হবিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন : জমজমাট প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা

হবিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন : জমজমাট প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা

৫ম ধাপে হবিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে ঘিরে হবিগঞ্জ পৌর এলাকার সর্বত্র বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থী ও তাদের কর্মী সমর্থকরা। এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে ৬ জন ও কাউন্সিলর পদে ৪০ এবং নারী কাউন্সিলর পদে ১৭ জনসহ মোট ৬৩ জন প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে প্রতিন্ধন্ধিতা করছেন। প্রার্থী ও তাদের সমর্থকদের পদচারণায় মুখরিত এখন পৌর এলাকার প্রতিটি পাড়া মহল্লা। যে ভাবে পাড়ছেন সেই ভাবেই ভোটা ভোটারদের কাছে গিয়ে নানান প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট আদায়ে আকৃষ্ঠ করছেন। এবারের নির্বাচনে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারী ৫০ হাজার ৯শত ৩ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে তাদের নগর পিতা নির্বাচন করবেন।

হবিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগ-বিএনপি ছাড়াও নির্বাচনী মাঠে রয়েছে আরো ৪ জন মেয়র প্রার্থী। তাদের মধ্যে একজন নাগরিক সমাজের প্রার্থী, ২ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী ও একজন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী। তারা হলেন, আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আতাউর রহমান সেলিম, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী এডভোকেট এনামুল হক সেলিম, বর্তমান মেয়র স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী) মিজানুর রহমান মিজান, নাগরিক সমাজের প্রার্থী আলহাজ¦ শামছুল হুদা, স্বতন্ত্র প্রার্থী বশিরুল আলম কাউছার ও গাজী মোহাম্মদ পারভেজ হাসান।

জানা যায়, ১৮৮১ সালে ‘টাউন কমিটি’ মাত্র আধা বর্গমাইল এলাকা ও ১৫০টি হোল্ডিং এবং ২ হাজার ১শত ৫ জন পৌরবাসী নিয়ে যাত্রা শুরু করে হবিগঞ্জ পৌরসভা। কালের আবর্তন বিবর্তনের মাধ্যমে বর্তমানে ৯.০৫ বর্গকিলোমিটার আয়তনে তা প্রায় এক লাখ লোকের স্বপ্নের আবাসস্থলে পরিণত হয়েছে। একটি আধুনিক শহরে পরিণত হয়েছে শহরটি। ১৮৮১ খ্রীস্টাব্দে হবিগঞ্জ পৌরসভা প্রতিষ্ঠার পর থেকেই এগিয়ে গেছে এ পৌরসভাটি। বর্তমানে এটি একটি প্রথম শ্রেণীর পৌরসভা। আর এ পৌরসভাকে এগিয়ে নিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন পৌর মেয়ররা।

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারী নির্বাচনকে সামনে রেখে পৌরসভাটিতে এখন নির্বাচনী উত্তাপ বইছে। দলীয় নেতৃবৃন্দসহ প্রার্থীরা ছুটে চলছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। দিচ্ছেন উন্নয়নের নানান প্রতিশ্রুতি। তবে বর্তমান সরকারের আমলে এ পৌরসভায় ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড হওয়ায় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সরকার দলীয় প্রার্থীকেই বিজয়ী করার আহব্বান পৌর এলাকার সচেতন নাগরিক সমাজের।

আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আতাউর রহমান সেলিম বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা আমার উপর আস্থা রেখে আমাকে নৌকার মাঝি হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছেন। হবিগঞ্জ পৌর এলাকায় এখন নৌকার জোয়ার বইছে। আশাকরি আগামী ২৮ তারিখের নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হবিগঞ্জ পৌরসভাটি উপহার দিতে পারব।

বিএনপির প্রার্থী এডভোকেট এনামুল হক সেলিম বলেন, আওয়ামীলীগ সরকারের প্রতি দেশের মানুষের এখন কোন আস্থা নেই। তাই আগামী পৌর নির্বাচনে ধানের শীষে ভোট দিতে সাধারণ জনগণ অপেক্ষায় রয়েছে। যদি সুষ্ঠ ভোট হয় তা হলে হবিগঞ্জ পৌরসভায় ধানের বিজয় সু-নিশ্চিত।

আওয়ামী লীগ বিদ্রোহি প্রার্থী মেয়র মিজানুর রহমান বলেন মানুষের ভালবাসা নিয়ে নির্নিবাচনের প্রচারনা করছি। নির্বাচন সুষ্টু হলে আমার জয় কেউ দরে রাখতে পারবে না। নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ সাদেকুল ইসলাম বলেন, হবিগঞ্জ পৌরসভায় শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী পরিবেশ বজায় রয়েছে। ইতিমধ্যে প্রার্থীদের তাদের আচরণ বিধি সম্পর্কে ধারণা দেয়া হয়েছে। আশাকরি শান্তিপূর্ণ ভাবেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। উল্লেখ্য, আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারী ইভিএমের মাধ্যমে হবিগঞ্জ পৌরসভায় ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।

যাযাদি/এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে