logo
মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ০৮ জুলাই ২০২০, ০০:০০  

বিশ্ব আর্চারি থেকে অনুদান পাচ্ছেন রোমান সানা

'আমি কোচের মাধ্যমে এই অনুদানের জন্য আবেদন করেছিলাম। শুনে খুব ভালো লাগছে। তবে আমি এখনো নিশ্চিত নই কত টাকা পাব। বর্তমান পরিস্থিতিতে এই টাকাটা আমার অনেক উপকারে আসবে।'

বিশ্ব আর্চারি থেকে অনুদান পাচ্ছেন রোমান সানা
মহামারি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়ছে সারাবিশ্ব। এ যুদ্ধে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে বিশ্ব আর্চারি ফেডারেশন। বিশ্বের বাছাইকরা ৩৫ জন আর্চারকে ১ লাখ ৯০ হাজার ইউএস ডলার অনুদান দিচ্ছে সংস্থাটি। এই ৩৫ জনের তালিকায় আছেন বাংলাদেশের সেরা আর্চার রোমান সানা। তিনিও পাচ্ছেন ৫০০০ ইউএস ডলার।

করোনাভাইরাসের কারণে বন্ধ বিশ্ব আর্চারি। এখনো আন্তর্জাতিক আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপ চালুর অনুমতি দেয়নি বিশ্ব আর্চারি। খেলা না থাকায় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে ফেডারেশনগুলো। আর্থিক সমস্যায় পড়েছেন অনেক আর্চারও। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের আর্চারি ফেডারেশনের দিকে তাই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে বিশ্ব আর্চারি ফেডারেশন ও ফাউন্ডেশন ফর গেস্নাবাল স্পোর্টস ডেভেলপমেন্ট।

করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত আর্চারদের জন্য একটা ত্রাণ তহবিল গঠন করেছে এ দুটি সংস্থা, যেখানে প্রায় ১ লাখ ৯০ হাজার ইউএস ডলার (প্রায় ১৬ কোটি ৬৬ হাজার টাকা) জমা হয়েছে। সেখান থেকে বাংলাদেশের আর্চার রোমান সানা পাচ্ছেন ৫০০০ ইউএস ডলার (প্রায় ৪ লাখ ২২ হাজার টাকা)।

বাংলাদেশ আর্চারি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক কাজী রাজীব উদ্দীন বলেন, 'রোমান সানার জন্য কিছুদিন আগে বিশ্ব আর্চারি সংস্থায় আমরা একটা অনুদানের আবেদন করেছিলাম। ওরা সবকিছু যাচাইবাছাই করে রোমানকে এই অনুদান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। টাকা পাওয়ার বিষয়টা প্রক্রিয়াধীন আছে। আশা করছি খুব দ্রম্নত রোমানের ব্যাংক একাউন্টে টাকা জমা হয়ে যাবে।'

দেশসেরা আর্চার রোমানকে এই অনুদান পাইয়ে দিতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রেখেছেন জাতীয় দলের জার্মান কোচ মার্টিন ফ্রেডরিখ। তিনি বলেন, 'এই অনুদান পেতে আমাকে অনেক কাগজপত্র পাঠাতে হয়েছে বিশ্ব আর্চারি সংস্থায়। শেষ পর্যন্ত ও এই টাকা পাচ্ছে বলে আমি খুব খুশি। তবে এই টাকাটা শুধু ওর পরিবারের জন্যই নয়, নিজের পারফরম্যান্সের উন্নতির জন্যও খরচ করতে হবে।'

অনুদান পাওয়ার খবরটা শুনে বেশ উচ্ছ্বসিত রোমান, 'আমি কোচের মাধ্যমে এই অনুদানের জন্য আবেদন করেছিলাম। শুনে খুব ভালো লাগছে। তবে আমি এখনও নিশ্চিত নই কত টাকা পাব। বর্তমান পরিস্থিতিতে এই টাকাটা আমার অনেক উপকারে আসবে। আমার অসুস্থ মায়ের ওষুধ কিনতেই প্রতি মাসে খরচ হচ্ছে ৫ হাজার টাকা।'

সারাবিশ্ব থেকে ১২২ জন আর্চার এই অনুদান পেতে আবেদন করেন। এর মধ্য থেকে বিশ্ব আর্চারি সংস্থার বাছাই কমিটি বেছে নেয় ৩৫ জন আর্চারকে। কমিটি এই ৩৫ জন তিরন্দাজের পরিবারের আর্থিক অবস্থা, গত দুই বছরের আন্তর্জাতিক পারফরম্যান্সও আমলে নিয়েছে। পাশাপাশি এই অনুদান আর্চাররা কীভাবে খরচ করবেন, সেটার একটা পরিকল্পনাও বিশ্ব আর্চারি সংস্থাকে জানাতে হয়েছে।

গত বছর হল্যান্ডে বিশ্ব আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশের প্রথম ব্রোঞ্জ পদক এনে দেন খুলনার এই তরুণ। সরাসরি টোকিও অলিম্পিকে খেলার সুযোগ করে নেন রোমান। ফিলিপাইনে এশিয়া কাপে জেতেন সোনা। আর বছরের শেষে নেপালে এসএ গেমসে ব্যক্তিগত ও দলগত মিলিয়ে রিকার্ভ ইভেন্টে জেতেন তিনটি সোনার পদক।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে