logo
বৃহস্পতিবার ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ০৯ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০  

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ

বাংলাদেশের শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশন

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ মাঠে গড়াচ্ছে আজ থেকে। ভুটানের থিম্পুর চাংলিমিথান স্টেডিয়ামে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত বনাম নেপালের ম্যাচ দিয়ে উদ্বোধন হচ্ছে এবারের আসরটি। চাংলিমিথান স্টেডিয়ামে ম্যাচটি হবে বাংলাদেশ সময় দুপুর ৩টায়। এরপর সন্ধ্যা ৬টায় স্বাগতিক ভুটানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে সাফের শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশনে নামবে বর্তমান রানার্সআপ বাংলাদেশ।

সাফ অনূর্ধ্ব ১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের বিস্তৃতিটা খুব বেশি সময়ের নয়। মাত্র দুবছর আগে বাংলাদেশে শুরু হয়েছিল নারীদের বয়সভিত্তিক এ আসরটি। প্রথম আসরেই শিরোপা জিতে ইতিহাস গড়েছিল কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা। কোচের চেয়ারে আজো আছেন সেই ছোটনই। নিজ হাতে তিলে তিলে গড়ে তুলেছেন অনূর্ধ্ব ১৫ দলটিকে। বয়সের কারণে অতীত সাফল্যের কারিগর বেশির ভাগ ফুটবলারই এবারের দলে নেই। বর্তমান দলের ২৩ ফুটবলারের ১৪ জনই নতুন মুখ। তাই সাফের শিরোপা পুনরুদ্ধারের বড় চ্যালেঞ্জ কোচ ছোটনের সামনে। যেখানে প্রথমেই স্বাগতিক ভুটানকে প্রতিপক্ষ পেয়েছে বাংলাদেশ দল। পূর্বে সাফের মাত্র দুটি আসরই হয়েছে। দেখে নেয়া যাক সেখানে বাংলাদেশ-বনাম ভুটান লড়াইয়ের পরিসংখ্যানে কারা এগিয়ে। গত আসর, যেটি ২০১৮ সালে হয়েছিল। সেখানেও আয়োজক ছিল ভুটান। দল বেশি হওয়াতে সাফের দ্বিতীয় আসরটিতে দুটি গ্রম্নপে বিভক্ত হয়ে খেলেছে ৬টি দল। সেবার বাংলাদেশ খেলেছে গ্রম্নপ 'বি'তে। যেখানে তাদের সঙ্গী হয়েছিল নেপাল ও পাকিস্তান। অন্যদিকে গ্রম্নপ 'এ'তে ভারত ও শ্রীলংকার সঙ্গে ছিল ভুটান। স্বভাবতই গ্রম্নপ পর্বে দেখা হয়নি দু'দলের। 'এ' গ্রম্নপের রানার্সআপ হয়ে সেমিফাইনালে 'বি' গ্রম্নপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশকে পায় ভুটান। শেষ চারে বঙ্গকন্যাদের সামনে মাথা তুলেই দাঁড়াতে পারেনি তারা। ৫-০ গোলে ভুটানকে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালের টিকিট পায় বাংলাদেশ দল। যদিও ভারতের কাছে মাত্র ১-০ গোলের ব্যবধানে হেরে প্রথম আসরের মুকুটটা ছেড়ে আসতে হয়েছিল বর্তমান রানার্সআপ বাংলাদেশকে। প্রথম আসরটি হয়েছিল ২০১৭ সালে বাংলাদেশে। মাত্র ৪ দল অংশ নেয়ায় এবারের মতোই রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে হয়েছিল ওই আসরটি। বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, ভুটান প্রত্যেকেই একটি করে ম্যাচ খেলেছে একে অপরের সঙ্গে। গ্রম্নপ পর্বে ওই ম্যাচে ভুটানের বিপক্ষে ৩-০ গোলে জিতেছিল লাল-সবুজরা। তাই অতীত পরিসংখ্যানে বাংলাদেশই এগিয়ে ভুটান থেকে। যদিও দুবছর আগে নিজেদের ঘরে শিরোপা জয়ী দলটির বেশির ভাগ ফুটবলারই নেই এই দলে। কিন্তু কোচ ছোটনের কঠোর পরিশ্রমের ফসল এবারের সাফ দল। জেএফএ অনূর্ধ্ব ১৪ টুর্নামেন্ট থেকে বাছাইয়ের মাধ্যমে দীর্ঘদিন প্রশিক্ষণ দিয়ে সাফের জন্য তৈরি করা হয়েছে এই দলটিকে। দলের ৯ জনের এর আগে সাফে খেলার অভিজ্ঞতা আছে। ৭ জন খেলেছে সুব্রত কাপে। নতুন আর পুরাতনের মিশেলে গড়া এই দলটি নিয়ে সাফের শিরোপা পুনরুদ্ধারের প্রত্যাশা কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনের, 'এই মেয়েরা নিবিড় অনুশীলনের মধ্যেই ছিল। নতুন ও পুরাতনের মিশ্রণে হয়েছে দলটি। আশা করি তারা আমাদের হতাশ করবে না। আমাদের লক্ষ্য শিরোপা জেতা। টুর্নামেন্টের সব দলই ভালো। সবার ওপর শ্রদ্ধা রেখেই আমরা জয়ের জন্য খেলতে নামব।'

গত আসরে অল্পের জন্য শিরোপা ধরে রাখতে পারেনি বাংলাদেশ। হয়েছিল রানার্সআপ। তবে এ আসরে সেই হতাশা থেকে বের হয়ে আসার লক্ষ্য নিয়ে দলীয় অধিনায়ক সামসুন্নাহার জুনিয়র বলেন, 'গত আসরে ভালো খেলতে পারিনি। এবার আমাদের লক্ষ্য শিরোপা জেতা। সবাই দোয়া করবেন যেন ভালো খেলতে পারি।'

বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত, ভুটান ও নেপাল অংশ নিচ্ছে এবার। রাউন্ড রবিন লিগ শেষে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দুটি দল খেলবে ফাইনালে। ১৫ অক্টোবর হবে শিরোপা লড়াই।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে