logo
মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৬

  ক্রীড়া ডেস্ক   ০২ জুলাই ২০২০, ০০:০০  

সিরি'আ

শিরোপার আরও কাছে জুভেন্টাস

পাওলো দিবালা, রোনালদো ও ডগলাস কস্তার গোলে প্রত্যাশিত জয়ে শিরোপার পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেছে মাউরিসিও সারির দল।

ইতালিয়ান লিগ সিরি'আতে শিরোপা জেতার পথেই রয়েছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জুভেন্টাস। যদিও প্রথমার্ধে জুভেন্টাসকে ঠেকিয়ে রাখলেন জেনোয়ার গোলরক্ষক। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে আর পারলেন না। পাওলো দিবালা, রোনালদো ও ডগলাস কস্তার গোলে প্রত্যাশিত জয়ে শিরোপার পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেছে মাউরিসিও সারির দল।

সিরি'আতে মঙ্গলবার রাতে ৩-১ গোলে জিতেছে জুভেন্টাস। দিবালা দলকে এগিয়ে নেওয়ার পর ব্যবধান বাড়ান রোনালদো। পরে স্কোরলাইন ৩-০ করেন কস্তা। ইতালিয়ান কাপের ফাইনালে হারের পর এই তিন খেলোয়াড়ের ফিটনেস নিয়েই সমালোচনা করেছিলেন কোচ সারি। তেতে থাকা খেলোয়াড়রা দেখালেন নিজেদের সামর্থ্য। এই জয়ে ২৯ ম্যাচ থেকে জুভেন্টাসের সংগ্রহ ৭২ পয়েন্ট। আর সমান ম্যাচে ৬৮ পয়েন্ট নিয়ে তাদের ঠিক পেছনে আছে লাজিও। একই রাতের আগের ম্যাচে তুরিনোর মাঠে তারা জিতেছে ২-১ ব্যবধানে।

শুরু থেকে জেনোয়াকে চেপে ধরে জুভেন্টাস। বল নিয়ন্ত্রণে অনেক এগিয়ে ছিল গত আট আসরের চ্যাম্পিয়নরা। প্রথমার্ধে গোলের জন্য নেয় ১১টি শট, এর পাঁচটি ছিল লক্ষ্যে। তবে গোলরক্ষক মাত্তিয়া পেরিনকে পরাস্ত করা সম্ভব হয়নি। এই সময়ে গোলের জন্য একটা শটও নিতে পারেনি জেনোয়া। বিশেষ করে রোনালদো-দিবালাদের আক্রমণ ঠেকাতেই বেশি সময় কাটে স্বাগতিকদের।

ত্রয়োদশ মিনিটে রোনালদোর বুলেট গতির শট কর্নারের বিপক্ষে রক্ষা করেন জুভেন্টাসের সাবেক গোলরক্ষক পেরিন। প্রথমার্ধের শেষ দিকে আবার পর্তুগিজ যুবরাজের চেষ্টা ব্যর্থ করে দেন তিনি। মাঝে ২৭তম মিনিটে বিপজ্জনকভাবে বল নিয়ে ঢুকে পড়েছিলেন দিবালা। কিন্তু শট নিতে পারেননি। নষ্ট হয় ভালো একটি সুযোগ। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই জালের দেখা পান দিবালা। ৫০তম মিনিটে হুয়ান কুয়াদরাদোর কাছ থেকে বল পেয়ে পায়ের কারিকুরিতে সামনে এগিয়ে যান আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। ডি-বক্সে ঢুকে জায়গা করে নিয়ে কোনাকুনি গড়ানো শটে দলকে এগিয়ে নেন তিনি।

ঝাঁপিয়ে হাত ছোঁয়ালেও বলের জালে যাওয়া ঠেকাতে পারেননি পেরিন। করোনাভাইরাসের বিরতি কাটিয়ে লিগ মাঠে ফেরার পর টানা তিন ম্যাচে গোল পেলেন দিবালা। আসরে এটি তার দশম গোল। ছয় মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রোনালদো। মিরালেম পিয়ানের কাছ থেকে বল পেয়ে কিছুটা এগিয়ে যান তিনি। ২৫ গজ দূর থেকে তার বুলেট গতির শট খুঁজে নেয় ঠিকানা।

দিবালার মতো টানা তিন ম্যাচে গোল পেলেন রোনালদোও। আসরে এটি তার ২৪তম গোল। ২৯ গোল করে তার সামনে আছেন কেবল লাৎসিওর চিরো ইম্মোবিলে। ৭৩তম মিনিটে ব্যবধান আরও বাড়ান কস্তা। ডি-বক্সের বাইরে বল পেয়ে দূরের পোস্ট দিয়ে কোনাকুনি শটে জাল খুঁজে নেন এই ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার। কিছুই করার ছিল না স্বাগতিক গোলরক্ষকের। চার মিনিট পর আন্দ্রেয়া পিনামোন্তির গোলে ব্যবধান কমায় জেনোয়া। একই রাতের প্রথম ম্যাচে তুরিনোর বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়িয়ে ২-১ ব্যবধানে জেতে লাজিও। ২৯ ম্যাচে দলটির পয়েন্ট ৬৮। আর সমান ম্যাচে ৭২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে নিজেদের অবস্থান দৃঢ় করেছে জুভেন্টাস।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে