জাহেদ এখন স্ট্রবেরী জাহেদ

জাহেদ এখন স্ট্রবেরী জাহেদ

ছাত্র জীবন থেকেই স্ট্রবেরী চাষের সাধনায় যুক্ত হন মো. জাহেদ। স্বাদ আর পুষ্টিগুণে ভরা রসালো অপ্রচলিত এই ফল চাষে শুরুতেই সফল হতে পারেননি তিনি। ইচ্ছা, প্রশিক্ষণ আর নয় বছরের একাগ্র চেষ্টায় শেষ পর্যন্ত স্ট্রবেরীর বাণিজ্যিক চাষে দারুণ সফলতা পেয়েছেন তিনি। দীর্ঘসময় স্ট্রবেরী চাষ নিয়ে লেগে থাকায় এলাকায় এখন মো. জাহেদকে সবাই চেনে স্ট্রবেরী জাহেদ নামে। যদিও স্ট্রবেরী চাষের পাশাপাশি ক্যাপসিকাম, টমেটো, পেঁয়াজ, মরিচসহ আরো নানান সবজির আবাদ আছে ব্যবস্থাপনায় স্নাতক এই যুবক কৃষকের। জাহেদ মিরসরাই উপজেলার খৈয়াছড়া ইউনিয়নের পূর্ব খৈয়াছড়া গ্রামের মৃত জামাল উল্ল্যার ছেলে।

শনিবার ( ১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পূর্ব খৈয়াছড়া গ্রামে গিয়ে দেখা যায় বড় ভাই আলাউদ্দিনকে সাথে নিয়ে নিজের খেতে টকটকে লাল পাকা স্ট্রবেরী তুলছিলেন জাহেদ। খেতে দাঁড়িয়েই স্ট্রবেরী চাষে তাঁর এমন উদ্যামি প্রয়াস সম্পর্কে জানতে চাইলে জাহেদ জানান, কৃষিটা সবসময় আমাকে টানে। আবার কৃষির ভিন্নতাও চাইতাম। তাই শুরুতেই উচ্চ মূল্যের ফসল স্ট্রবেরী চাষে মনোযোগী হই। চাষ পদ্ধতি শিখতে চট্টগ্রাম কৃষি ইন্সটিটিউট ও রাজশাহীর বেসরকারি সংস্থা আকাফুজি এগ্রো টেকনোলজিস থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছি। রাজশাহী থেকে চারা সংগ্রহ করে ২০১২ সাল থেকে প্রতি বছরই স্ট্রবেরী চাষ করছি আমি। প্রথম দিকে খুব একটা ভালো ফল আসেনি। ক্ষতির মুখে পড়েছি বেশ কয়েকবার। বন্ধু থেকে টাকা ধার আর মায়ের সোনার গহনা বন্ধক দিয়ে আবার শুরু করি। গত বছর ১০ শতাংশ জমিতে স্ট্রবেরী চাষ করে ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা লাভ করেছি। এবার চাষ বাড়িয়েছি আরো। বাড়ির পাশের ১৫ শতাংশ জমিতে স্টবেরী চাষ করতে ১ লাখ ২৫ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। এরিমধ্যে খেত থেকে ফলন উঠতে শুরু করেছে। গত কয়েকদিনে চার দফায় ২০ কেজি স্ট্রবেরী ফল সংগ্রহ করেছেন তিনি।

জাহেদ আরো জানান, তার খেতে ফলানো স্ট্রবেরী বাজারে নিতে হয়না। অনলাইন পরমায়েশেই বিক্রি হয়ে যায় সব। এখন খেত থেকে তোলা প্রতিকেজি সুপুষ্ট স্ট্রবেরী ১ হাজার ২০০ টাকা দরে বিক্রি করছেন তিনি। দাম আরো কমলেও এবারের মৌসুমে এ খেত থেকে দুই থেকে আড়াই লাখ টাকার স্ট্রবেরী বিক্রি হবে বলে আশা তার। এরিমধ্যে অনলাইনে ৪০ জন ক্রেতা খেতের স্টবেরী পেতে পরমায়েশ দিয়ে রেখেছেন জাহেদকে।

জানতে চাইলে তরুণ কৃষি উদ্যাক্তা মো. জাহেদ যায়যায়দিনকে বলেন, ভাইরাস প্রতিহত করা গেলে স্ট্রবেরী ফল চাষ বেশ লাভজনক। সরকারি সহযোগীতা পেলে আগামি বছর দিগুণ পরিমান জমিতে স্ট্রবেরী চাষের ইচ্ছে আছে আমার।

মো. জাহেদের স্ট্রবেরী চাষের উদ্যোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে পূর্ব খৈয়াছড়া এলাকার ইউপি সদস্য নুরুল আবছার যায়যায়দিনকে বলেন, শিক্ষিত কৃষক জাহেদ স্ট্রবেরী চাষ করে এলাকায় বেশ সাড়া ফেলেছে। দুই চার গ্রামের মানুষ এখন তাকে স্ট্রবেরী জাহেদ নামে চিনে।

পূর্ব খৈয়াছড়া গ্রামের কৃষক জাহেদের স্ট্রবেরী চাষের ব্যতিক্রমি এই উদ্যোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে মিরসরাই উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রঘুনাথ নাহা বলেন, খৈয়াছড়া ইউনিয়নের পূর্ব খৈয়াছড়া গ্রামের তরুণ কৃষক জাহেদের স্ট্রবেরী চাষ করে সফল হয়ার কথা আমি শুনেছি। স্ট্রবেরী পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ উচ্চ মূল্যের একটি ফসল। ওই এলাকায় আমাদের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ সহকারি কৃষি কর্মকর্তা জাহেদের স্ট্রবেরী খেতের ভালোমন্দ দেখভাল করেন। খোঁজ-খবর নিয়ে চাষ সম্প্রসারণে তার কোন সহযোগীতা প্রয়োজন হলে সেটির ব্যবস্থা করবো আমরা।

যাযাদি/এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে