logo
রোববার ২৫ আগস্ট, ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

  যাযাদি রিপোটর্   ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০  

হজের খরচ বাড়েনি দাবি ধমর্ প্রতিমন্ত্রীর

হজের খরচ বাড়েনি দাবি ধমর্ প্রতিমন্ত্রীর
মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে মঙ্গলবার আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তৃতা করেন ধমর্ প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ Ñযাযাদি
এ বছর হজযাত্রার খরচ বাড়েনি বলে দাবি করেছেন ধমর্ প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ।

মঙ্গলবার দুপুরে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি হজযাত্রার খরচ না বাড়ার পেছনের যুক্তি তুলে ধরেন।

গত সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে ‘জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতি-২০১৯’ এবং ‘হজ প্যাকেজ-২০১৯’-এর খসড়া অনুমোদন দেয়া হয়।

এবার সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজের খরচ প্যাকেজ-১ এ চার লাখ ১৮ হাজার ৫০০ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এ তিন লাখ ৪৪ হাজার টাকা নিধার্রণ করা হয়েছে।

গত বছর প্যাকেজ-১ এ তিন লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এ তিন লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা নিধাির্রত ছিল।

সেই হিসাবে সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্যাকেজ-১ এ এবার ২০ হাজার ৫৭১ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এ ২৪ হাজার ৬৪৫ টাকা বেশি খরচ পড়বে।

ধমর্ প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বলেন, ‘আপনারা দেখছেন, গত বছরের তুলনায় প্যাকেজ-১ এ এবার ২০ হাজার ৫৭১ টাকা বেড়েছে। কিন্তু সৌদি সরকার সাভির্স চাজর্সহ অন্যান্য খরচ বাড়িয়েছে ২৪ হাজার ৯৮০ টাকা।’

সৌদি সরকারের বাড়ানো চাজর্ কারও কমানোর ক্ষমতা নেই জানিয়ে তিনি বলেন, ‘প্যাকেজ-২ এ সৌদি সরকার চাজর্ বাড়িয়েছে ১৯ হাজার ৩৫ টাকা। কিন্তু গত বছরের তুলনায় বেড়েছে ১২ হাজার টাকার মতো।’

তাহলে খরচ কোথায় বেড়েছে সাংবাদিকদের কাছে প্রশ্ন রেখে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এ বছর প্যাকেজ ১-এর জন্য প্রস্তাবিত ব্যয় ধরা হয়েছিল চার লাখ ৪২ হাজার ৯১০ টাকা আর প্যাকেজ ২-এর জন্য ব্যয় ধরা হয়েছিল তিন লাখ ৭০ হাজার টাকা। বলুন বেড়েছে কিনা?’

তিনি বলেন, ‘আশা করি এ দুটি তুলনায় আপনাদের বুঝতে বাকি নেই যে, আমরা হজের খরচ কমিয়েছি।’

এর আগে সোমবার হজনীতি ও হজ প্যাকেজ চ‚ড়ান্ত করে মন্ত্রিসভা বৈঠক। তখন মন্ত্রিপরিষদ সচিব ব্রিফিংয়ে বলেন, সৌদি সরকারের নিধাির্রত ট্যাক্স, বাড়ি ভাড়া, সাভির্স চাজর্, কোরবানির পশুর দামসহ অন্যান্য খরচ বাড়ায় এবার হজ প্যাকেজর মূল্য বাড়লো। সেই সঙ্গে বেড়েছে হজযাত্রীদের অন্যান্য খরচ। বিমান ভাড়া ১০ হাজার টাকার বেশি কমিয়েও এটা আগের স্থানে রাখা যায়নি।

চঁাদ দেখাসাপেক্ষে আগামী ১০ আগস্ট হজ হতে পারে। এবার বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজে যেতে পারবেন।

এ বছর যারা হজে যেতে চান, তাদের পাসপোটের্র মেয়াদ ২০২০ সালের ১০ ফেব্রæয়ারি পযর্ন্ত থাকতে হবে।

এবার রমজান মাসের আগেই সৌদিতে বাড়ি ভাড়া করতে হবে। সৌদির বাড়ি ভাড়া এবং সাভির্স ও ক্যাটারিং চাজর্ অনলাইনে জমা দিতে হবে।

হজযাত্রীরা সৌদি আরবে যে বাড়িতে থাকবেন, এবার থেকে ওই বাড়ির ঠিকানা পাসপোটের্র সঙ্গে জুড়ে দেয়া হবে বলেও সোমবার জানিয়েছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে