বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯
walton1

অধস্তন আদালতের রায় ও আদেশের অনুলিপি অনলাইনে প্রকাশ করতে হবে

আইন ও বিচার ডেস্ক
  ২২ নভেম্বর ২০২২, ০০:০০
অধস্তন আদালতের রায় ও আদেশের অনুলিপি অনলাইনে প্রকাশ করার নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নির্দেশে গত সপ্তাহে এ নির্দেশনা জারি করেছে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন। এতে দেশের সব অধস্তন আদালতের রায় ও আদেশের অনুলিপি ওয়েবসাইটে প্রকাশের জন্য নির্ধারিত নির্দেশনা ও ব্যবহার বিধি অনুসরণ করতে বলা হয়েছে। ব্যবহার বিধিতে উলিস্নখিত ওয়েবসাইটে আদালতের আদেশ ও রায় প্রকাশের ক্ষেত্রে মামলার সব পক্ষ অথবা মামলার কোনো ভিকটিম/ভুক্তভোগীর (নারী, শিশু বা অপরাধের শিকার ব্যক্তির) ব্যক্তিগত সুরক্ষা ও গোপনীয়তা রক্ষার্থে দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী সতর্কতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছে। এছাড়াও সুপ্রিম কোর্ট থেকে জারি করা 'সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের অনুসরণীয় নির্দেশনা' অনুসরণ করতে হবে। তবে ওয়েবসাইটে প্রকাশিত অধস্তন আদালতের রায় বা আদেশের অনুলিপি সইমোহরী/জাবেদা নকলের (পবৎঃরভরবফ পড়ঢ়ু) বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না। প্রসঙ্গত, প্রধান বিচারপতির অনুমোদনক্রমে দ্রম্নততম সময়ে, স্বল্প খরচে বিচার সেবা প্রদানের লক্ষ্যে (বিচারসংক্রান্ত) তথ্য প্রবাহ ও বিচার-প্রক্রিয়ায় সহজ অভিগম্যতা নিশ্চিতকরণসহ 'টেকসই বিচার' প্রতিষ্ঠার অভিপ্রায়ে একটি ওয়েবসাইট (যঃঃঢ়://ফবপরংরড়হ.নফপড়ঁৎঃং.মড়া.নফ) প্রস্তত করা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবভিত্তিক এই উদ্ভাবনের মাধ্যমে অধস্তন আদালতের রায় ও আদেশের অনুলিপি অনলাইনে প্রকাশ করার ব্যবস্থা রয়েছে। অধস্তন আদালতের আদেশ ও রায়ের অনুলিপি অনলাইনে প্রকাশিত হলে বিচারকার্যে ও বিচার সংশ্লিষ্ট সবার স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও দায়বদ্ধতা নিশ্চিতকরণের সঙ্গে সঙ্গে আদালতের রায় ও আদেশের আইনানুগ যৌক্তিকতা ও গ্রহণযোগ্যতা ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাবে। বিশেষ করে এই উদ্যোগ বিচার সেবা প্রাপ্তিতে ব্যয় ও দুর্ভোগ হ্রাস করে দেশের প্রান্তিক মানুষের দোরগোড়ায় ন্যায়বিচারের সুফল দ্রম্নত পৌঁছে দিতে এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দেশের টেকসই উন্নয়নে বিশেষ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে। যঃঃঢ়://ফবপরংরড়হ.নফপড়ঁৎঃং.মড়া.নফ ওয়েবসাইট ভিজিট করে দেখা গেছে, সেখানে বিভিন্ন জেলার মামলার রায় ও আদেশের কপি আপলোড করা হয়েছে এবং নিচের দিকে একটি দায়বর্জন বিবৃতি (উওঝঈখঅওগঊজ) প্রকাশ করা হয়েছে। যাতে উলেস্নখ আছে, 'এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত অধস্তন আদালতের রায় বা আদেশের অনুলিপি কেবল মামলার সব পক্ষ, বিজ্ঞ আইনজীবী এবং জনসাধারণের বিচার প্রক্রিয়ায় সহজ অভিগম্যতা নিশ্চিতকরণের অভিপ্রায়ে অনলাইনে প্রকাশ করা হয়েছে; রায় বা আদেশের অনুলিপি সইমোহরী/জাবেদা নকলের (পবৎঃরভরবফ পড়ঢ়ু) বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না। অধস্তন আদালতের রায় ও আদেশ বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে মামলার নথিতে বিধৃত মূল অংশ (রায় বা আদেশ) প্রণিধানযোগ্য।
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে