logo
শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ২৪ মে ২০১৯, ০০:০০  

দশ ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলবে বাংলাদেশ!

লম্বা ব্যাটিং লাইনআপ নিয়ে খেলার চেষ্টা করছি। সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি যাতে কেবল একজন বোলার থাকে যে ব্যাটিংয়ে অত পারদর্শী নয়। আমার মনে হয় এটা বড় রান করতে সাহায্য করবে। যখন অনেক বড় রান তাড়া করতে হবে তখন শেষ দিকে তিন-চার ওভারে অনেক উইকেট পড়তে পারে -স্টিভ রোডস

দশ ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলবে বাংলাদেশ!
ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে উইকেট হবে ব্যাটিংবান্ধব। যেখানে রানের বন্যা বইবে। আগে ব্যাট করা দল চাইবে স্কোর যত বড় করা যায়। তাইতো পরে ব্যাট করা দলকে জিততে নিতে হবে কঠিন চ্যালেঞ্জ। ব্যাপারগুলো এরইমধ্যে আমলে নিয়েছেন বাংলাদেশ কোচ স্টিভ রোডস। শুধু তাই নয়, ইতিবাচক ফলাফলের বিশ্বকাপে দশ ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলার পরিকল্পনাও করছেন তিনি।

বিশ্বকাপের আগে লেস্টারে তিন দিনের ক্যাম্প করেছে বাংলাদেশ দল। বুধবারই ছিল সেই ক্যাম্পের শেষদিন। কিছুটা ঢিমেতালে চলা এই ক্যাম্পের পর দল যাচ্ছেন কার্ডিফে। সেখানেই আইসিসির অতিথি হয়ে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ মিশন। ২৬ ও ২৮ মে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে পাকিস্তান ও ভারতের সঙ্গে খেলবে বাংলাদেশ। তার আগে কোচ রোডস জানালেন ইংল্যান্ডের উইকেটের মেজাজ মর্জি খুব ভালো বুঝে নিয়েছেন তারা। এখানে জিততে হলে করতে হবে বড় রান কিংবা তাড়া করতে হবে বিশাল কোন চ্যালেঞ্জ।

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াডের দিকে তাকালে দেখা যাবে মুস্তাফিজুর রহমান, আবু জায়েদ রাহী ও রুবেল হোসেন ছাড়া সবাই ব্যাটিংয়ে বেশ দক্ষ। কোচ স্টিভ রোডস চাইছেন একাদশ এমনভাবে সাজাতে যেখানে দশজন ব্যাটসম্যান ব্যাটিং করতে পারেন, 'লম্বা ব্যাটিং লাইনআপ নিয়ে খেলার চেষ্টা করছি। সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি যাতে কেবল একজন বোলার থাকে যে ব্যাটিংয়ে অত পারদর্শী নয়। আমার মনে হয় এটা বড় রান করতে সাহায্য করবে। যখন অনেক বড় রান তাড়া করতে হবে তখন শেষ দিকে তিন-চার ওভারে অনেক উইকেট পড়তে পারে।'

ইংল্যান্ডের উইকেট বোলারদের জন্য কঠিন হবে। বোলারদের বধ্যভূমিতে তাই দলের ব্যাটসম্যানদের উপর বেজায় আস্থা কোচের। এ সুযোগ নিয়েই রোডস চাইছেন স্কোর যতটা সম্ভব বড় করতে, 'এখানে উইকেট খুব ভালো। আউটফিল্ডও খুব গতিময়, বল করা তাই খুব কঠিন বিশেষ করে পাওয়ার পেস্নর সময়। কাজেই আমরাও বড় সংগ্রহ গড়তে পারব, সেটা বিস্ময়কর হবে না। এমন পরিবেশে আগে খেলিনি বলেই বড় স্কোর হতো। গত এক বছর ধরে আমরা প্রচুর খাটছি। ওয়ানডেতে বাংলাদেশ এখন অনেক এগিয়ে গেছে। আশা করছি এভাবে এটা ধরা রাখা যাবে।'

বড় রান তাড়ায় লম্বা ব্যাটিং লাইনআপে আস্থা রাখতে চাইছেন রোডস। সম্প্রতি ডেথ বোলিংয়ে সাইফুদ্দিন দারুণ করায় এখন একজন বাড়তি ব্যাটসম্যান নিয়ে নামতে পারছে বাংলাদেশ। পেস অলরাউন্ডার সাইফুদ্দিন একই সঙ্গে সামলাচ্ছেন তৃতীয় পেসারের দায়িত্ব। এমনকি মাশরাফির সঙ্গে ইনিংসের শুরু আর মুস্তাফিজের সঙ্গে শেষটায় রাখছেন অবদান। এবারের বিশ্বকাপের একাদশ মোটামুটি ঠিকই করে ফেলেছেন রোডস।

সদ্যই শেষ হওয়া ত্রিদেশীয় সিরিজে দারুণ ব্যাটিং পারফর্ম করেছে বাংলাদেশ। বিশ্বকাপের মূল লড়াইয়ের যা স্টিভ রোডসকে দিচ্ছে ভরসা। ঝড়ো ব্যাটিং করতে পারেন সাব্বির। শেষদিকে মাহমুদউলস্নাহ-মোসাদ্দেকও যে দলের হাল ধরতে পারেন। মিরাজ, মিথুন, সাইফুদ্দিনও কম যান না। সবমিলিয়ে লম্বা ব্যাটিং লাইনআপে এবারের বিশ্বকাপে আস্থা মাশরাফিদের গুরুর, 'তেড়েফুঁড়ে মারার সক্ষমতা আছে সাব্বিরের। শেষ ১০ ওভারে প্রচুর রান বাড়াতে পারে সে। যদি ওভারপ্রতি ৭ করে দরকার হয় তাহলে তার বোঝার ক্ষমতা আছে যে কাজটা তাকে শেষ করতে হবে। একই কথা খাটে মাহমুদউলস্নাহর বেলায়। মোসাদ্দেক কি করতে পারে আপনারা দেখেছেন। এছাড়া মিরাজ, মিথুন, সাইফুদ্দিনকে আমরা শেষ পর্যন্ত ব্যাট করতে দেখতে চাই। পাঁচ, ছয়, সাত, আট, নয় এমন পজিশনে তারা খেলবে। মাশরাফিও মারতে পারে।'

আগামী ২ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন শুরু হচ্ছে। তার আগে আগামী ২৬ ও ২৮ মে পাকিস্তান ও ভারতের বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে টিম টাইগার্স।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে