logo
মঙ্গলবার ২০ আগস্ট, ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

  ক্রীড়া ডেস্ক   ১৬ মে ২০১৯, ০০:০০  

সতীর্থদের নিয়ে মধুর সমস্যায় মরগান!

বর্তমান স্কোয়াড থেকে দুর্ভাগ্যবশত দুইজনকে সরে যেতে হবে। সিদ্ধান্তটা আমাদের জন্য অনেক কঠিন। কারণ তারা প্রত্যেকেই পারফর্ম করছে। যদি পারফর্ম না করত তাহলে কাজটা আমাদের জন্য সহজ হতো

ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ। স্বাভাবিকভাবেই এবার ইংল্যান্ডের ওপর রয়েছে বাড়তি চাপ। সেটা অবশ্যই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ ট্রফি ছোঁয়ার। তার ওপর বিশ্বকাপের জন্য ইংল্যান্ড প্রাথমিক দল ঘোষণা করলেও আদতে ১৭ জনের একটি দল নিয়ে চলছে পরীক্ষা-নিরীক্ষা। পাকিস্তান সিরিজে সেই ১৭ জনের দল থেকে কেটে ছেঁটে করা হবে ১৫ সদস্যের চূড়ান্ত একটি দল। কিন্তু তার আগে সতীর্থদের নিয়ে মধুর সমস্যায় পড়েছেন ইংলিশ অধিনায়ক ইয়ন মরগান।

গত চার বছর একটানা দুর্দান্ত খেলছে ইংল্যান্ড। যে কারণে দলটি এবারের বিশ্বকাপে এরইমধ্যে পেয়েছে হট ফেভারিটের তকমা। কিন্তু আসন্ন বৈশ্বিক ওই টুর্নামেন্টের দল নির্বাচন নিয়ে মধুর সমস্যার মুখে পড়েছেন মরগ্যান। দলের ভেতরের প্রতিযোগিতা এতটাই বেশি যে কাকে রেখে কাকে বিশ্বকাপে মূল স্কোয়াডে জায়গা দেয়া হবে তা নিয়ে চিন্তিত ইংলিশ অধিনায়ক।

চলতি পাকিস্তানের বিপক্ষে ঘরের মাঠের ওয়ানডে সিরিজে ইংল্যান্ড স্কোয়াডে রয়েছে ১৭ জন ক্রিকেটার। কিন্তু সেখান থেকে বিশ্বকাপ স্কোয়াডে রাখা হবে ১৫ জন ক্রিকেটারের। ব্যাপারটি নিয়ে বেশ চিন্তিত মরগান, 'বর্তমান স্কোয়াড থেকে দুর্ভাগ্যবশত দুইজনকে সরে যেতে হবে। সিদ্ধান্তটা আমাদের জন্য অনেক কঠিন। কারণ তারা প্রত্যেকেই পারফর্ম করছে। যদি পারফর্ম না করতো তাহলে কাজটা আমাদের জন্য সহজ হতো। তবুও তারা দলের জন্য অবদান রাখছে সেটাও বড় বিষয়।'

\হবিশ্বকাপের প্রাথমিক স্কোয়াডে নাম নেই আর্চারের। তবে পাকিস্তনের বিপক্ষে সিরিজে রয়েছেন তিনি। শনিবার দ্বিতীয় ওয়ানডেতে তাকে বিশ্রাম দিয়েছিল দল। তার পরিবর্তে খেলেছেন ডেভিড উইলি। পাকিস্তানের বিপক্ষে ৭৩৪ রানের ম্যাচে উইলি ৫৭ রানে নেন ২ উইকেট। তার দারুণ বোলিংয়ে শেষ দিকে ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে নিয়ে জয়ের মুখ দেখে ইংল্যান্ড। অধিনায়ক মরগ্যান তার পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট, 'আমি মনে করি ও দারুণ বল করেছে। বিশেষ করে মধ্যভাগে। বলের ওপর দারুণ নিয়ন্ত্রণ ছিল এবং সুইং করাচ্ছিল।'

বর্তমান সময়ে ইংলিশ স্কোয়াডে রয়েছেন ৬ পেসার। তারা হলেন, ডেভিড উইলি, জাফরা আর্চার, লিয়াম পস্ন্যাঙ্কেট, ক্রিস ওকস, ক্রিস জর্ডান ও টম কুরান। যেখানে উইলি, পস্ন্যাঙ্কেট ও ওকস সব থেকে অভিজ্ঞ। বিশ্বকাপ স্কোয়াডে তারা যে থাকছেন সেটা বলায় যায়। বাকিদের সবার সুযোগ আছে জায়গা পাবার। এজন্য নিজেরাই এখন নিজেদের সব থেকে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী। এ ব্যাপারে মরগান বলেন, 'তারা প্রত্যেকে একজন অপরজনের প্রতিদ্বন্দ্বী। শেষ দুই-তিন বছর আগে আমাদের ব্যাটিং এমনটাই ছিল। শেষ চার বছরে ডেভিড উইলি ও লিয়াম পস্নাঙ্কেট চাপের মধ্যে ভালো ক্রিকেট খেলেছে। তাদের কাছ থেকে যদি আমরা আরও চাইতাম তাহলে তারা আরও দিতে প্রস্তত ছিল। তারা হয়তো সেভাবে প্রশংসিত হন না। কিন্তু তাদের যে দায়িত্বটা দেওয়া হয় তারা সেটা ভালোভাবেই পালন করে।'

আগামী ৩০ মে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে দ্বাদশ বিশ্বকাপ অভিযান শুরু হবে ইংল্যান্ডের। তার আগে দল নির্বাচন নিয়ে বেশ ঝামেলায়ই পড়েছে বিশ্বকাপের আয়োজক দেশটি।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে