অক্সিজেন সংকট রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান

অক্সিজেন সংকট রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান

পাশের দেশ ভারতের সংক্রমণের হার ঊর্ধ্বগতি। আর বাংলাদেশ ভারতের প্রতিবেশী দেশ। বর্তমানে দেশের সংক্রমণ পরিস্থিতি নিম্নমুখী হলেও ভারতের কারণে পরিস্থিতির অবনতির কথা জানিয়ে অক্সিজেন সংকট রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাসহ সরকারকে সার্বিক প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে।

বুধবার রাতে (৮ এপ্রিল) কারিগরি পরার্মশক কমিটির সভায় এসব সুপারিশ করা হয় বলে কমিটির পক্ষ থেকে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লার সভাপতিত্বে ও সব সদস্যদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত কমিটির সভায় বিস্তারিত আলোচনা শেষে সুপারিশসমূহ গৃহীত হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশের সংক্রমণ পরিস্থিতি নিম্নমুখী। তবে পাশের দেশের সংক্রমণের কারণে বাংলাদেশের অবস্থার পরিবর্তন হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। আর এ পরিপ্রেক্ষিত সার্বিক প্রস্তুতি, বিশেষ করে অক্সিজেন সংকট মোকাবিলায় সতর্ক করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভারতে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার উদ্বেগজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনার ‘ডাবল ভেরিয়েন্ট’ (নতুন প্রজাতি) চিহ্নিত হয়েছে। এই প্রজাতি আমাদের দেশে প্রবেশ করলে পরিস্থিতি সংকটময় হতে পারে বলে জাতীয় কারিগরি কমিটি আশঙ্কা ব্যক্ত করে।

কমিটি বলছে, ভারত থেকে আসা সব যাত্রীদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে ১৪ দিন থাকা নিশ্চিত করতে হবে। বর্ডার দিয়ে জনগণের প্রবেশ নিয়ন্ত্রণে নজরদারি জোরদার করতে হবে। এ বিষয়ে কোনও ধরনের শিথিলতা কাম্য নয়। ভারত থেকে আগত ১০ জন সংক্রমিত ব্যক্তি হাসপাতাল থেকে পালিয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় চলে যায়। উক্ত চলাচলের সময় এরা যাদের সংস্পর্শে এসেছে তাদের চিহ্নিত করে কোয়ারেন্টিন করা প্রয়োজন।

এখানে উল্লেখ্য যে, উচ্চ সংক্রমণশীল দেশ থেকেও বাংলাদেশে যাতায়াত বন্ধ করা বা সীমিত করা প্রয়োজন এবং এই সব দেশ থেকে আগত যাত্রীদেরও ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করা প্রয়োজন।

যাযাদি/এসআই

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে