logo
বুধবার ১৯ জুন, ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১৩ জুন ২০১৯, ০০:০০  

ট্রেন্ট ব্রিজে যে দ্বৈরথে ম্যাচের ভাগ্য

কোহলি বনাম উইলিয়ামসন

দুই অধিনায়কই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের মতো বড় মঞ্চে দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত অপরাজিত থেকে কোহলি এবং উইলিয়ামসন দুজনই আজ উজ্জীবিত থাকবেন। আসরে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর অধিনায়কদের মধ্যে সবচেয়ে প্রভাবশালী বিরাট কোহলি। তার আত্মবিশ্বাসী নেতৃত্বে তৃতীয়বারের মতো বিশ্বকাপজয়ের স্বপ্ন দেখছে টিম ইন্ডিয়া। ব্যাট হাতে একের পর এক রেকর্ড গড়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন এক অনন্য উচ্চতায়। দলের কান্ডারি হয়ে এবার সময় এসেছে শিরোপা জেতানোর। তার নেতৃত্বে এবারের বিশ্বকাপে দুই জয়ে টিম ইন্ডিয়া এখন উড়ছে।

অন্যদিকে, ব্যাটসম্যান, ফিল্ডার, অধিনায়ক ও ব্যক্তিত্ব হিসেবে কেন উইলিয়ামসন যেকোনো দলের জন্য স্বপ্নের ক্রিকেটার। টেকনিকের দিক দিয়ে তার ব্যাটিং প্রায় নিখুঁত। একটু দেরি করে ব্যাট হাঁকান। সোজা ব্যাটে যেমন অসামান্য শট খেলতে পারেন, তেমন মাঠের যেকোনো দিকে বল পাঠাতে সক্ষম। স্পিন যেভাবে সামলাতে পারেন, পেস বলের মোকাবিলাতেও সমান পারদর্শী। ব্যাট হাতে ছাড়িয়ে গেছেন আরেক কিংবদন্তি মার্টিন ক্রোকেও। দলের অধিনায়ক, সেরা ব্যাটসম্যান, সিনিয়র সদস্য, অধিকন্তু ফিল্ডিংয়ে তিনিই সেরা। তাই আত্মবিশ্বাসী কোহলির সামনে উইলিয়ামসনের দক্ষ নেতৃত্বও চ্যালেঞ্জ হয়ে থাকল।

বুমরাহ বনাম বোল্ট

এবারের বিশ্বকাপে ভয় দেখাচ্ছে পেসাররা। আর নামটা যদি হয় জাসপ্রিত বুমরাহ তাহলে তো প্রতিপক্ষের কাপুঁনি ধরার জোগাড়। তার বোলিং অ্যাকশন একেবারেই আলাদা। ওভারের পর ওভার দারুণ লাইন ও লেন্থ বজায় রেখে বল করতে পারেন তিনি। নির্ভুল ইয়র্কার দেয়ার অসামান্য দক্ষতা আছে। এবারের আসরের প্রথম ম্যাচে প্রোটিয়াদের ব্যাটিং লাইন-আপ একাই গুঁড়িয়ে দিয়েছেন এই বাঁ-হাতি পেসার। অজিদের বিপক্ষেও ছিলেন প্রাণবন্ত। ছয় বছর আগে ভারতের সাবেক এবং আইপিএল দল মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের কোচ জন রাইটের চোখে পড়েন বুমরাহ। এরপর এ ক'বছরে বিশ্বের সেরা বোলার হয়ে উঠেছেন। এখন আইসিসি ওডিআই বোলিং র?্যাংকিংয়ে একনম্বরে তিনি।

অপরদিকে, গত আসরে অস্ট্রেলিয়ার পেসার স্টার্কের সঙ্গে পালস্না দিয়ে সমান ২২ উইকেট তুলে নিয়েছিলেন ট্রেন্ট বোল্ট। কিউইদের সেবার ফাইনালে তোলার পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন বাঁ-হাতি এই পেসার। দানবীয় গতি আর বোলিং বিচিত্রতায় যেকোনো ব্যাটসম্যানকে পরাস্ত করার ক্ষমতা রাখেন বোল্ট। বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচেও একাই ধসিয়ে দিয়েছেন ভারতের ব্যাটিং লাইন-আপ। তাই আজও আলাদাভাবে নজর থাকবে এই গতিদানবের ওপর।

রোহিত বনাম রস টেইলর

আসরের প্রথম দুই ম্যাচে এক সেঞ্চুরি ও এক হাফ সেঞ্চুরিতে স্বমহিমায় উজ্জ্বল রোহিত শর্মা। প্রতিপক্ষের বোলারদেরকে অনায়াসে নাস্তানাবুদ করার ক্ষমতা থাকার জেরে ক্রিকেট ভক্তরা রোহিত শর্মার নাম দিয়েছে 'হিটম্যান' ও 'ছক্কা রোহিত'। উদ্বোধনী জুটিতে দলের ভালো শুরু এনে দিতে রোহিতের জুড়ি নেই। বিশ্বকাপের মতো বড় মঞ্চে তার ব্যাট হাসে সবচেয়ে বেশি। এবারের আসরে প্রথম ম্যাচে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে কোহলি, ধাওয়ানদের আসা যাওয়ার মিছিলে একপ্রান্তে দলকে আগলে রেখেছেন তারকা এই খেলোয়াড়। দুর্দান্ত এক শতকে নিজে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছেন। ব্যাটের স্পর্শে প্রতিনিয়ত একের পর এক রেকর্ড ভাঙাগড়ার খেলায় মেতে উঠেছেন রোহিত। ধাওয়ান না থাকায় আজ তার ব্যাটিংয়ের দিকে তাকিয়ে গোটা ভারত।

এ ছাড়া, এবারের আসরের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানদের একজন রস টেইলর। যতক্ষণ ২২ গজের বৃত্তে থাকেন ঠান্ডা মাথায় প্রতিপক্ষের বোলারদের ঘাম ছুটিয়ে ছাড়েন। দলের বিপদের মুহূর্তে কেন উইলিয়ামসনদের সবচেয়ে বড় ভরসা তিনিই। এবারের আসরে ব্যাট হাতেও এখন পর্যন্ত সফল তিনি। তাই আজ তার পারফরম্যান্স বিরাট কোহলিদের বিপক্ষে ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিতে পারে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে