logo
মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

বিএনপির অনেক নেতা আ'লীগে যোগাযোগ করছেন: তথ্যমন্ত্রী

বিএনপির অনেক নেতা আ'লীগে যোগাযোগ করছেন: তথ্যমন্ত্রী
মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ -যাযাদি

যাযাদি রিপোর্ট বিএনপির অনেক নেতাই দল ছেড়ে যাওয়ার জন্য বহুদিন ধরেই চিন্তা-ভাবনা করছেন এবং আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ে যোগাযোগ করছেন বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। মঙ্গলবার সচিবালয়ে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাছান মাহমুদ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় একথা বলেন। হাছান মাহমুদ বলেন, 'বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন 'বিএনপি হচ্ছে একটি বটগাছ। এই বটগাছের নিচে মানুষ আসবে এবং বিশ্রাম নিয়ে চলে যাবে'। 'তাদের দল থেকে সম্প্রতি বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতা দল ত্যাগ করে চলে গেছেন সেই প্রসঙ্গেই তিনি একথা বলেছেন। এখন আমার প্রশ্ন হচ্ছে তিনি বিএনপির বটগাছ থেকে কবে চলে যাবেন, সেই প্রশ্ন অনেকেই করেছে।' হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপি থেকে যেভাবে তাদের সিনিয়র নেতারা দলত্যাগ করে চলে যাচ্ছেন, এই তালিকায় আরও বহুজন আছেন। সেগুলো ভবিষ্যতে বিএনপি দেখতে পাবে। এই পরিস্থিতিতে গয়েশ্বর নিজের হতাশা কাটানোর জন্য, আত্মতুষ্টির জন্য এই কথা বললেও তাদেরকে আর তারা ঠেকাতে পারবে না। তথ্যমন্ত্রী বলেন, রাজনীতি হচ্ছে মানুষের জন্য, জনগণের কল্যাণের জন্য। কিন্তু তাদের রাজনীতি গত ১১ বছরে মানুষের কল্যাণে আবর্তিত হয়নি। তাদের রাজনীতি সবসময় আবর্তিত হয়েছে তত্ত্বাবধায়ক সরকার, নির্বাচন কমিশন এবং খালেদা জিয়া, তারেক জিয়ার মামলা এবং খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে। তারা এই বিষয়গুলোকে ফুটিয়ে তোলার জন্য যে জঘন্য পথ অবলম্বন করেছে, জনগণের উপর আক্রমণ করা, পেট্রোল বোমা হামলা চালানো, সে কারণে তারা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েছে। এ কারণে তাদের নেতারা দল ছেড়ে চলে যাচ্ছে। 'বিদেশ থেকে যেভাবে দলকে নিয়ন্ত্রণ করা হয়, তাদের দলের মধ্যে অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্র বলতে কোনো কিছু নেই, স্থায়ী কমিটির সদস্যরা কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারেন না। সিদ্ধান্ত আসে তাদের দন্ডপ্রাপ্ত ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছ থেকে এবং সেগুলো অপরিণামদর্শী সিদ্ধান্ত।' বিএনপির কেউ আওয়ামী লীগে যোগ দিচ্ছে কিনা- প্রশ্নে হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির অনেক নেতাই দল ছেড়ে যাওয়ার জন্য বহুদিন ধরেই চিন্তা-ভাবনা করছেন এবং আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ে যে যোগাযোগ করছেন না তা নয়। আওয়ামী লীগ কিন্তু যাকে তাকে দলে নেওয়ার জন্য বসে রয়নি। আওয়ামী লীগ একটি সংগ্রামের মধ্য দিয়ে জনগণের মধ্য থেকে উঠে আসা দল। আওয়ামী লীগে যোগদান করতে চাইলেই সবাইকে নেওয়া সম্ভবপর নয়। 'তাদের দল থেকেই অনেকেই দল ত্যাগ করার জন্য উন্মুখ হয়ে আছেন, মাত্র শুরু হলো ভবিষ্যতে বিএনপি আরো দেখতে পাবে।' \হ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে