logo
সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

নানান বাহানায় বিপিএলে বিরতি

এবারের বিরতিটা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ অনূর্ধ্ব-১৭ ফুটবলের জাতীয় পর্যায়ের খেলা নিয়ে। চার দিনের বিরতি শেষে রোববার ঢাকা আবাহনী খেলবে রহমতগঞ্জের বিপক্ষে। এই ম্যাচ দিয়েই শেষ হবে তৃতীয় রাউন্ড

নানান বাহানায় বিপিএলে বিরতি
বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগ মাঠে গড়িয়েছে ১৩ ফেব্রম্নয়ারি থেকে। তৃতীয় রাউন্ড এখনো শেষই হয়নি। এর মধ্যেই ৪ দিনের লম্বা বিরতি পড়েছে পেশাদার লিগে। বুধবার থেকে মাঠে খেলা নেই। আগামী পহেলা মার্চ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা ৬.৩০ মিনিটে ঢাকা আবাহনীর মুখোমুখি হবে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি।

পেশাদার লিগে বিরতি পড়া নতুন কোনো বিষয় নয়। লিগ মাঠে গড়ানোর আগেই দফায় দফায় বদলে যায় সময়সূচি। আর শুরুর পর কখনো বৃষ্টি, কখনো অন্য কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনাল, অ্যাথলেটিক্স আরও কত বাহানায় যে লিগে বিরতি পড়ে তার কোনো ঠিক নেই। দেশের ফুটবল দর্শকরা তো বিরক্তই। ক্লাবগুলোরও এ নিয়ে নানান অভিযোগ। তবে বাফুফে চলছে তার আপন গতিতে। এবারের আসরেও বিভিন্ন কারণেই প্রতি রাউন্ডেই দু-একদিনের বিরতি পড়েছে। তবে এবারের বিরতিটা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ অনূর্ধ্ব-১৭ ফুটবলের জাতীয় পর্যায়ের খেলা নিয়ে। চারদিনের বিরতি শেষে রোববার ঢাকা আবাহনী খেলবে রহমতগঞ্জের বিপক্ষে। এই ম্যাচ দিয়েই শেষ হবে তৃতীয় রাউন্ড। এখন পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে মোট ১৭টি ম্যাচ। এর মধ্যে তিন ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্র'তে ৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে বসুন্ধরা কিংস। সমান ম্যাচে একই পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থেকে কিংসদের সঙ্গে পালস্না দিচ্ছে শিরোপা প্রত্যাশী সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। দুই দলের গোলগড়ও সমান (+২)। তবে পার্থক্য হলো বসুন্ধরার থেকে সাইফ এক গোল কম দিয়েছে। গোল হজমের ক্ষেত্রেও তারা একটি গোল কম রিসিভ করেছে। তাই গোলগড় এক হলেও সে হিসেবে পিছিয়ে সাইফ স্পোর্টিং। তৃতীয় স্থানে আছে এবারের মৌসুমে চমক দেখানো ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহামেডান স্পোর্টিং। ৩ ম্যাচে ২ জয়ে তাদের সংগ্রহ ৬ পয়েন্ট। তাদের থেকে এক ম্যাচ কম খেলে ৪ পয়েন্ট নিয়ে পরের আসনটিতেই আছে সাদা-কালোদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। পেশাদার লিগের অন্যতম সফল ক্লাবটি গত আসরে হয়েছিল রানার্সআপ। এবার লিগের শুরুটা বাংলাদেশ পুলিশের বিপক্ষে ২-০ গোলের জয়ে হলেও দ্বিতীয় ম্যাচে এসেই হোঁচট খেয়েছে গোপীবাগের দল ব্রাদার্স ইউনিয়নের সঙ্গে ১-১ গোলের ড্র করে। মারুফুলের ওপর ভর করে এবার শিরোপা রেসে থাকতে চাইছে চট্টগ্রামের আবাহনীও। কিন্তু ৩টি ম্যাচ খেলে ফেললেও তাদের ঝুলিতে আছে ৪ পয়েন্ট। কারণ তিন রাউন্ডে জয়, হার, ড্র সবই আছে তাদের সংগ্রহে। ষষ্ঠ স্থানে থাকা আরামবাগ ও সপ্তম স্থানে থাকা বাংলাদেশ পুলিশ ফুটবল ক্লাবেরও তিন ম্যাচে ৪ পয়েন্ট। অর্থাৎ লিগের শুরু থেকেই উপরের স্থান নিয়ে যেমন লড়াই হচ্ছে, তেমনি মাঝের স্থানে থাকা দলগুলোর মাঝেও পয়েন্ট নিয়ে চলছে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা। লড়াই করার মানসিকতায় দল গড়লেও কিছুটা পিছিয়ে পড়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। দুই ম্যাচের একটিতে জিতে তারা আছে অষ্টম স্থানে। মাঝারি মানের দল নিয়েও ভালোই লড়াই করছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন। এক ম্যাচে হারলেও তারা ড্র করেছে দুই শক্তিধর দলের সঙ্গে। এর একটি ঢাকা আবাহনী অন্যটি শেখ রাসেলের বিপক্ষে। দুই পয়েন্ট নিয়ে তারা আছে নবম স্থানে। তাদের মতোই দুই ড্র করে সমান পয়েন্ট নিয়ে একধাপ নিচে শেখ রাসেল। তাদের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে একটি পয়েন্ট ছিনিয়ে নিয়েছিল জায়ান্ট কিলার খ্যাত রহমতগঞ্জ। ১ পয়েন্ট নিয়ে একাদশতম স্থানে আছে পুরানো ঢাকার দলটি। সমান পয়েন্ট নিয়ে ১২তম স্থানে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র। এখন পর্যন্ত পয়েন্টের খাতা খুলতে না পারা একমাত্র দল উত্তর বারিধারা ক্লাব। দুই ম্যাচেই হেরে তলানিতে আছে তারা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে