logo
বুধবার ১৯ জুন, ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ২৪ মে ২০১৯, ০০:০০  

সিপিএলে দল পেয়ে আফিফের উচ্ছ্বাস

সিপিএলে সুযোগ পেয়ে খুব ভালো লাগছে। আশা করি ভালো খেলতে পারব। বিপিএল ভালো গেছে। বিদেশি লিগে এবারই প্রথম। চাইব যে প্রত্যাশায় আমাকে নেয়া হচ্ছে সেটি যেন পূরণ করতে পারি

সিপিএলে দল পেয়ে আফিফের উচ্ছ্বাস
একমাত্র বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসাবে ক্যারিবিয়ান লিগ মাতাবেন আফিফ হাসান ধ্রম্নব -ফাইল ফটো
ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) প্রথমবারের মতো দল পেলেন বাংলাদেশের আফিফ হাসান ধ্রম্নব। বুধবার লন্ডনে অনুষ্ঠিত এ টুর্নামেন্টের সপ্তম আসরের নিলামে ১৯ বছরের এ তরুণ অলরাউন্ডারকে দলে টেনেছে সেন্ট কিটস এন্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) দল পাওয়ার উচ্ছ্বাস চেপে রাখতে পারেননি আফিফ হোসেন ধ্রম্নব। সঙ্গে সঙ্গেই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে জানিয়েছেন সুখবর। কমেন্টবক্স ভরে উঠেছে অভিনন্দন বার্তায়।

আগামী ৪ সেপ্টেম্বর শুরু হবে সিপিএলের সপ্তম আসর। শেষ হবে ১২ অক্টোবর। বাংলাদেশ সময় বুধবার দিবাগত রাতে হয় পেস্নয়ার্স ড্রাফট। এবারের সিপিএলের নিলামে ১৮ জন বাংলাদেশি ক্রিকেটার নাম লিখিয়েছিল। কিন্তু তাদের মধ্যে থেকে বুধবার জায়গা পেয়েছেন শুধু অলরাউন্ডার আফিফ হাসান ধ্রম্নব। ১৩তম রাউন্ডে তাকে দলে নেয় সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস। এবার সিপিএলে খেলতে যাওয়া একমাত্র বাংলাদেশি আফিফ। সবচেয়ে কম বয়সী হিসেবে বিদেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলতে যাওয়া বাংলাদেশিও হবেন তিনি। সিপিএলে সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস দলে আফিফ সঙ্গী পাবেন কার্লোস ব্র্যাথওয়েট, এভিন লুইস, লরি ইভানসের মতো ক্রিকেটারদের।

আফিফ বলেন, 'সিপিএলে সুযোগ পেয়ে খুব ভালো লাগছে। আশা করি ভালো খেলতে পারব। বিপিএল ভালো গেছে। বিদেশি লিগে এবারই প্রথম। চাইব যে প্রত্যাশায় আমাকে নেয়া হচ্ছে সেটি যেন পূরণ করতে পারি।'

বোলিং দিয়ে বিপিএলের মঞ্চে আবির্ভাবেই আলো ছড়ানো আফিফ হোসেন ধ্রম্নব গত কয়েক মৌসুমে দারুণ ব্যাটিং করে যাচ্ছেন। গত আসরে এ তরুণ বেশ কয়েকটি ম্যাচেই গড়ে দেন সিলেট সিক্সার্সের জয়ের ভিত।

ডেভিড ওয়ার্নার, জেসন রয়, নিকোলাস পুরানদের সঙ্গে জুটি গড়ে খেলার পথে রেখেছেন সাবলীলতার ছাপ। ধারাবাহিকতার প্রতিফলন ঘটিয়ে তিন নম্বরে অপরিহার্য হয়ে ওঠা আফিফ ছোট ছোট কার্যকরী ইনিংসে রাখেন অবদান। ১২ ম্যাচে ২০.৬৬ গড় এবং ১২৪.০০ স্ট্রাইকরেটে ২৪৮ রান করেন। এখন পর্যন্ত মোট ৩০ টি২০ ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে এ অলরাউন্ডারের, যেখানে তিনি ২১.২০ গড় এবং ১২৩.২৪ স্ট্রাইকরেটে সর্বমোট ৫০৯ রান সংগ্রহ করেছেন। রয়েছে ২টি ফিফটি। আর বল হাতে উইকেট ১৫টি।

সিপিএলে এর আগে দল পেয়েছিলেন সাকিব আল হাসান, মাহমুদউলস্নাহ রিয়াদ, তামিম ইকবাল ও মেহেদী হাসান মিরাজ। সাকিবের সুযোগ হয়েছিল বার্বাডোস ট্রায়ডেন্টস ও জ্যামাইকা তালাওয়াহসের হয়ে খেলার। সাকিব তার টি২০ ক্যারিয়ারের সেরা স্পেলও সিপিএল ২০১৩ তে অর্জন করেছিলেন। গতবার সিপিএলে সুযোগ পেয়েও শেষ মুহূর্তে নাম প্রত্যাহার করে ফেলেন সাকিব। মাহমুদউলস্নাহ রিয়াদও জাতীয় দলের খেলা থাকায় পুরো আসর খেলতে পারেননি।

সিপিএলের এবারের পেস্নয়ার ড্রাফট অবাক করেছে অনেককেই। বিশ্বের অনেক তারকা ক্রিকেটারের প্রতি আগ্রহ দেখায়নি ফ্র্যাঞ্চাইজিরা। সাকিব আল হাসান, রশিদ খান, জোফরা আর্চার, ক্রিস লিনদের মতো তারকা ক্রিকেটার নেই কোনো দলে। তবে এলেক্স হেলস, লাসিথ মালিঙ্গা ইশুরু উদানা ও শাদাব খান, ফাওয়াদ আহমেদ, শোয়েব মালিক, আসিফ আলী, থিসারা পেরেরা ও কলিন মানরোদের ঠিকই টেনে নিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে