logo
বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

মাসাকাদজার বিদায়ী ম্যাচ রাঙাতে চায় জিম্বাবুয়ে

মাসাকাদজার বিদায়ী ম্যাচ রাঙাতে চায় জিম্বাবুয়ে
হ্যামিল্টন মাসাকাদজা
সুলতান মাহমুদ রিপন

ত্রিদেশীয় টি২০ সিরিজের টানা তিন ম্যাচ হেরে টুর্নামেন্ট থেকে আগেই ছিটকে পড়েছে জিম্বাবুয়ে। অপরদিকে দুই ম্যাচ জিতে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে আফগানিস্তান ও স্বাগতিক বাংলাদেশ। আর তাই আজকের ম্যাচটি হ্যামিল্টন মাসাকাদজার দলের জন্য হয়ে দাঁড়িয়েছে নিয়মরক্ষার এক ম্যাচ। তবে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়লেও মাসাকাদজার বিদায়ী ম্যাচটিকে রাঙানোর ইচ্ছা আছে জিম্বাবুয়ানদের। অপরদিকে ফাইনালের আগে শতভাগ জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চায় রশিদ খানের দল। এমন সমীকরণ সামনে রেখে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলতে নামবে জিম্বাবুয়ে।

বাংলাদেশেই আন্তর্জাতিক টি২০ ক্রিকেটের যাত্রা শুরু করেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। ২০০৬ সালে খুলনায় সেদিন বাংলাদেশেরও টি২০তে ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল। এক যুগেরও বেশি সময় পর সেই বাংলাদেশের মাটিতেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরে যাচ্ছেন মাসাকাদজা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার শুরুটা হয়েছিল জিম্বাবুয়ের স্বর্ণালি যুগের শেষ সময়ে। যখন বিদায় নিচ্ছেন তখন তার দেশের ক্রিকেট একেবারে ধ্বংসের পথে। বাংলাদেশে ত্রিদেশীয় সিরিজ দিয়ে আবারও নিজেদের শক্তি দেখাতে চেয়েছিলেন মাসাকাদজারা।

কিন্তু সে রকম কিছুই দেখাতে পারেনি তারা। বাংলাদেশের বিপক্ষে দুটি ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে একটি ম্যাচ খেলে সবগুলোতেই হেরেছে। ফাইনালের দৌড় থেকে বুধবার ছিটকে পড়েছে তারা। আর তাই আজ শেষ ম্যাচে জিততে পারলে সম্মান নিয়ে দেশে ফিরতে পারবেন জিম্বাবুয়ানরা। একই সঙ্গে মাসাকাদজাকেও জয় উপহার দিয়ে বিদায় দিতে পারবেন সতীর্থরা। কিন্তু টি২০ ক্রিকেটে এখনো আফগানিস্তানকে হারাতে না পারা জিম্বাবুয়েকে জিততে হলে প্রত্যাশার চেয়েও যে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। মাসাকাদজার ম্যাচে সেটাই করে দেখাতে চায় জিম্বাবুয়ে।

বিশেষ করে টি২০ ক্রিকেটে শক্তির বিচারে জিম্বাবুয়ের চেয়ে অনেক এগিয়ে আফগানিস্তান। এখন পর্যন্ত দুই দল মুখোমুখিতে আটটি টি২০ ম্যাচের সবগুলোতেই প্রভাব বিস্তার করে জিতেছে আফগানরা। বুধবার চট্টগ্রামে বাংলাদেশ জয় পাওয়ার সঙ্গে ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে যায় আফগানিস্তানেরও। নিয়ম রক্ষার ম্যাচে তাই ফেভারিট হিসেবেই মাঠে নামবে আফগানরা। এই সিরিজে স্বাগতিক বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একটি করে ম্যাচ খেলে দাপুটে জয় পেয়েছেন রশিদ খান-মোহাম্মদ নবিরা।

ক্যারিয়ারের শেষ সিরিজে মোটেও ভালো করতে পারছেন না মাসাকাদজা। জয় পায়নি তার দলও। ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচে জিততে পারলে কিছু স্বস্তি নিয়েই হয়তো বিদায় নিতে পারবেন

জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক। তিন ম্যাচে করেছেন ৬২ রান। বাংলাদেশের অতি চেনা এই ক্রিকেটারকে বিদায়ী সংবর্ধনাও দেবে বিসিবি। ক্যারিয়ারে বড় প্রাপ্তি না থাকলেও বিদায়বেলায় সন্তুষ্ট নন তিনি। আফগানিস্তানকে এই সিরিজে টানছেন নবি। দুই ম্যাচে তার রান সিরিজের সর্বোচ্চ ১২২। বোলিং আফগানদের মূল শক্তি। তবে আগের ম্যাচে মুজিবউর রহমান ও রশিদ খানদের পাত্তাই দেয়নি জিম্বাবুয়ে। দ্রম্নত কিছু উইকেট হারানোর কারণে বড় স্কোরের নাগাল পায়নি তারা। ফিল্ডিংটা হচ্ছে তাদের যাচ্ছেতাই। তিন বিভাগে জ্বলতে পারলে জিম্বাবুয়ে আজ প্রথম জয় পেলেও সেটাকে অঘটন বলা যাবে না। একই সঙ্গে মাসাকাদজাকেও ভালোভাবেই বিদায় দিতে পারবেন জিম্বাবুয়ানরা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে