logo
রোববার ১৮ আগস্ট, ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬

  ক্রীড়া ডেস্ক   ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০  

রুদ্ধশ্বাস জয়ে সিরিজ নিউজিল্যান্ডের

রুদ্ধশ্বাস জয়ে সিরিজ নিউজিল্যান্ডের
কলিন মুনরো : ৭২
কলিন মুনরোর ঝড়ো হাফসেঞ্চুরি হঁাকালেন, ছোট ছোট অবদান রাখলেন অন্যরাও। তাতে সিডন পাকের্ নিউজিল্যান্ড পেল ২১২ রানের বড় পুঁজি। প্রতিপক্ষ ভারত ওই রানটাকেও টপকে যাওয়ার দারুণ সম্ভাবনা জাগায়। কিন্তু ম্যাচের শেষ ওভারে দুদার্ন্ত বোলিংয়ে সেই সম্ভাবনার মৃত্যু ঘটান টিম সাউদি, রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে এনে দেন ৪ রানের জয়। ওই জয়ে তিন ম্যাচের টি২০ সিরিজটাও ২-১ ব্যবধানে নিজেদের পকেটে পোরে কিউইরা।

২১৩ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ভারতের জয়ের সমীকরণটা এক পযাের্য় ২৮ বলে ৬৮ হয়ে যায়। হাতে ছিল মাত্র চার উইকেট। তবে ক্রিজে থাকা দিনেশ কাতির্ক আর ক্রুনাল পান্ডিয়া দমে যাননি। ড্যারিল মিচেল আর অভিষিক্ত বেøয়ার টিকনারকে তুলোধুনো করে সমীকরণটা ১৮ বলে ৪৮ রানে নামিয়ে আনেন তারা। ১৮তম ওভারে রক্ষা পাননি সাউদিও। টানা তিন বলে একটি ছক্কা আর দুটো চার হঁাকান ক্রুনাল, সমীকরণটা হয়ে যায় ১২ বলে ৩০ রান। স্কট কুগলেইনের করা পরবতীর্ ওভার থেকে ১৪ রান এলে শেষ ওভারে ভারতের দরকার পড়ে ১৬ রান।

সাউদির করা ওভারের প্রথম বল থেকে দুই রান নিলেন কাতির্ক। পরের বল ডট। বলটি লংঅনে পাঠিয়েও ক্রুনালকে স্ট্রাইক দিলেন না কাতির্ক, দৌড়ালেন না রানের জন্য। কাতিের্কর ওপর চাপটা তখন পাহাড়সম, সেই চাপ সামলে তৃতীয় বলে একটি রানের বেশি আদায় করতে পারেননি। চতুথর্ বলে ক্রুনালকেও এক রানের বেশি নিতে দেননি সাউদি। ফলে শেষ দুই বলে ১২ রানের প্রয়োজন পড়ে ভারতের, শেষ বলে ছক্কা হঁাকিয়েও প্রয়োজনটা মেটাতে পারেননি কাতির্ক। কারণ পঞ্চম বল থেকে কোনো রানই নিতে পারেননি তিনি। সকল রোমাঞ্চের সমাপ্তি ওখানেই।

প্রবল চাপ সামলে দারুণ বোলিংয়ে সাউদি নিউজিল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করলেও ভিতটা গড়ে দিয়েছিলেন ম্যাচসেরা মুনরো। সিরিজসেরা হওয়া টিম সেইফাটের্ক নিয়ে গড়েন ৮০ রানের উদ্বোধনী জুটি। ২৫ বলে ৪৩ করে থামেন সেইফাটর্, সমান ৫টি করে চার আর ছক্কায় ৪০ বলে ৭২ রান করেন মুনরো। বিধ্বংসী এই ওপেনারকে থামান কুলদীপ যাদব, পরের ওভারে দলপতি কেন উইলিয়ামসনকে (২৭) খলিল আহমেদ। কিন্তু ততক্ষণে ১৪.৪ ওভারে ১৫০ রান জমা হয়ে যায় নিউজিল্যান্ডের ঝুলিতে। এরপর কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের ১৬ বলে ৩০ এবং ড্যারিল মিচেল (১৯*) আর রস টেলরের (১৪*) ঝড় ২০০ পার করায় স্বাগতিকদের।

তাড়া করতে নেমে প্রথম ওভারেই শিখর ধাওয়ানকে হারায় ভারত। তবে অধিনায়ক রোহিত শমার্ আর বিজয় শঙ্করের ৪৬ বলে ৭৫ রানের দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে লক্ষ্যপথেই ছিল অতিথিরা। দুধর্ষর্ কিছু শট খেলেন বিজয়, ইশ সোধিকে ছক্কা হঁাকান টানা দুই বলে। কিন্তু আরও একবার ভালো শুরুর পরও ইনিংসটা লম্বা করতে ব্যথর্ তিনি। ২৮ বলে ৪৩ রান করে আউট হন। এরপর ১২ বলে ২৮ রানে ঝড়ো ইনিংসে আশাটা বঁাচিয়ে রেখেছিলেন ঋষভ পান্ত। কিন্তু ১৯ বলের ব্যবধানে সব এলোমেলো হয়ে যায়। ২ উইকেটে ১২১ থেকে ৬ উইকেটে ১৪৫ বনে যায় ভারত। সেখানে থেকে কাতির্ক আর ক্রুনাল প্রতিঘাত হানলেও অতিথিদের জয়ের বন্দরে পেঁৗছে দিতে পারেননি।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে