logo
বুধবার ১৯ জুন, ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ২৪ মে ২০১৯, ০০:০০  

কোহলিকে দলে নেবেন মাশরাফি!

দিস ম্যান, কোহলি, আমি তাকে নেবো। ডানদিকে খানিক দূরেই বসে থাকা কোহলির দিকে হাত উঁচিয়ে বলেন মাশরাফি। যে কোনো প্রতিপক্ষকে হারানোর আত্মবিশ্বাস আমরা রাখি। তবে মুল বিষয়টা হল শুরুটা ভালো করতে হবে

কোহলিকে দলে নেবেন মাশরাফি!
আর মাত্র পাঁচ দিন পর মাঠে গড়াবে ক্রিকেট বিশ্বকাপ। ক্রিকেটের এই মেগা আসরের প্রস্তুতির মহড়ায় অংশগ্রহণকারী ১০ দেশের অধিনায়কের সঙ্গে টাইগার দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাও -বিসিবি
ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস বিশ্বকাপে অংশ নেবে দশ দল। যদি সুযোগ থাকে, বাকি নয় প্রতিপক্ষের স্কোয়াড থেকে কোন একজন খেলোয়াড়কে বেছে নেবে? এমন প্রশ্নে খুব বেশি না ভেবে হাসিমুখেই বিরাট কোহলিকে দলে টানার কথা বললেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। সঙ্গে জানালেন, এখন যে কোনো প্রতিপক্ষেকে হারানোর আত্মবিশ্বাস রাখে বাংলাদেশ।

দেখতে দেখতে বিশ্বকাপ আরও নিকটে চলে এলো। অংশ নিতে যাওয়া দশ দলের অধিনায়কদের নিয়ে লন্ডনে বড়সড় এক আড্ডারই আয়োজন করেছিল আইসিসি। বৃহস্পতিবারের সেই আড্ডায় নিজ দল, প্রতিপক্ষ, টুর্নামেন্টে লক্ষ্যসহ আরও অনেক বিষয় নিয়েই কথা বললেন অধিনায়করা। সেখানে দর্শকসারি থেকে ছুটে আসা এক প্রশ্নে কোহলিকে নিয়ে মুগ্ধতা ঝরল মাশরাফির কণ্ঠে।

কোনো একজনকে বেছে নেবেন? প্রশ্নটা ছিল সব অধিনায়কের জন্যই। প্রথম উত্তর দেন ইয়ন মরগান। কাউকে নয়, নিজ দলের প্রতিই পূর্ণ আস্থা রাখবেন। এমন কূটনৈতিক উত্তরই দিলেন স্বাগতিক অধিনায়ক মরগান।

তার পাশে বসা কোহলিও শুরুতে কারও নাম বলতে চাইলেন না। তবে ঘুরে ফিরে দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ফ্যাফ ডু পেস্নসিসকে দলে টানার কথা বললেন ভারত অধিনায়ক। ডু পেস্নসিসকে ভালো বন্ধুও বলেন কোহলি।

পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার, আফগানিস্তান অধিনায়ক গুলবাদিন নাইব ঘুরে প্রশ্ন এসে দাঁড়ায় মাশরাফির কাছে। উত্তর দিতে বেশিক্ষণ সময় নেননি টাইগার দলপতি।

'দিস ম্যান, কোহলি, আমি তাকে নেবো।' ডানদিকে খানিক দূরেই বসে থাকা কোহলির দিকে হাত উঁচিয়ে বলেন মাশরাফি।

নিজ দল নিয়েও আশাবাদ ঝরেছে মাশরাফির কণ্ঠে। জুনিয়র-সিনিয়র মিলে একটা ভালো কম্বিনেশন আছে দলে, শেষ সিরিজ আয়ারল্যান্ডে তারা ভালো করেছে। বিশ্বকাপে ভালোটা ধরে রাখতে চান।

বিশ্ব মঞ্চে ভালো করার জন্য শুরুটাকে গুরুত্ব দিচ্ছেন মাশরাফি। টুর্নামেন্টের স্টার্টিংটা আসল, অনেকবার বলা এই কথাটাই বললেন আবারও। জানালেন, পরিকল্পনায় নতুন কিছু নেই। হুট করে বিশেষ কিছু করতে চাওয়ার কিছু নেই বলে যেন রণকৌশল আড়ালেই রাখতে চাইলেন টাইগার নেতা। আগের মতোই, যেটা আছে ওই পরিকল্পনাই মাঠে পারফর্ম করতে চেষ্টা করবে বাংলাদেশ, জানালেন এমন কথা।

বড় টুর্নামেন্ট। খেলতে হবে অংশ নেয়া বাকি নয় প্রতিপক্ষের বিপক্ষেই। প্রত্যেকেই কঠিন প্রতিপক্ষ। শক্তিমত্তায় ছাড় দেয়ার নয় কেউই। মাশরাফিও সেটার মুখোমুখি হতে আত্মবিশ্বাসী। লাল-সবুজের অধিনায়কের ভাষায়, 'যে কোনো প্রতিপক্ষকে হারানোর আত্মবিশ্বাস আমরা রাখি। তবে মুল বিষয়টা হল শুরুটা ভালো করতে হবে।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে