‘টাইটানিক’ জীবনের ভয়াবহ অভিজ্ঞতা

‘টাইটানিক’ জীবনের ভয়াবহ অভিজ্ঞতা

জনপ্রিয় হলিউড অভিনেত্রী কেট উইন্সলেট। ‘টাইটানিক’ সিনেমার মাধ্যমে সর্বোচ্চ খ্যাতি পেয়েছেন তিনি। কিন্তু সিনেমাটির এত সাফল্যের পরও ব্যক্তিগত সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে এই অভিনেত্রীকে। সেটিকে নিজের জীবনের ভয়াবহ অভিজ্ঞতা বলেও আখ্যা দিয়েছেন তিনি।

এক সাক্ষাৎকারে কেট উইন্সলেট বলেন, ‘টাইটানিক মুক্তির পর নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছিলাম। দিনরাত এটি নিয়ে চর্চা হচ্ছিল। ব্যক্তিগত ও শারীরিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। বৃটিশ মিডিয়াতে আমাকে নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়েছে, তারা আমার ব্যাপারে একটু বেশিই কঠোর ছিল।

এটি তার জীবনের ভয়ানক অভিজ্ঞতা ছিল বলে উল্লেখ করে কেট বলেন, সত্যি বলতে কী আমি ভীত হয়ে পড়েছিলাম। আমি ভাবতাম, এটা দুর্বিষহ এবং আশা করতাম তাড়াতাড়ি এই সময় পার হবে। হয়েও ছিল। কিন্তু খ্যাতি বিষয়টি কী আমি বুঝতে পেরেছিলাম। আমি এই খ্যাতির জন্য প্রস্তুত ছিলাম না, একদমই না। কেট বলেন, আমার এখনো মনে হয়, বড় বড় হলিউড সিনেমায় কাজের জন্য আমি প্রস্তুত নই। এটা অনেক বড় দায়িত্ব। ভুল করে বিষয়টি নষ্ট করতে চাই না। অনেকদিন এই জগতে টিকে থাকতে চাই।

প্রকৃতপক্ষে তুলনামূলক ছোট বিষয় নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করেছি, যাতে আমার দক্ষতা কতটুকু এবং নিজেকে ভালোভাবে বুঝতে পারি। পাশাপাশি প্রাইভেসি ও মর্যাদা নিয়ে চলতে পারি। কেট উইন্সলেট অভিনীত সর্বশেষ সিনেমা ‘অ্যামোনাইট’। বিখ্যাত ফসিল শিকারি মেরি অ্যানিংয়ের জীবনী অবলম্বনে নির্মিত সিনেমাটি। চরিত্রটি রূপায়ন করেছেন ৪৫ বছর বয়সী কেট।

যাযাদি/এসএইচ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে