর্ন নিষিদ্ধ হলেও সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত এ চলচ্চিত্রে কারণে-অকারণে বারবার আনা হয়েছে ধূমপানের দৃশ্য। তাছাড়া দেবীতে সরাসরি জাপান টোবাকো ইন্টারন্যাশনালের উইনস্টন ব্র্যান্ডের সিগারেটের ব্যবহার দেখানো হয়েছে, যা চলচ্চিত্রটিকে তামাকের বিজ্ঞাপনে পরিণত করেছে।

গত ২২ জানুয়ারি তথ্যসচিব দেবী চলচ্চিত্রে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের লঙ্ঘন পযাের্লাচনা ও এর পরিপ্রেক্ষিতে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়ার জন্য বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোডর্, জয়া আহসানসহ সংশ্লিষ্টদের নিদের্শনা দিয়েছিলেন। কিন্তু তা সত্তে¡ও ধূমপানের দৃশ্যগুলো ও ইনস্টল সিগারেট সেবনের দৃশ্য বাদ না দিয়েই এবার চলচ্চিত্রটির টেলিভিশন প্রিমিয়ার করতে যাচ্ছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি। যা বেশি হতাশাজনক।

মুখলিসুর রহমান বলেন, জনস্বাস্থ্য, যুবসমাজ ও তামাকের নেতিবাচক প্রভাবের কথা বিবেচনা করে আগামী ১৩ ও ১৪ ফেব্রæয়ারি মাছরাঙ্গা টেলিভিশন ও বায়েস্কোপে দেবী চলচ্চিত্রের প্রচার বন্ধের দাবি জানানো হয়। এ ছাড়া তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের যথাযথ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ওইসব চলচ্চিত্র, নাটক-প্রামাণ্যচিত্রে তামাক ব্যবহারের দৃশ্যধারণ ও প্রচার বন্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানান।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে