logo
রোববার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬

  ক্রীড়া ডেস্ক   ২০ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

চেলসির ড্র, পিএসজির হার

চেলসির ড্র, পিএসজির হার
ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে রোববার চেলসির বিপক্ষে গোল করার পর লেস্টার সিটির খেলোয়াড়দের উচ্ছ্বাস - ওয়েবসাইট
ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে দুই ম্যাচে মাঠে নামলেও এখনো জয়ের দেখা পায়নি চেলসি। নিজেদের প্রথম ম্যাচে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে বড় লজ্জার পর রোববার রাতে বস্নুজদের রুখে দিয়েছে লেস্টার সিটি। আর তাতে সাবেক তারকা মিডফিল্ডার ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ফেরাটা সুখের হলো না। লেস্টার সিটি ১-১ গোলের ড্রয়ে রুখে দিয়েছে তার দল চেলসিকে। অপরদিকে ফরাসি লিগে আবারো হেরেছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি। নেইমারের অনুপস্থিতিতে জয়ের দেখা পায়নি ফরাসি জায়ান্টরা। লিগ ওয়ানে রেনের কাছে ২-১ গোলে হেরেছে পিএসজি।

রোববার রাতে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে লেস্টার সিটির বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করে চেলসি। অবশ্য ঘরের মাঠে এদিন এগিয়ে যেতে খুব একটা সময় লাগেনি স্বাগতিকদের। সপ্তম মিনিটেই ডি-বক্সের ঠিক বাইরে অসতর্ক এনডিডির কাছ থেকে বল কেড়ে নেন ম্যাসন মাউন্ট। দ্রম্নত ডি-বক্সে ঢুকে নিচু শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন তরুণ এ ফরোয়ার্ড।

বিরতির পর অবশ্য গোল শোধে মরিয়া হয়ে ওঠে লেস্টার। প্রচেষ্টায় অতিথিরা সফলও হয় ম্যাচের ৬৭তম মিনিটে। কর্নার থেকে হেড করে কাছের পোস্ট দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন এনডিডি। এরপর ম্যাচের বাকি সময়ও দুর্দান্ত খেলে লেস্টার। কিন্তু ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় চেলসির জালে আর বল জড়াতে পারেনি দলটি। যে কারণে ১-১ গোলের ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাদের।

এদিকে চোট থেকে পুরোপুরি সুস্থ না হয়ে ওঠায় রোববারও পিএসজির একাদশে ছিলেন না নেইমার। তবে শুরুর দিকে তার অভাব বুঝতে দেননি এডিসন কাভানি। ১৪ মিনিটে ডি মারিয়ার ক্রসে তার হেড পোস্টে লেগে ফিরে না এলে লিড নিতে পারত পিএসজিই। ৩৬ মিনিটে আর ভুল করেননি উরুগুইয়ের এই ফরোয়ারার্ড। রেনে অধিনায়ক ড্যামিয়েন সিলভার ভুল ব্যাকপাসে বল পেয়েছিলেন কাভানি। ডান পায়ের বুদ্ধিদীপ্ত শটে অনায়াসেই গোলরক্ষককে বোকা বানিয়ে পিএসজিকে এগিয়ে দেন তিনি।

কিন্তু এর তিন মিনিট পরই কিলিয়ান এমবাপে পারতেন ব্যবধান দ্বিগুন করতে। কিন্তু তিনি নেন লক্ষভ্রষ্ট শট। সে সুযোগে প্রথমার্ধের বিরতির ঠিক আগে ম্যাচে সমতায় ফেরে রেনে। হামারি ট্রাওয়ের ক্রসে এমবে নিয়াংয়ের বাঁ পায়ের জোরালো শটে পরাস্ত হন আরেওলা। বিরতি থেকেই ফিরেই সবাইকে অবাক করে দিয়ে পিএসজির জালে বল জড়িয়ে দেন রেনের রোমাইন ক্যাসিলো (২-১)।

এডুয়ার্ডো ক্যামাভিঙ্গার ক্রসে রোমাইন ক্যাসিলোর হেড ঠেকাতে পারেননি আরেওলা। ৫৫ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোল পেতে পারতেন নিয়াং, তার শট বাঁচিয়ে দেন আরেওলা। ৬৩ মিনিটে জেরেমি গেলিনকেও হতাশ করেন তিনি। আর শেষ দিকে অবশ্য ম্যাচে ফেরার বেশ কয়েকটি সুযোগ পেয়েছিল পিএসজি। কিন্তু এমবাপে ও কাভানি দু'জনকেই রুখে দেন রেনের গোলরক্ষক সালিন। যে কারণে হারের স্বাদ নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় থমাস টুখেলের শিষ্যদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে