logo
বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬

  ক্রীড়া ডেস্ক   ২৮ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০  

ওয়ার্নার ১০০, শ্রীলংকা ৯৯!

লংকানদের উড়িয়ে দিল অস্ট্রেলিয়া

লংকানদের উড়িয়ে দিল অস্ট্রেলিয়া
শ্রীলংকার বিপক্ষে রোববার প্রথম টি২০তে অপরাজিত সেঞ্চুরি করার পর উচ্ছ্বসিত অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার -ওয়েবসাইট
ঘরের মাঠে প্রত্যাবর্তনটা স্মরণীয় করে রাখলেন ডেভিড ওয়ার্নার। সেটিও আবার ৩৩তম জন্মদিনে। শ্রীলংকার বিপক্ষে রোববার প্রথম টি২০ ম্যাচটি ওয়ার্নারের জন্য অনেক দিক দিয়েই ছিল বড় উপলক্ষ। সেই উপলক্ষকে বাঁ-হাতি ওপেনার স্মরণীয় করে রাখলেন আন্তর্জাতিক টি২০-তে নিজের প্রথম সেঞ্চুরি করে। সঙ্গে অ্যারন ফিঞ্চ ও গেস্নন ম্যাক্সওয়েলের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে অস্ট্রেলিয়া পায় পাহাড়সম সংগ্রহ। বোলারদের দারুণ বোলিংয়ে এরপর ধরা দেয় রেকর্ড ব্যবধানের জয়। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি২০-তে শ্রীলংকাকে ১৩৪ রানে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

অ্যাডিলেডে এদিন টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ২৩৩ রান তোলে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে পুরো ওভার খেললেও ব্যাটিং ব্যর্থতায় ৯ উইকেট হারিয়ে মাত্র ৯৯ রান করতে সক্ষম হয় সফরকারী শ্রীলংকা। অপরাজিত ১০০ রানের ইনিংসের জন্য ম্যাচসেরা হয়েছেন ওয়ার্নার। রানের ব্যবধানে টি২০-তে এটি অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় জয়। গত বছর হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১০০ রানের জয় ছিল আগের রেকর্ড। অপরদিকে শ্রীলংকার এটি সব প্রতিপক্ষ মিলিয়েই সবচেয়ে বড় পরাজয়।

বল টেম্পারিংয়ের কারণে পাওয়া নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ করে কয়েক মাস আগে ক্রিকেটে ফিরলেও অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে এটিই ছিল ওয়ার্নারের প্রথম ম্যাচ। আর প্রত্যাবর্তনে বাজিমাত করলেন তিনি। ইনিংসের শেষ বলে সিঙ্গেল নিয়ে টি২০-তে অভিষেক সেঞ্চুরির স্বাদ নেন তিনি। আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে ৫৬ বলে ১০ চার ও ৪ ছয়ে ১০০ রান করে অপরাজিত থাকেন এই বাঁ-হাতি।

ওপেনিংয়ে নেমে অধিনায়ক ফিঞ্চের সঙ্গে ১০.৫ ওভারে ১২২ রানের জুটি গড়েন ওয়ার্নার। তাতে বড় সংগ্রহের ভিত পেয়ে যায় স্বাগতিকরা। ফিঞ্চ ৩৬ বলে ৮ চার ও ৩ ছয়ে করেন ৬৪ রান। এরপর গেস্নন ম্যাক্সওয়েলকে নিয়ে ৫২ বলে ১০৭ রানের আরেকটি দারুণ জুটি গড়েন ওয়ার্নার। দুইশ'র ওপরে স্ট্রাইক রেটে ২৮ বলে ৬২ রান করেন ম্যাক্সওয়েল। তার ইনিংসে ছিল ৭ চার ও ৩ ছয়। নুয়ান প্রদীপ ছাড়া শ্রীলংকার বাকি সব বোলারই অজি ব্যাটসম্যানদের বেদম পিটুনির শিকার হন। সবচেয়ে বড় ঝড়টা গেছে কাসুন রাজিথার ওপর দিয়ে। ৪ ওভারে ৭৫ রান দিয়ে আন্তর্জাতিক টি২০-তে সবচেয়ে খরুচে বোলিংয়ের নতুন রেকর্ড গড়েন ২৬ বছর বয়সী এই পেসার।

লক্ষ্য তাড়ায় ইনিংসের প্রথম ওভারেই কুশল মেন্ডিসের উইকেট হারায় লংকানরা। তাকে সাজঘরে পাঠান মিচেল স্টার্ক। এরপর চতুর্থ ওভারে পরপর দুই বলে দানুস্কা গুনাথিলাকা ও ভানুকা রাজাপাকসেকে ফেরান প্যাট কামিন্স। দুই অজি পেসারের তোপে ১৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলা শ্রীলংকা আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি। দলটির কোনো ব্যাটসম্যানই ধরতে পারেননি হাল। এমনকি গড়ে ওঠেনি বড় কোনো জুটিও।

পেসারদের পর লংকান ব্যাটসম্যানদের চেপে ধরেন অজি স্পিনাররাও। অ্যাডাম জ্যাম্পা ৩ উইকেট নেন ১৪ রানে। অ্যাস্টন অ্যাগার ১ উইকেট দখল করেন ১৩ রানে। স্টার্ক ও কামিন্স ২টি করে উইকেট পান। শ্রীলংকার পক্ষে সর্বোচ্চ ১৭ রান করেন দাসুন শানাকা। কুশল পেরেরা আউট হন ১৬ রানে। মালিঙ্গার অপরাজিত ১৩ রানের ইনিংস কেবল পরাজয়ের ব্যবধানই কমিয়েছে। পুরো ২০ ওভার ব্যাট করে এত কম রান এর আগে কখনোই করেনি লংকানরা।

আগামী ৩০ অক্টোবর ব্রিসবেনে সিরিজের দ্বিতীয় টি২০-তে মুখোমুখি হবে এই দুই দল।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে