logo
বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই, ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ০৫ জুলাই ২০১৯, ০০:০০  

শেষ ভালোর আশায় টাইগাররা

অবশ্যই আমরা সবাই খুব হতাশ। অনেক স্বপ্ন নিয়ে আমরা এসেছিলাম। ছিটকে পড়ে সবার মন খারাপ। এটাই স্বাভাবিক। আমাদের স্বপ্ন ছিল অন্তত সেমিফাইনাল। কিন্তু আমরা পারিনি। এরপরও আমাদের সামনে তাকাতে হবে। শেষ কয়েকটি দেখায় আমরা পাকিস্তানকে হারিয়েছি। গত এশিয়া কাপেও জিতেছিলাম। আশা করি এবার লর্ডসে ওদের হারাতে পারব -মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন

ওভালে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে দাপট দেখিয়ে জিতেছিল বাংলাদেশ। সেখানেই নিউজিল্যান্ডের কাছে লড়াই করে হার। এরপর কার্ডিফ, ব্রিস্টল, টন্টন, নটিংহাম ও সাউদাম্পটন হয়ে বার্মিংহাম পর্যন্ত টিকে ছিল তাদের শেষ চারের স্বপ্ন। কিন্তু পুরানো শহরে ফেরার আগেই স্বপ্নটা ভেঙে চুরমার। ভারতের কাছে হেরে স্বপ্ন ভেঙেছে তাদের। বিশ্বকাপে শেষ চারের লড়াই থেকে ছিটকে পড়েছে বাংলাদেশ। তবে টুর্নামেন্ট শেষ হয়ে যায়নি এখনো। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে দল তাকিয়ে শেষ ভালোর স্বস্তির আশায়।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের শেষ ম্যাচ শুক্রবার পাকিস্তানের বিপক্ষে। ক্রিকেট তীর্থ লর্ডসে যেটি হবে বাংলাদেশের প্রথম ওয়ানডে। পাকিস্তানের বিপক্ষে সেই ম্যাচ জিততে পারলে সুযোগ থাকবে পয়েন্ট টেবিলের পাঁচে থেকে বিশ্বকাপ শেষ করার। নিয়মরক্ষার ম্যাচ হলেও পাকিস্তানকে হারিয়ে বিশ্বকাপ শেষ করতে চায় বাংলাদেশ। বার্মিংহাম থেকে লন্ডনের উদ্দেশে রওনা দেয়ার আগে সাংবাদিকদের কাছে আশার কথা শোনালেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

বুধবার দুপুরে বার্মিংহাম থেকে শেষ ম্যাচের শহর লন্ডনে পৌঁছায় দল। প্রায় পৌনে ৪ ঘণ্টার বাস যাত্রা শেষে স্থানীয় সময় বিকেল ৪টা ৫০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত ৯টা ৫০ মিনিটে) লন্ডনে টিম হোটেলে চেক ইন করে টাইগাররা। বুধবার আর নির্ধারিত সূচি ছিল না দলের। নিজেদের শেষ ম্যাচের আগে বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা থেকেই অনুশীলন শুরু করে মাশরাফি-সাকিব-তামিম-মুশফিকরা।

বোলিং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের আগে আশার কথা শুনিয়েছেন। সংবাদমাধ্যমকে সাইফউদ্দিন বলেন, 'অবশ্যই আমরা সবাই খুব হতাশ। অনেক স্বপ্ন নিয়ে আমরা এসেছিলাম। ছিটকে পড়ে সবার মন খারাপ। এটাই স্বাভাবিক। আমাদের স্বপ্ন ছিল অন্তত সেমিফাইনাল। কিন্তু আমরা পারিনি। এরপরও আমাদের সামনে তাকাতে হবে। 'শেষ ভালো যার, সব ভালো তার'- এটা কথায় আছে। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটি আমরা জয়ের জন্যই নামব। জিততে পারলে অন্তত খুশি মনে শেষ করতে পারব।'

সবশেষ চারটি দেখায় পাকিস্তানকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। সবশেষ গত সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপে পাকিস্তানকে বিদায় করেই ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশ। সেই ম্যাচ থেকে প্রেরণা নিচ্ছেন সাইফ, 'শেষ কয়েকটি দেখায় আমরা পাকিস্তানকে হারিয়েছি। গত এশিয়া কাপেও জিতেছিলাম। আশা করি এবার লর্ডসে ওদের হারাতে পারব।'

মাশরাফি বিন মর্তুজার হতাশাটা মনে হলো আরও বেশি। বিষণ্নতার ছাপ অধিনায়কের চেহারা ও কণ্ঠে। বার্মিংহাম ছেড়ে যাওয়ার আগে তবু জানান শেষ ম্যাচ নিয়ে আশার কথা, 'টুর্নামেন্টজুড়ে আমরা ভালো খেলেছি। তবে ছোট ছোট কিছু জিনিস ঠিক করতে পারিনি বলে ছিটকে পড়েছি। হতাশাটা সেখানেই যে আমাদের হাতে যা ছিল, সবটুকু আমরা করতে পারিনি। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে যেমন, তেমনি আগের হেরে যাওয়া ম্যাচগুলোতেও কিছু দিক একটু-এদিক সেদিক হলে, কয়েকটি মুহূর্ত নিজেদের পক্ষে নিতে পারলে আমরা জিততাম। হয়তো আজ সেমিতে থাকতাম।'

'টুর্নামেন্টের নিয়মে তবু আরেকটি ম্যাচ খেলতে হবে। পঞ্চম স্থানে থেকে শেষ করতে পারলে সেটা কত বড় প্রাপ্তি হবে জানি না। তবে প্রতিটি ম্যাচ আমরা জয়ের জন্য নামি, এই ম্যাচেও সেটি চাইব।'

জয় দিয়ে শেষ করার তাড়না স্টিভ রোডসের কণ্ঠেও। দলকে পেশাদারিত্ব নিয়ে মাঠে লড়াই করতে দেখতে চান কোচ, 'শুক্রবার পাকিস্তানের ম্যাচের জন্য মুখিয়ে আছি আমি। এশিয়া কাপে আমরা ওদেরকে হারিয়েছি। ওরা অবশ্যই চাইবে এবার অন্যরকম কিছু করতে। তবে সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সে আমরা দেখিয়েছি, আমাদেরকে হারানো সহজ হবে না। আমাদের কাজও সহজ হবে না। গত কয়েকটি ম্যাচে তারা ফর্ম ফিরে পেয়েছে। তবে আমরা আত্মবিশ্বাসী। আগের ম্যাচগুলোর আক্ষেপ আমরা পাকিস্তান ম্যাচে রাখতে চাই না। আশা করি ছেলেরা পেশাদারিত্ব নিয়ে মাঠে নামবে এবং কঠিন লড়াই করবে। পাকিস্তানের বিপক্ষে পয়েন্ট পেতে মরিয়া থাকব আমরা।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে