রসুইঘরের পরিচ্ছন্নতা

রসুইঘরের পরিচ্ছন্নতা
রসুইঘরের কাঠামো এমন হতে হবে, যেন সহজে পরিষ্কার করা যায়। রসুইঘরের পরিচ্ছন্নতার ওপর নির্ভর করে পরিবারের প্রতিটি সদস্যের সুস্থতা। রান্নাঘরের পরিবেশ যতœআত্তি কেমন হওয়া উচিত? এ নিয়ে আমাদের আয়োজন।
য় প্রতিদিন রান্না শেষ হওয়ার পর রসুইঘরের চারপাশ পরিষ্কার করে রাখতে হবে, যেন ময়লার স্তর না পড়ে।
য় গ্যাসের চুলা অবিশুদ্ধ গ্যাস ব্যবহারের কারণে তেল চিটচিটে হয়ে যায়। কারণ, গ্যাসের সঙ্গে তেলের কণা মিশ্রিত থাকে। সে জন্য চুলা থেকে তেল বা ধোঁয়া যেন সারা ঘরে না ছড়ায়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
য় পানিতে ফিনাইল মিশিয়ে রসুইঘরের মেঝে পরিষ্কার করতে হবে।
য় রসুইঘরের দেয়ালে ম্যাট টাইলস ব্যবহার না করে গ্লসি টাইলস ব্যবহার করা ভালো। এতে দেয়ালে ময়লা আটকে থাকে না আর পরিষ্কারও করা যায় সহজে। কাউন্টার টপ বা ওয়ার্কিং টপ সমতল জায়গায় রাখতে হবে। কাউন্টার টপ ও রসুইঘরের মাপে ইউ আকারের কিচেন ক্যাবিনেট কিনতে পাওয়া যায়, তা কিনে নিতে পারেন।
য় রসুইঘরের সিংক প্রতিদিন পরিষ্কার রাখতে হবে। সিংকে যেন শক্ত কোনো খাবারের টুকরা না পড়ে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। রান্নার পর পরই প্রতিদিনের হাঁড়ি-পাতিল ধুয়ে ফেলতে হবে।
য় তেল চিটচিটে হলে কুসুমগরম পানিতে ভিম মিশিয়ে স্পঞ্জ বা ফোম দিয়ে পরিষ্কার করে ধুয়ে ফেলতে হবে। মাছ ভাজার কড়াইও প্রতিদিন এঁটো অবস্থায় না রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে।
য় ননস্টিক হাঁড়ি-পাতিল ধোয়ার সময় নরম স্ক্রাব ব্যবহার করতে হবে।
জেনে নিন
য় রসুইঘরের পরিচ্ছন্নতার ক্ষেত্রে প্রথমেই দুটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবেÑ ভেজা জোন ও শুষ্ক জোন। কাটাকুটি যেখানে করা হয় সেটি শুকনো জোন আর ধোয়ার কাজ যেখানে করা হয় সেটি ভেজা জোন। এ দুটি বিষয় মাথায় রাখলে রসুইঘর পরিষ্কার করা সহজ হয়ে থাকে।
য় প্রতিদিন বাজার থেকে যা কিনে আনা হয়, প্রথমেই রসুইঘরে ঢুকে যেগুলো ফ্রিজে রাখার প্রয়োজন, সেগুলো ফ্রিজে রাখতে হবে আর যেগুলো কাটাবাছা করা হবে, সেগুলো আলাদা করে রাখতে হবে।
য় চপিং করার জায়গায় খানিকটা স্থান রাখতে হবে কাটা সবজি রাখার জন্য। কাটাবাছা শেষ হয়ে গেলে প্রতিদিন চপিং বোর্ড পরিষ্কার করে রাখতে হবে।
য় বার্নার ও সিংকের কাছে বাটি, চামচ এগুলো রাখার জন্য ওয়াল হ্যাঙ্গিং ব্যবহার করা যেতে পারে, যেন হাতের নাগালে সব সহজে পাওয়া যায় এবং কাজ শেষ হয়ে গেলে যেন ধুয়েমুছে পরিষ্কার করে জায়গামতো গুছিয়ে রাখা যায়।
য় অনেক সময় আমরা রসুইঘরে টোস্টার, ওভেন, ব্লেন্ডার মেশিন এসব সরঞ্জাম রাখি। এগুলো সুতি কাপড় বা প্লাস্টিক দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে। তা না হলে চুলায় রান্না করার কারণে এসব সরঞ্জাম তেল চিটচিটে হয়ে যেতে পারে। প্রতিদিন এসব সরঞ্জাম ব্যবহার করলে দেখা যায়, অনেক সময় খাবারের কণা লেগে থাকে। তাই সপ্তাহে অন্তত এক দিন প্রথমে সাবান-পানি দিয়ে ধুয়ে পরে ডেটল-পানি মিশিয়ে ধুয়ে ফেললে তা পরিষ্কার ও স্বাস্থ্যকর থাকবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে