বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২১, ৭ মাঘ ১৪২৭

৫ শতাধিক ঘর পুড়ে ছাই

টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ডাকাত দলে যোগ না দেওয়ায় আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা

টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ডাকাত দলে যোগ না দেওয়ায় আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা

কক্সবাজারের টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের নয়াপাড়া নিবন্ধিত রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে ডাকাত দলে যোগ দেওয়াকে কেন্দ্র করে সালমান শাহ ও জকির গ্রুপের সংঘর্ষের জের ধরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় আগুনে পাঁচ শতাধিক ঘর ভস্মীভূত হয়েছে। তবে এতে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

গত বুধবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের নয়াপাড়া নিবন্ধিত শরণার্থী ক্যাম্পে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

অতিরিক্ত ত্রাণ ও শরণার্থী প্রত্যাবাসন কমিশনার মো. সামছুদৌজা নয়ন বলেন- গত রাত ৩টার দিকে টেকনাফের নয়াপাড়া নিবন্ধিত রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে আকস্মিক আগুন লাগে। খবর পেয়ে টেকনাফ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে। তারা প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টার পর ভোর ৫টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এরই মধ্যে ক্যাম্পটির অন্তত ৫ শতাধিক ঘর সম্পূর্ণ পুড়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, আগুন লাগার কারণ প্রাথমিকভাবে জানা যায়নি। তবে বিষয়টি জানতে সংশ্লিষ্ট পর্যায়ে কাজ চলছে। এতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণেও কাজ চলছে বলে জানান তিনি।

প্রত্যক্ষদর্শী রোহিঙ্গারা জানায়, গত রাত ৩টার দিকে টেকনাফ নয়াপাড়া নিবন্ধিত শরণার্থী ক্যাম্পের ই-ব্লকের বাসিন্দা ডাকাত জকির গ্রুপের সদস্য শওকত আলীকে সালমান শাহ গ্রুপে যোগ দেওয়ার প্রস্তাব দেয়। এতে শওকত আলী তাদের গ্রুপে যোগ দিতে রাজি হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের বাসার দরজা বন্ধ থাকা অবস্থায় সালমান শাহ গ্রুপের সদস্যরা তার ঘর পুড়িয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে আগুন দেয়। এ আগুনে ঘরগুলোর চাল ও বেড়া পলিথিনের হওয়ায় এবং ঘরে ঘরে গ্যাস সিলিন্ডার থাকায় তার অধিকাংশই বিস্ফোরিত হয়ে আগুন দ্রুত চারপাশে ছড়িয়ে পড়ে এবং নিয়ন্ত্রণের বাইরে যায়।

খবর পেয়ে টেকনাফ ফায়ার সার্ভিস ও রোহিঙ্গারা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালায়। একপর্যায়ে বৃহস্পতিবার ভোরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

আগুনে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ই-ব্লকের ৫ শতাধিক রোহিঙ্গা বসতি, ১টি ইউএনএইচসিআরের কমিউনিটি সেন্টার এবং পাশের দুটি স্থানীয় লোকের বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এছাড়া পাশের ভাসমান আরও কিছু ঝুপড়ি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।

নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পের ইনচার্জ আব্দুল হান্নান অগ্নিকাণ্ডের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ভোররাতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ক্ষয়ক্ষতির সঠিক পরিমাণ নির্ণয়ে কাজ চলছে। অগ্নিকাণ্ডের কারণ তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। কারণ খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

যাযাদি/এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে