২২ দেশে শনাক্ত ওমিক্রন, ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ৭০ দেশ

২২ দেশে শনাক্ত ওমিক্রন, ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ৭০ দেশ

এখন পর্যন্ত বিশ্বের ২২ দেশে শনাক্ত হয়েছে কোভিডের ‘ভয়ংকরতম’ ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন। মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএনের খবরে জানানো হয়েছে, সর্বশেষ সৌদি আরবেও একজনের ওমিক্রন শনাক্ত হয়। সৌদি প্রেস এজেন্সির এক রিপোর্ট বলছে, আক্রান্ত ওই ব্যাক্তি সম্প্রতি উত্তর আফ্রিকার একটি দেশ সফর করেছিলেন। বর্তমানে ওই ব্যাক্তি ও তার সংস্পর্শে আসাদের কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। কোভিডের এই ভ্যারিয়েন্টটির উৎপত্তিস্থল ধারণা করা হচ্ছে আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলীয় দেশ বতসোয়ানা। এখান থেকেই প্রতিবেশী দেশগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে ভ্যারিয়েন্টটি। তবে এটি শনাক্ত হওয়ার আগেই বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত বিশ্বের যেসব দেশে এই ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে সেগুলো হচ্ছে- দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, অস্ট্রিয়া, সৌদি আরব, বেলজিয়াম, কানাডা, চেক প্রজাতন্ত্র, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, ইসরায়েল, ইতালি, জাপান, নেদারল্যান্ডস, পর্তুগাল, স্পেন, সুইডেন, বৃটেন ও নাইজেরিয়া।

নাইজেরিয়ায় কোভিড দু’জন আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে এই ভাইরাস পাওয়া গেছে। তারা দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে গত সপ্তাহে দেশটিতে ফিরেছেন। ব্রাজিলেও প্রথমবারের মতো দু’জনের দেহে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত করা হয়েছে। লাতিন আমেরিকার মধ্যে এটাই সেখানে প্রথম এই ভ্যারিয়েন্টে সংক্রমণ। বিখ্যাত আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে ওই দুই ব্যক্তির নমুনায় এই ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গেছে। তা আরও বিশ্লেষণের জন্য গবেষণাগারে পাঠানো হবে।

বিশ্বজুড়ে যখন ওমিক্রন ছড়িয়ে পড়ছে তখন করোনার টিকা প্রস্তুতকারক কো¤পানি বায়োএনটেকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা উগুর সাহিন বলেছেন, টিকা নেয়া ব্যক্তিদের ওমিক্রন হয়তো আক্রান্ত করতে পারে। তবে ভয়াবহ অসুস্থতা সৃষ্টি করবে না বলে তারা নিরাপদেই থাকবেন। অন্যদিকে মার্ক এর মুখে খাওয়ার পিল নিয়ে গবেষণা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য বিষয়ক উপদেষ্টাদের একটি প্যানেল সংকীর্ণভাবে এই পিলকে সমর্থন দিয়েছেন। এ সপ্তাহের শেষের দিকে এই পিল অনুমোদন পেতে পারে। গত সপ্তাহে দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্ত হয় ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট। এর ক্ষতিকর দিক এবং সংক্রমণের মাত্রা জানতে প্রতিযোগিতা করছেন বিজ্ঞানীরা।

৭০ দেশের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা

এই ভ্যারিয়েন্ট প্রথমে কোথা থেকে ছড়িয়েছে তা এখনও অস্পষ্ট। কিন্তু বিভিন্ন দেশ এরই মধ্যে ভ্রমণে বিধিনিষেধ দিয়েছে। বিশেষ করে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে যাওয়া পর্যটকদের ক্ষেত্রে তা আরও কড়াকড়ি। নতুন ধরন ছড়ানো শুরুর পর থেকে আফ্রিকার দেশগুলোর ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে বিভিন্ন দেশ। এরই মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকার দেশগুলোর ফ্লাইট কমপক্ষে শনিবার পর্যন্ত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত বর্ধিত করেছে ফ্রান্স। সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, ওমিক্রনের বিস্তার ঠেকাতে কমপক্ষে ৭০টি দেশ ও অঞ্চল আফ্রিকার বেশ কয়েকটি দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। করোনার নতুন ধরন নিয়ে উদ্বেগ থেকে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউটিও) করোনার নতুন এ ধরনকে ‘উদ্বেগজনক’ বলে আখ্যায়িত করেছে। তবে সংস্থাটি নতুন ভ্যারিয়েন্টের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আফ্রিকা বিষয়ক কর্মকর্তা ড. নিকসি গুমেডে-মোলেতসি বলেন, সীমান্ত বন্ধ করে দেয়া সমস্যার সমাধান নয়। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের মহামারি বিষয়ক শীর্ষ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউচি জনগণের প্রতি টিকা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। যারা টিকা নিয়েছেন তাদেরকে বুস্টার ডোজ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। পাশাপাশি মুখে মাস্ক পরায় উৎসাহী করেছেন। জনার্কীর্ণ স্থান এবং কম বাতাস চলাচল করে এমন স্থান এড়িয়ে চলতে বলেছেন।

যাযাদি/এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

ক্যাম্পাস
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
হাট্টি মা টিম টিম
কৃষি ও সম্ভাবনা
রঙ বেরঙ

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে