logo
শুক্রবার ২৩ আগস্ট, ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

  যাযাদি রিপোর্ট   ১৫ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

ডিভিডেন্ড ওয়ারেন্ট পাঠিয়েছে পপুলার লাইফ

৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ২০১৮ হিসাব বছরের জন্য অনুমোদিত নগদ লভ্যাংশের ওয়ারেন্ট পাঠিয়ে দিয়েছে পপুলার লাইফ ইন্সু্যরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সমাপ্ত ২০১৮ হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে শেয়ারহোল্ডারদের ৪০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে পপুলার লাইফ। গেল হিসাব বছর কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪ টাকা ৫৫ পয়সা, আগের বছরে যা ছিল ৪ টাকা ২৭ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়ায় ৬৮ টাকা ২৯ পয়সা, এক বছর আগে যা ছিল ৮০ টাকা ৫২ পয়সা।

২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে ৪০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেয় পপুলার লাইফ ইন্সু্যরেন্স। তার আগের দুই হিসাব বছরেও (২০১৬ ও ২০১৭) ৪০ শতাংশ হারে নগদ লভ্যাংশ দেয় তারা। ২০১৩ ও ২০১৪ হিসাব বছরে ৪০ শতাংশ করে স্টক লভ্যাংশ পেয়েছিলেন কোম্পানির শেয়ারহোল্ডাররা।

সর্বশেষ রেটিং অনুসারে, পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ঋণমান দীর্ঘমেয়াদে 'ডাবল এ পস্নাস' ও স্বল্পমেয়াদে 'এসটি-ওয়ান'। ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে এ প্রত্যয়ন করেছে ন্যাশনাল ক্রেডিট রেটিংস লিমিটেড (এনসিআর)।

ডিএসইতে বৃহস্পতিবার পপুলার লাইফের সর্বশেষ ও সমাপনী দর ছিল ৯৮ টাকা ৬০ পয়সা। গত এক বছরে শেয়ারটির সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ দর ছিল যথাক্রমে ৭৫ টাকা ও ১২৭ টাকা ৮০ পয়সা।

২০০৫ সালে শেয়ারবাজারে আসা কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন ৫০০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ৬০ কোটি ৪২ লাখ ৮০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির মোট শেয়ার সংখ্যা ৬ কোটি ৪ লাখ ২৮ হাজার ৩৫৮। এর ২৮ দশমিক ৯২ শতাংশ রয়েছে উদ্যোক্তা পরিচালকদের কাছে। এছাড়া ৭ দশমিক ৮৪ শতাংশ শেয়ার প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী, দশমিক ২১ শতাংশ বিদেশি ও ৬৩ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে রয়েছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে