logo
রবিবার, ৩১ মে ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  যাযাদি রিপোর্ট   ২২ মার্চ ২০২০, ০০:০০  

গুজবে কান দিয়ে আতঙ্কিত হবেন না: কাদের

গুজবে কান দিয়ে আতঙ্কিত হবেন না: কাদের
শনিবার আওয়ামী লীগের সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের মধ্যে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী উপকরণ বিতরণ করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের -যাযাদি
নভেল করোনাভাইরাস নিয়ে গুজবে আতঙ্কিত না হয়ে ব্যাধি মোকাবিলায় সতর্ক থাকতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বৈশ্বিক মহামারীতে রূপ নেওয়া নভেল করোনাভাইরাসের বাংলাদেশেও সংক্রমণ ও মৃতু্যর প্রেক্ষাপটে দেশবাসীর উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যে তিনি এই আহ্বান জানান।

কাদের বলেন, 'আতঙ্কিত হয়ে সমস্যার সমাধান হবে না এবং গুজবে কান দিলে চলবে না। স্বাস্থ্যবিধি সতর্কভাবে মেনে চলতে হবে। এই মুহূর্তে আমাদের সবার কাজ স্বাস্থ্যবিধি সতর্কভাবে মেনে চলা।'

বিভিন্ন সংগঠনের মধ্যে করোনাভাইরাসপ্রতিরোধী উপকরণ বিতরণের সময় সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি।

কাদের বলেন, 'করোনা আমাদের ভয়ঙ্কর এক শত্রম্ন। তবে এমন শত্রম্ন নয় যে যাকে পরাজিত করা যাবে না। আমরা করোনার চেয়ে শক্তিশালী। কাজেই ভয়কে জয় করতে হবে। এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হবে।'

সরকারের পদক্ষেপগুলো তুলে ধরে মন্ত্রী কাদের বলেন, 'আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিনি আতঙ্কের মধ্যেও সকাল বেলা ধানমন্ডির নির্বাচনে ভোট দিতে এসেছেন। আমরা আমাদের কর্মসূচি সীমিত করেছি। কিন্তু জীবনের সব কিছু তো থেমে থাকবে না। জীবন থাকবে, কর্ম থাকবে, মানুষের বেঁচে থাকতে হবে, বেঁচে থাকার জন্য যা যা করণীয়, তা তা করতে হবে।'

চিকিৎসক-নার্সরা নিরাপত্তা উপকরণ পাচ্ছেন কি না- এ প্রশ্নে তিনি বলেন, 'যখন ডেঙ্গু হয়েছিল, আমাদের ডাক্তাররা তখন প্রমাণ করেছিল। বাংলাদেশের ডাক্তাররা অনেক সাহসী। আজকে নিরাপত্তা সামগ্রী যথাযথভাবে সরবরাহ করলে তারা দুঃসাধ্য সাধন করতে পারে, সেটার প্রমাণ অতীতেও তারা রেখেছেন।

করোনা প্রতিরোধেও আমাদের ডাক্তাররা তাদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করবেন।'

এই পরিস্থিতিতে সিটি নির্বাচন বা অন্যান্য নির্বাচন পেছানোর সুযোগ আছে কি না- সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, এটা নির্বাচন কমিশন ঠিক করবে।

ক্ষমতাসীন দল হিসেবে এক্ষেত্রে আওয়ামী লীগ ইসিকে কোনো পরামর্শ দেবে কি না- জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'নির্বাচন কমিশনের একটা দায়িত্বশীল ভূমিকা আছে, তাদের জনস্বার্থের কথা চিন্তা করার বিষয় আছে। আমি আশা করি, তারা জনস্বার্থের বিষয়টা বিবেচনা করবেন।'

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, এস এম কামাল হোসেন, শ্রমবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দি, দপ্তর সম্পাদক বিপস্নব বড়ুয়া, উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে