logo
সোমবার ২৫ মার্চ, ২০১৯, ১১ চৈত্র ১৪২৫

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ১৬ মার্চ ২০১৯, ০০:০০  

নিরাপত্তা পেলেই খেলতে যাবে বাংলাদেশ

আজকের ঘটনার পর এটা নিশ্চিত, খেলোয়াড়রা যে দেশেই যাক না কেন প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা আমাদের নিশ্চিত করতে হবে। যারা দিতে পারবে আমরা শুধু সেখানেই খেলতে যাব; যারা দিতে পারবে না সেখানে আমরা যাব না -নাজমুল হাসান পাপন

নিরাপত্তা পেলেই খেলতে যাবে বাংলাদেশ
ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় নিরাপত্তার ব্যাপারে নড়েচড়ে বসেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। যে দেশ খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা দিতে পারবে না সেখানে বাংলাদেশ সফর করবে না বলে জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

ভবিষ্যতে দেশের বাইরে খেলতে গেলে ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার ব্যাপারে সতর্ক থাকার কথা জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন, 'আজকের ঘটনার পর এটা নিশ্চিত, খেলোয়াড়রা যে দেশেই যাক না কেন প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা আমাদের নিশ্চিত করতে হবে। যারা দিতে পারবে আমরা শুধু সেখানেই খেলতে যাব; যারা দিতে পারবে না সেখানে আমরা যাব না।'

ক্রিকেটাররা নিরাপদ আশ্রয়ে পৌঁছানোর কিছু পর গুলশানে নিজ বাসায় সংবাদ সম্মেলন করেন নাজমুল হাসান। তার আগেই দুই দেশের বোর্ড মিলে তৃতীয় টেস্টটি বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বোর্ড সভাপতি নিরাপত্তার ব্যাপারে বিসিবির অবস্থান ব্যাখ্যা করেন। বিসিবি সভাপতি নিশ্চিত করেছেন, খেলোয়াড়দের সবাই নিরাপদে আছেন।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, 'আমাদের দেশে যখন ওরা খেলতে আসে, নিরাপত্তা নিয়ে যে ধরনের কথাবার্তা বলে, যেমন নিরাপত্তা আমাদের দিতে হয়, এখন পর্যন্ত আমরা তেমনটা কোথাও গিয়ে পাইনি। সত্যি কথা বলতে জোরাজুরিও করিনি। অন্যান্য দেশও ওসব দেশে খেলতে গেলে করে না। আমার মনে হয়েছে এ ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে, এ ধারণাই তাদের নেই। পূর্বপ্রস্তুতি বা এমন হলে তাৎক্ষণিকভাবে কী করতে হবে সেটিও তাদের ছিল না। ঘটনাস্থলে পুলিশ যেতে যতটা সময় লেগেছে, এটা তো অস্বাভাবিক। আমাদের দেশে বা আশপাশের দেশে এমন কিছু হলে পুলিশ আসতে এত দেরি হতে পারে না। নিশ্চিতভাবেই ওরা মনে হয় অপ্রস্তুত ছিল।'

'আমরা যখন বিদেশে যাই, বিশেষ করে এ ধরনের দেশে, তখন কিন্তু আমাদের দেশে তাদের জন্য যে ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হয় সেটা থাকে না ক্রিকেট দলের জন্য। আমরা সবসময় বলে এসেছি এ ধরনের ঘটনা যেকোনো দেশেই হতে পারে। প্রত্যেকটা দেশ, প্রত্যেকটা দলকে সতর্ক থাকতে হবে। অনেকে মনে করতে পারেন, এ ধরনের ঘটনা আমাদের এখানে হতে পারে বা উপমহাদেশে হতে পারে; ওদের ওখানে হওয়ার সম্ভাবনা নেই। এ জিনিসটা এখন আর নেই। আমরা যে ধরনের নিরাপত্তা দিয়ে থাকি তার ধারেকাছেও তাদের ছিল না, এটা সত্যি। শুধু নিউজিল্যান্ডে না, যত জায়গায় আমরা সফরে যাই অতটা নিরাপত্তা দেখি না।' বলেন নাজমুল হাসান।

ক্রিকেট দলকে দেশে ফেরাতে সরকারি পর্যায়ে যোগাযোগ করা হচ্ছে জানান নাজমুল। তিনি বলেন, 'সবশেষ খবর হচ্ছে আমাদের পুরো দলের সবাই নিরাপদে হোটেলে পৌঁছেছে। তারা এখন হোটেলেই আছে। আমি খবর পাওয়ার পরপরই কথা বলি পাইলটের সঙ্গে। তারপর তামিমের সাথে কথা হয় আমার তখনই। আমি মুশফিক-রিয়াদ ওদের সাথেও কথা বলেছি। তারা সবাই এখন হোটেলে আছে এবং নিরাপদ আছে।'

বাংলাদেশ দলকে দ্রম্নত দেশে ফেরাতে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে জানান নাজমুল। এনিয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে কথা হয়েছে বোর্ড সভাপতির, 'আমি যখন শুনেছি তারা হোটেলে পৌঁছেছে, তারপরই আমাদের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমকে ফোন করেছি। তাকে বলেছি আমাদের দলকে যত দ্রম্নত সম্ভব বাংলাদেশে নিয়ে আসতে চাই। এখন তো ওখানে তারা হোটেলেই আছে। নিউজিল্যান্ডে এখন যাতায়াত ব্যবস্থা কেমন, বিমানবন্দর চালু আছে কি না সেটাও আমরা জানি না। আমি তাকে বলেছি আমরা এখান থেকে টিকিট কাটার ব্যবস্থা করছি। কিন্তু ক্রিকেটারদের হোটেল থেকে বের করে বিমানে ওঠানোর ব্যবস্থা করার জন্য সাহায্য করতে হবে। তিনি বলেছেন, এখনই ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে, সর্বাত্মক চেষ্টা করা হচ্ছে।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে