logo
শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১০ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

সংবাদ সংক্ষেপ

মেশিনের আঘাতে

শ্রমিকের মৃতু্য

যাযাদি রিপোর্ট

রাজধানীর নয়াপল্টনে প্রেস মেশিনের আঘাতে মামুন (২২) নামে এক শ্রমিকের মৃতু্য হয়েছে। শনিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। পরে মামুনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সোয়া ১টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত মামুনের সহকর্মী সিদ্দিকুর রহমান বলেন, মামুন নয়াপল্টনের মসজিদ গলি এলাকায় অবস্থিত প্রিন্টেস লিমিটেডের মেশিনম্যান হিসেবে কাজ করত। অফিসে কাজ করার সময়েই হঠাৎ দুর্ঘটনায় মামুনের মাথায় প্রিন্টিং প্রেস মেশিনের আঘাত লাগে। এতে তার মাথা থেঁতলে যায়। পরে হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মামুন ফকিরাপুল এলাকায় থাকতেন। তার বাড়ি নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায়। ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ বক্সের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আবদুল খান জানান, নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

বখাটের হাতে

পিতা খুন

রাজাপুর (ঝালকাঠি) সংবাদদাতা

ঝালকাঠির রাজাপুরে মো. দেলোয়ার হোসেন কাজী (৪২) নামে এক পিতা বখাটে ছেলের হাতে খুন হয়েছেন। ছেলে মো. হৃদয় কাজী (১৯) ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে।

পরিবারের স্বজন ও স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার অনুমানিক রাত সাড়ে ৮টার সময় টাকা নিয়ে পুত্র হৃদয় ও তার মা মোসা. ফাতেমা বেগমের মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে মা ভিতর থেকে দরজায় তালা লাগিয়ে দেয়। হৃদয় দরজা খোলার জন্য অপর প্রান্ত থেকে বারবার দরজায় ধাক্কা দেয়। বাবা দেলোয়ার ভিতর থেকে দরজার তালা খুলতে গেলে অপরপ্রান্ত থেকে হৃদয় তার হাতে থাকা লোহার রড দিয়ে বাবার মাথায় আঘাত করে। গুরুতর ও রক্তাক্ত জখম দেলোয়ারকে স্বজনরা স্থানীয়রা প্রথমে রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে ও পরে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা অবস্থায় রাত আড়াইটায় দেলোয়ারের মৃতু্য হয়।

বালতির পানিতে

পড়ে শিশুর মৃতু্য

শ্রীপুর (গাজীপুর) সংবাদদাতা

গাজীপুরের শ্রীপুরে বালতির পানিতে পড়ে শিশু দিয়া রাণী মন্ডল (১১ মাস) মারা গেছে। শুক্রবার দুপুর ১২টায় উপজেলার রাজাবাড়ী ইউনিয়নের লক্ষ্ণীপুর গ্রামে শিশুর নানাবাড়িতে তার মৃতু্য হয়।

পুলিশ সূত্র জানায়, দুপুরে শিশুটিকে খালা শ্রাবন্তি রাণী মন্ডলের (৬) কাছে রেখে মা ঘুমিয়ে পড়ে। খালা শিশুটিকে রেখে সহপাঠীদের সাথে খেলতে যায়। খেলা থেকে এসে দেখে শিশুটি পাশে থাকা বালতির পানিতে পড়ে আছে। পরে সে তার বোন বৃষ্টি রাণী মন্ডলকে ঘুম থেকে ডেকে তোলে। পরে মা শিশুকে বালতির পানি থেকে তুলে পেটে চাপ দিয়ে পানি বের করার চষ্টা করেন। পানি বের করতে না পেরে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক শিশুকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় শ্রীপুর থানায় একটি অপমৃতু্য মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই শিশুর বাবা অটো চালক বিপস্নব চন্দ্র মন্ডল কয়েক মাস আগে অটোসহ নিখোঁজ হন এবং তার অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

দেয়াল চাপায়

শ্রমিকের মৃতু্য

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা

হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে এক শ্রমিক মাটির ঘরের দেয়ালচাপায় মারা গেছেন।

শনিবার সকাল ৯টায় উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের আব্দুল মতলিবের ছেলে কাছম আলী (৪৫) পার্শ্ববর্তী রানীগাঁও গ্রামের ছেরাগ আলীর মাটির ঘর ভাঙার কাজে যান। এ সময় দেয়ালচাপায় শ্রমিক কাছম আলী ঘটনাস্থলে মারা যান। পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজমুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

রাণীনগরে স্কুল

ছাত্রী নিহত

রাণীনগর (নওগঁ) সংবাদদাতা

নওগাঁর রাণীনগরে বালু বোঝাই ট্রাকের সাথে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে রিপা আক্তার নামে এক স্কুল ছাত্রী নিহত হয়েছে। শনিবার সকালে রাণীনগর উপজেলার আবাদপুকুর-পতিসর রাস্তার গুয়াতা নামক স্থানে ঘটনাটি ঘটে।

গুয়াতা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাসুদেব পাল বলেন, শনিবার সকালে আব্দুল মান্নান সরদার তার মেয়ে সুমাইয়া ও ভাতিজি রিপা আক্তারকে সঙ্গে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে গুয়াতা উচ্চ বিদ্যালয়ে যাচ্ছিল। এ সময় আবাদপুকুর-পতিসর রাস্তার গুয়াতা নামকস্থানে পৌঁছলে সামনে থেকে আসা বালু বোঝাই ট্রাকের সাথে সংঘর্ষ বাধে। এতে গুরুতর আহত হলে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে নওগাঁ হাসপাতালে ভর্তি করালে রিপা আক্তার মারা যায়। এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজন ঘাতক ট্রাক আটক করলেও চালক পালিয়ে যায়। নিহত স্কুল ছাত্রী গুয়াতা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী।

প্রতিবন্ধী রাখালকে

পিটিয়ে হত্যা

যাযাদি ডেস্ক

রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলায় প্রতিবন্ধী রাখাল মীর্জা গোলাম কিবরিয়াকে (৪৫) পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। তিনি উপজেলার মাজবাড়ি ইউনিয়নের মাজবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে তার স্ত্রী মামলা দায়ের করেছে।

কিবরিয়ার স্ত্রী শাবানা বেগম অভিযোগ করেন, 'আমার স্বামী এক পায়ে তেমন শক্তি পেতেন না। এ কারণে তিনি স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা করতে পারতেন না। এজন্য মাত্র দেড় হাজার টাকার বিনিময়ে গরুর রাখাল হিসেবে মঞ্জুর বাড়িতে কাজ করতেন। গত বুধবার সকালে মঞ্জু আমার স্বামীকে বাড়ি থেকে ডেকে নেন। এরপর মঞ্জু তাকে খুব মারধর করেন। এতে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে প্রথমে রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল ও পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে