বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

সার্কাস কন্যা জয়া

প্রকৃতির মতোই যেন রং বদলের খেলা চলছে দেশীয় চলচ্চিত্রে। একের পর এক মুক্তি পাচ্ছে নতুন চলচ্চিত্র, কখনো আশা জাগিয়ে দেখা মিলছে সাফল্যের, কখনো আশাহত হয়ে হতাশায় পরিণত হচ্ছে। পালা বদলের এই হাওয়ার মাঝেই শরতের কাশফুলের শুভ্রতার মতো দর্শকের মন রাঙাতে আসছে নতুন আরেকটি চলচ্চিত্র। প্রায় হারিয়ে যাওয়া গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্য সার্কাস পার্টি ও সার্কাসকন্যা হয়ে আসছেন দুই বাংলার আলোচিত অভিনেত্রী জয়া আহসান। এই চলচ্চিত্রের মাধ্যমে দীর্ঘ চার বছর পর দেশের রুপালি পর্দায় দেখা মেলবে এই নায়িকার। ২৩ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাচ্ছে তার বহুল আলোচিত ও প্রতীক্ষিত চলচ্চিত্র 'বিউটি সার্কাস'। সরকারি অনুদানের এই চলচ্চিত্রটির ট্রেইলারের মাধ্যমে বেশ একটা ঝলকের ছটা দিয়েছেন জয়া। ট্রেইলারের ঝলক এবং অনেক দিন পর জয়ার চলচ্চিত্র মুক্তির খবরে দিন গুনছেন জয়া-ভক্তরা। দর্শকের মতো চলচ্চিত্রটির মুক্তির প্রহর গুনছেন এই অভিনেত্রীও। জয়া ও তার 'বিউটি সার্কাস' নিয়ে লিখেছেন-
মাসুদুর রহমান
  ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০:০০
কয়েক বছর ধরে 'বিউটি সার্কাস' নিয়ে আলোচনায় জয়া আহসান। চলচ্চিত্রটি নিয়ে আসি আসি করেও এতদিনে দেখা মেলেনি এই অভিনেত্রীর। বৈশ্বিক পরিস্থিতি, মুক্তির জটিলতাসহ নানা কারণে আলো ছড়াতে পারেনি জয়ার নতুন এই চলচ্চিত্র। নানা চড়াই-উতরাই পেরিয়ে অবশেষে চলচ্চিত্রটি মুক্তির মিছিলে এসে দাঁড়িয়েছে। শেষমেশ অপেক্ষার পালা ফুরিয়ে এলো। বাংলাদেশের আবহমান সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ সার্কাস শিল্পকে ঘিরে এক নারীর রোমাঞ্চকর লড়াইয়ের গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে চলচ্চিত্রটি। এতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন জয়া। সার্কাস দলের বিউটি হয়ে আলো ছড়িয়েছেন গল্পজুড়ে। ১০ সেপ্টেম্বর রাতে প্রকাশিত এই চলচ্চিত্রের ট্রেইলারে এমনটাই জানান দিয়েছেন তিনি। ২ মিনিট ৮ সেকেন্ড দৈর্ঘ্যের এই ট্রেইলারে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী মেলা, সার্কাস, জাদুর পাশাপাশি সম্পর্ক, সমাজ ও প্রতিশোধের ইঙ্গিত মেলে। যাতে জয়ার একাধিক রূপ দেখা যায়। অল্প সময়ে জয়ার উপস্থিতি মুগ্ধ করেছে দর্শকদের। বিশেষ করে একাধিক সংলাপে পাওয়া যায় আড়ালের অন্য গল্প। জয়া বলেছেন, 'এই গল্পটা শুধু আমার না। এইটা যদি শুধু একটা গল্প হইতো অথবা ছোটবেলায় শোনা কোনো রূপকথা হইতো, কতই না মজা অইতো।' কখনো বলেছেন, 'আমি বলি এইটা কোনো গল্প না। না বিউটির, না সার্কাসের।' আবার কখনো বলেছেন, 'আমি আজ আপনাদের মাঝে ইতিহাসের সাক্ষ্য দিতে এসেছি। রক্তের ইতিহাসের সাক্ষ্য।' ট্রেইলার প্রকাশের পর প্রশংসিত হচ্ছে চলচ্চিত্রটি। অল্প ঝলকে এর গল্প, অভিনয়, আবহ, সম্পাদনাসহ সবকিছু দর্শকের খোরাক সৃষ্টি করেছে চলচ্চিত্রটি দেখতে। জয়া আহসান বলেন, 'আমি বলব, এই কাজটি আমার অভিনয় জীবনের খুব রোমাঞ্চকর কাজের একটি। অভিনয় শিল্প আপনাকে এমন কিছু জায়গায় নিয়ে যায়, যেখানে আগে কোনোদিন যাওয়া হয়নি; আবার এমন কিছু চরিত্র প্রদর্শন করার সুযোগ হয়, যার অভিজ্ঞতাটাও একেবারে নতুন। এমনি একটি ভিন্নধর্মী চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ এসেছিল সার্কাস- প্রদর্শনকারী সেজে। তাও আবার এক জম্পেশ সার্কাসের স্টেজে! সার্কাসের এই পুরো অভিজ্ঞতাটাই আমার জন্য সম্পূর্ণ নতুন ছিল- যা সামনে থেকে কখনো দেখার সুযোগ হয়নি বলে।' 'বিউটি সার্কাস'-এর শুটিং শুরু হয়েছিল ২০১৭ সালের ৬ ফেব্রম্নয়ারি। নওগাঁর সাপাহার ও মানিকগঞ্জে ২০০ জনের নির্মাণসঙ্গী নিয়ে প্রায় দুই হাজার গ্রামবাসীর অংশগ্রহণে চিত্রধারণের কাজ করেন নির্মাতা। এজন্য নির্মাতা বিশাল সার্কাস প্যান্ডেল নির্মাণ ও গ্রাম্যমেলার আয়োজন করেন। চলচ্চিত্রটির ব্যাপ্তি ও নির্মাণের বৃহৎ আয়োজনের কারণে কাজ শেষ করতে প্রায় পাঁচ বছর সময় লাগে। এরপর করোনাভাইরাস মহামারির কারণে পিছিয়ে যায় মুক্তি। এ সিনেমায় ব্যবহৃত হয়েছে তিনটি গান। চিরকুট ব্যান্ডের শারমিন সুলতানা সুমী, অ্যাশেজ ব্যান্ডের ইভান ও টুনটুন বাউল গানগুলো গেয়েছেন। ২০১৪-১৫ অর্থবছরে বাংলাদেশ সরকারের অনুদানপ্রাপ্ত, ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত চলচ্চিত্রটি নিবেদন করছে বসুন্ধরা গুঁড়া মশলা। জয়া আহসান ছাড়াও এতে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদ, তৌকির আহমেদ, এ বি এম সুমন, শতাব্দী ওয়াদুদ, গাজী রাকায়েত, হুমায়ূন সাধু ও মনিসা অর্চি প্রমুখ। জয়া আহসানের ভাষায়, 'বিউটি সার্কাস একটি বিগ ফিল্ম। আর নির্মাতা মাহমুদ দিদার যে আয়োজন করে চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করেছেন, তার তুলনা হয় না। অন্যদিকে, 'বিউটি সার্কাস' নিয়ে মানুষের প্রত্যাশা ও ভালোবাসা অভাবনীয়। চলচ্চিত্রটির জন্য শুভকামনা জানাই।' চার বছর আগে ২০১৮ সালে দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিল জয়ার 'দেবী' চলচ্চিত্র। এরপর গত বছরের ১৯ মার্চ মুক্তি পায় 'অলাতচক্র'। অপরদিকে টলিউডে মুক্তি পায় অতনু ঘোষ পরিচালিত 'বিনিসুতোয়' ও সায়ন্তন মুখার্জি পরিচালিত 'ঝরা পালক' নামের দুটি চলচ্চিত্র। এদিকে প্রায় দেড় বছর পর 'বিউটি সার্কাস' নিয়ে প্রেক্ষাগৃহে ফেরার আগেই নতুন আরেক খবর দিলেন জয়া আহসান। নির্মাতা পিপলু খানের নতুন আরেকটি চলচ্চিত্র নিয়ে আসছেন তিনি। নাম 'জয়া ও শারমিন'। করোনার সময় মাত্র ১০ জন শিল্পী আর কলাকুশলী নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ১৫ দিনে হয়েছে এই চলচ্চিত্রের শুটিং। ৮ সেপ্টেম্বর জয়া আহসান তার ফেসবুকে ছবির পোস্টার শেয়ার করেছেন। ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, 'অবশেষে জয়া আর শারমিন'। দুজন নারীর অচেনা ভুবনের ছবি। আমাদের অন্তর্জগতের ঘাত-প্রতিঘাত আর অনুক্ত-অব্যক্ত অনুভূতির ডকুমেন্টেশন। একটা অদ্ভুত সময়ে, অসাধারণ অভিজ্ঞতায় ছোট্ট একটা ছবি। আশা আছে, এটি আপনাদের অনুভূতিকে নাড়া দেবে।' তিনি আরও লিখেছেন, 'আমি জয়া চরিত্রে আর থিয়েটারের শিল্পী মহসিনা অভিনয় করেছেন শারমিন চরিত্রে। ওর জন্য আমার শুভকামনা। আমাদের এই যাত্রায় আপনাদের সবাইকে শুভেচ্ছা।' চলচ্চিত্রটির প্রযোজক হিসেবে আছেন পিপলু আর খান, জয়া আহসান ও আবু শাহেদ ইমন। এর কাহিনী লিখেছেন পিপলু আর খান ও নুসরাত ইসলাম মাটি। পরিচালক সূত্রে জানা যায়, আগামী বছরের জানুয়ারিতে চলচ্চিত্রটি মুক্তি দেওয়ার সম্ভাবনা আছে।
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে