কৃষি যান্ত্রিকীকরণের দিকে যাচ্ছে দেশ :কৃষিমন্ত্রী

কৃষি যান্ত্রিকীকরণের দিকে যাচ্ছে দেশ :কৃষিমন্ত্রী
কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক

কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেন, বাংলাদেশ কৃষি যান্ত্রিকীকরণের দিকে যাচ্ছে। সরকার এ বছর ২০০ কোটি টাকার মাধ্যমে ৫০ থেকে ৭০ শতাংশ ভর্তুকিতে কৃষকদের কম্বাইন্ড হারভেস্টার, রিপারসহ কৃষিযন্ত্রপাতি সরবরাহ করেছে। এছাড়াও তিন হাজার কোটি টাকার প্রকল্প নেয়া হয়েছে- যার মাধ্যমে প্রায় ৫১ হাজার কৃষি যন্ত্রপাতি দেয়া হবে কৃষকদের।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে কৃষি যন্ত্রপাতির বাজার বছরে প্রায় ১.২ বিলিয়ন ডলারের- যা বছরে ১০ শতাংশ হারে বাড়ছে। এ বিশাল বাজারে ভারত যদি সরকারি ও বেসরকারিভাবে বিনিয়োগ করে তবে দু'দেশই উপকৃত হবে। বাংলাদেশে কৃষি যন্ত্রপাতি তৈরির কারখানা স্থাপন ও অ্যাসেম্বল হলে দেশে একদিকে যেমন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে অন্যদিকে কৃষকরা কম দামে যন্ত্রপাতি কিনতে পারবে। আমরা কৃষি প্রক্রিয়াজাতকরণে ভারতের সহযোগিতা দেখতে চাই। ভারতীয় কোম্পানিগুলো বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলে কৃষিভিত্তিক ম্যানুফ্যাকচারিং পস্ন্যান্ট স্থাপন করতে পারে। ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে কৃষি খাতে জি টু জি সহযোগিতা ও বিনিয়োগে উভয় দেশ লাভবান হতে পারে। পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের মাধ্যমে যে কোনো লক্ষ্য অর্জন করা সম্ভব।

সম্প্রতি রাজধানীর মতিঝিলে এফবিসিসিআই অডিটোরিয়ামে কৃষি খাতে ভারত-বাংলাদেশের পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়াতে দু'দেশের ডিজিটাল কনফারেন্সে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ভারত- বাংলাদেশ দু'দেশেই ৬০ শতাংশের বেশি মানুষ কৃষির সঙ্গে যুক্ত। কৃষিতে কর্মসংস্থানও বেশি। কৃষি যান্ত্রিকীকরণ, ফুড প্রসেসিং ও ফিস-অ্যাকুয়াকালচার এই তিনটি খাতে অধিক গুরুত্বসহ কৃষির সব ক্ষেত্রে বিনিয়োগ ও সহযোগিতা করতে আগ্রহী। কৃষি যান্ত্রিকীকরণ ও এগ্রোপ্রসেসিংয়ে বাংলাদেশে ভারতকে সরকারি-বেসরকারিভাবে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে