logo
বৃহস্পতিবার ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ০৫ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০  

এপ্রিলে শুরু হচ্ছে ভারতের ১০ ব্যাংকের একীভূতকরণ প্রক্রিয়া

আগামী ১ এপ্রিল থেকেই সরকারিভাবে মিশে যাচ্ছে পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক (পিএনবি), ইউনাইটেড ব্যাংক অব ইন্ডিয়া (ইউবিআই) এবং ওরিয়েন্টাল ব্যাংক অব কমার্স (ওবিসি)। তখন সব রকমের ঋণ ও জমার ক্ষেত্রে তিন ব্যাংকের আলাদা আলাদা সুদের হার আর থাকবে না। অর্থাৎ গৃহঋণ, গাড়িঋণ, স্থায়ী জমাসহ নানা ক্ষেত্রে বিভিন্ন মেয়াদে সুদের একটি করে হার ধার্য হবে। ঢেলে সাজানো হবে বিভিন্ন পরিষেবায় তিন ব্যাংকের নানা রকম প্রকল্পগুলোও। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

বুধবার এ কথা জানিয়ে ইউনাইটেড ব্যাংকের এগ্‌?জিকিউটিভ ডিরেক্টর সঞ্জয় কুমারের দাবি, এপ্রিল থেকে সংযুক্ত ব্যাংকে ঋণ ও আমানতে ধার্য নতুন ওই সুদ কার্যকর হবে নতুন গ্রাহকদের ক্ষেত্রে। পুরনো গ্রাহকদের জন্য আগের সুদসহ সব শর্তই বহাল থাকবে। তবে তাদের সামনে নতুন সুদে চলে আসার পথ খোলা রাখা হবে।

অর্থনীতিকে চাঙা করার লক্ষ্যে সম্প্রতি ১০টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংককে মিশিয়ে চারটি শক্তিশালী ব্যাংক করার কথা ঘোষণা করেছেন ভারতের অর্থমন্ত্রী। তারই অঙ্গ পিএনবি, ইউবিআই এবং ওবিসির সংযুক্তি। যা কার্যকর হচ্ছে আগামী অর্থবছরের প্রথম দিনেই। তবে কুমারের দাবি, সংযুক্তি কার্যকর হলেও তিনটি ব্যাংকের সমস্ত কাজকর্ম পুরোপুরি মিশে যেতে সময় লাগবে আরও প্রায় এক বছর। কারণ, গ্রাহকদের সুবিধার জন্য পুরো বিষয়টাই ধাপে ধাপে এগোবে।

এর আগে দেশটিতে ব্যাংক অব বরোদা, বিজয়া ব্যাংক এবং দেনা ব্যাংক একীভূত হয়েছে। এ দিন সঞ্জয় বলেন, 'সংযুক্তিকরণ প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করার ক্ষেত্রে ওই তিন ব্যাংককে যে সব সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়েছে, তার থেকে শিক্ষা নিয়েছি।

লক্ষ্য একটাই, তিনটি ব্যাংকের একটিতেও গ্রাহক স্বার্থে যেন আঘাত না লাগে।' ব্যাংক পরিচালনার নীতি হোক বা কোর ব্যাংকিং অথবা ঋণ-আমানত প্রকল্প, তিনটি ব্যাংকের মধ্যে যেটিতে যার ব্যবস্থা সব থেকে ভালো, সেটাই সংযুক্ত ব্যাংকে কার্যকর হবে বলেও জানান তিনি। তবে যত দিন একই তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবস্থা চালু না হচ্ছে, তত দিন নিজেদের কোর ব্যাংকিংয়েই কাজ চলবে। চালু থাকবে তিনটি সার্ভার। তাদের মধ্যে সমন্বয় রাখতে আনা হবে একটি অন্তবর্তী সার্ভার, জানান সঞ্জয়।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে