logo
সোমবার ১৪ অক্টোবর, ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

  যাযাদি রিপোর্ট   ১০ জুলাই ২০১৯, ০০:০০  

মানববন্ধন

সরকার কম চুরি করলে গ্যাসের দাম বাড়ত না: গণফোরাম

দলের সাধারণ সম্পাদক রেজা কিবরিয়া বলেন, এ সরকার নির্বাচিত সরকার নয়। গ্যাস ও বিদু্যতের দাম বাড়িয়ে জনগণের পকেট থেকে আট হাজার কোটি টাকা লুটে নিচ্ছে।

সরকার কম চুরি করলে গ্যাসের দাম বাড়ত না: গণফোরাম
গ্যাস-বিদু্যতের মূল্যবৃদ্ধি ও গণবিরোধী বাজেটের প্রতিবাদে মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ মিছিল করে গণফোরাম -পিবিএ

বাজেটকে 'গণবিরোধী' উলেস্নখ করে এবং গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে গণফোরাম সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে। জনগণের পকেট থেকে টাকা নিয়েও গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে বলে অভিযোগ করে দলটি। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গণফোরাম এই সমাবেশের আয়োজন করে। দলের সাধারণ সম্পাদক রেজা কিবরিয়া বলেন, 'এ সরকার নির্বাচিত সরকার নয়। গ্যাসের ও বিদু্যতের দাম যে বাড়িয়েছে, আমাদের পকেট থেকে আট হাজার কোটি টাকা নিচ্ছে। সরকার যদি আট হাজার কোটি টাকা থেকে কম চুরি করত, তাহলে আমাদের এই টাকা দিতে হতো না। গ্যাস বিদু্যতের দাম বাড়াতে হতো না। সরকারের প্রত্যেক পদক্ষেপে দুর্নীতি, অদক্ষতা এবং তারা যে দেশ পরিচালনায় অক্ষম এটা প্রমাণ পাচ্ছি।' তিনি আরও বলেন, গণফোরাম জনগণের দল। আজকে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ করতে আমরা এখানে দাঁড়িয়েছি। আর কেউ না দাঁড়ালেও আমরা দাঁড়াব। যেখানেই আমরা পারি, এক ইঞ্চি জায়গা পেলে আমরা এই সরকারের বিরোধিতা করব, আমরা এই সরকারের অন্যায়-অবিচার-অত্যাচারের বিরোধিতা করব। এটা সংসদে পারি সেখানে করব, সংসদের বাইরে করব, রাস্তায় করব, শহরে করব, গ্রামে করব। এ ছাড়া বাজেটকে 'গণবিরোধী' বাজেট উলেস্নখ করে বলেন, এ বাজেট গণবিরোধী সরকারের থেকে এসেছে। গণফোরামের সাংসদ মোকাব্বির খান বলেন, এই প্রতিবাদ সারা দেশের মানুষের। ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে কেউ ভোট দিতে না পারলেও তিনি নির্বাচিত হয়েছেন। দু-একজন নির্বাচিত হওয়ার মধ্য দিয়ে এই নির্বাচন যুক্তিযুক্ত হয় না বলে তিনি জানান। মোকাব্বির খান আরও বলেন, সংসদে তিনি অবিলম্বে নির্বাচন দাবি করেছেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, কালোটাকা ও লুটেরাদের জন্য বাজেট করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে এমন বাজেট সংসদে উত্থাপন করার সাহস কেউ পেত না। ঋণখেলাপিদের ট্রাইবু্যনাল করে বিচারের দাবি করেন গণফোরামের এই সাংসদ। গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি আবু সাইয়িদ বলেন, সরকার জনগণের ওপর করের বোঝা চাপিয়ে এখন গ্যাসের দামও বাড়িয়েছে। বাংলাদেশ এখন 'ধর্ষণের দেশ' হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে বলে উলেস্নখ করেন গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী। তিনি বলেন, কতগুলো ব্যাংক ডাকাত, কতগুলো ভোট ডাকাত মিলে সংসদ দখল করে জনগণের বিরুদ্ধে বাজেট দিয়েছে এবং নিত্য-নৈমত্তিক সব কিছুর দাম বাড়াচ্ছে। হাসিনাকে জনগণ আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না, একমাত্র সমাধান হাসিনামুক্ত বাংলাদেশ। সমাবেশ শেষে তারা প্রেসক্লাবের সামনে থেকে মিছিল নিয়ে পল্টন ঘুরে আবার প্রেসক্লাবে এসে মিছিল শেষ করেন। গণফোরামের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোশতাক আহমেদের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য দেন, দলের সভাপতি পরিষদের সদস্য আমসা আমিন, মোহসিন রশীদ, জগলুল হায়দার আফ্রিক প্রমুখ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে